উল্লাপাড়ায় বিদ্যুৎ স্পর্শে গৃহবধুর মৃত্যু

বুধবার দুপুরে উল্লাপাড়া উপজেলার এলংজানি গ্রামের মাঠে বিদ্যুৎ স্পর্শে জাহানারা বেগম (৪৫) নামের এক গৃহবধু মারা গেছেন।

তিনি এই গ্রামের শহীদুল প্রামানিকের স্ত্রী। তিনি মাঠে ঘাস কাটতে গিয়ে এই দুর্ঘটনার শিকার হন।

উল্লাপাড়া মডেল থানার উপ পরিদর্শক আলাল হোসেন জানান, উক্ত গ্রামের কৃষক শহীদ সরকার তার মাঠে ধান মাড়াইয়ের স্থান তৈরি করে সেখানে মেশিনে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়। সংযোগের তারটি তার বাড়ি থেকে মাটির উপর দিয়ে নিয়ে এসে মাড়াই মেশিনে যুক্ত করে। ওই তারে ছিদ্র ছিল।

জাহানারা মাঠে ঘাষ কাটার সময় অসাবধানতা বশতঃ তারের সেই স্থানে বিদ্যুৎ স্পর্শে ঘটনাস্থলেই মারা যান। পুলিশ লাশ উদ্ধার করেছে।

শাহজাদপুরে দুইজনের মৃত্যু


সিরাজগঞ্জ জেলায় পৃথক বজ্রপাতে ৫জন নিহত

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর,উল্লাপাড়া ও বেলকুচি উপজেলায় রবিবার বিকেল পৌনে ৫টার দিকে পৃথক বজ্রপাতে ৫ জন নিহত হয়েছে। নিহতরা হলেন,শাহজাদপুর উপজেলার কায়েমপুর ইউনিয়নের চর আঙ্গারু গ্রামের আমানত মোল্লার ছেলে মো: আব্দুল্লাহ ওরফে জুয়েল রানা (২৬), নরিনা ইউনিয়নের বাতিয়া গ্রামের মৃত জালাল উদ্দিন ভোলার ছেলে আলহাজ আলী বাবুর্চি (৬০), উল্লাপাড়া উপজেলার উধুনিয়া ইউনিয়নের আগদিঘল গ্রামের শাহেদ আলীর ছেলে ফরিদুল ইসলাম (১৬), সলঙ্গা ইউনিয়নের আঙ্গারু গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে রফিকুল ইসলাম (৪৫) ও বেলকুচি উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের চর সমেষপুর গ্রামের লাইলি বেগম(৪৫)।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলার কায়েমপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড সদস্য আবুল কালাম জানান, এ দিন বিকেলে বাড়ির পাশের জমিতে ধান কাটার সময় জুয়েল রানা বজ্রপাতে নিহত হয়।

এ বিষয়ে নরিনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফজলুল হক ও এলাকাবাসি আলতাফ হোসেন জানান, আলহাজ তার স্ত্রীকে সাথে নিয়ে বাড়ির পাশের মাঠে ধান শুকানোর কাজ করছিলেন। এ সময় ঝড়-বৃষ্টি শুরু হলে তারা দৌড়ে বাড়ির কাছে আসলে হঠাৎ বজ্রপাতে আলহাজ বাবুর্চি ঘটনাস্থলেই নিহত হয়।

এ বিষয়ে উল্লাপাড়া উপজেলার উধুনিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল প্রামানিক জানান, আগদিঘল গ্রামের মাঠে ধান কাটার সময় নবম শ্রেণির ছাত্র ফরিদুল ইসলাম বজ্রপাতে নিহত হয়।

এ বিষয়ে সলঙ্গা থানার ওসি আব্দুল কাদের জিলানী বলেন,উল্লাপাড়া উপজেলার বাঙ্গালা ইউনিয়নের ধরইল বিলে হাঁস পালনের সময় রফিকুল ইসলাম (৪৫) নামের এক রাখাল বজ্রপাতে নিহত হয়। তিনি উল্লাপাড়া উপজেলার সলঙ্গা ইউনিয়নের আঙ্গারু গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে।

এ বিষয়ে বেলকুচি থানার ওসি গোলাম মোস্তফা জানান, বেলকুচি উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের চর সমেষপুর গ্রামের লাইলি বেগম মাঠে কাজ করার সময় বজ্রপাতে নিহত হন। এ সব ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

উল্লাপাড়ায় বিয়ে বাড়িতে সাউন্ডবক্স বাজানো নিয়ে সংঘর্ষ আহত ১২

বিয়ে বাড়িতে সাউন্ডবক্স বাজানোকে কেন্দ্র করে দুই দলের সংঘর্ষে মোট ১২ জন আহত হয়েছে। এদের মধ্যে ৬জনকে গুরুতর অবস্থায় সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাত শেখ ফজিলাতুননেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে রোববার (২৩ মে) সন্ধ্যায় উল্লাপাড়া উপজেলার বড়হর ইউনিয়নের পাগলা গ্রামে কালু প্রামানিকের বাড়িতে। কালু প্রামানিকের ছেলে মিন্টুর এদিন বৌভাতের অনুষ্ঠান ছিল।

গুরুতর আহতরা হলেন, পাগলা গ্রামের বাসিন্দা বড়হর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সম্পাদক রাসেল হোসেন (৩০), ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের সাবেক সম্পাদক সবুজ হোসেন (৩২), পাগলা ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি সাজেদুল ইসলাম (৩৪), ও ছাত্রলীগ নেতা সুজন (৩১), রফিকুল (৩২) ও খলিলুর রহমান (৩০)।

পাগলা গ্রামের লোকজন জানান, কালু প্রামানিকের ছেলে মিন্টুর বিয়ে উপলক্ষে শুক্রবার তাদের বাড়িতে বিয়ের আয়োজকরা উচ্চস্বরে সাউন্ড বক্স বাজালে গ্রামের জাহিদুল, শহিদুল ও সাহেদ আলী তাদেরকে সাউন্ডবক্স বাজানো বন্ধ করতে বলে। এ নিয়ে দুইপক্ষের মধ্যে হাতাহাতি হয়। এই গোলযোগের জেরধরে রোববার বৌভাতের অনুষ্ঠানে জাহিদুলদের দলের সঙ্গে কালু প্রামানিকের দলের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ বাঁধে। এতে ছাত্রলীগ নেতাসহ ১২ জন আহত হয়। গ্রামের লোকজন ঘটনাস্থলে এসে গোলযোগ নিয়ন্ত্রণ করে।

এ ব্যাপারে উল্লাপাড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দীপক কুমার দাস (পিপিএম) জানান, গোলযোগের খবর পেয়ে তিনি সোমবার (২৪ মনে) পাগলা গ্রামে কথিত বিয়ে বাড়ি পরিদর্শন করেছেন। কালু প্রামানিকের পক্ষ থেকে তার বাড়িতে আসা লোকজনের উপর হামলাকারীদের বিরুদ্ধে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রয়েছে।

উল্লাপাড়ার সড়াতৈল-আমডাঙ্গা সড়কের বেহাল অবস্থা

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার সড়াতৈল-আমডাঙ্গা আঞ্চলিক সড়কের বেহাল অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। সামান্য বৃষ্টি হলেই সড়াতৈল হাই স্কুল সংলগ্ন প্রায় আধা কিঃ মিটার সড়কে হাঁটু পানি জমে যায়। এতে জন সাধারন চলাচলে দীর্ঘদিন ধরে চরম দূর্ভোগ পোহাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগে প্রকাশ, প্রায় ২ বছর আগে সড়াতৈল গ্রামের লোকজন স্বেচ্ছাশ্রমে এ রাস্তায় মাটি ফেলে চলাচলের ব্যবস্থা করা হয়। পরবর্তী বছরের বন্যায় এ সড়কটি আবারো ধসে যায়। এ কারণে সড়কটি আবারো চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। এ রাস্তার অধিকাংশ স্থানে গর্তের সৃষ্টি হয়। এমনকি যানবাহনতো দুরের কথা পায়ে হেঁটেও চলাচল করা যায় না। এ কারণে চরম ভোগান্তির শিকার হয় স্থানীয়রা। অথচ এ রাস্তা সংলগ্ন সড়াতৈল হাই স্কুল ও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ সড়াতৈল বাজার রয়েছে। এ রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন শত শত মানুষ যাতায়াত করে থাকে।

এ জনগুরত্বপূর্ণ রাস্তাটি সংস্কারের জন্য স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে একাধিকবার আবেদন করেও কোন কাজে আসেনি। সড়াতৈল মুসলিম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মান্নান তালুকদারসহ স্থানীয়রা জানান, বিশেষ করে বর্ষা ও বৃষ্টির দিনে এখানকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের এক হাঁটু পানি ভেঙ্গে আসতে হয়। এতে ছোটখাট দূর্ঘটনাও ঘটেছে ওই রাস্তায়। সংশ্লিষ্ট প্রশাসন নজর না দেয়ায় এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান জহুরুল হক নান্নু জানান, ইউনিয়ন পরিষদ তহবিলে প্রয়োজনীয় অর্থ না থাকায় ওই রাস্তাটি সংস্কারের উদ্যোগ নেয়া সম্ভব হয়নি। তবে আগামী অর্থবছরে এ রাস্তা সংস্কার করা হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

উল্লাপাড়ায় জামায়াত-শিবিরের ৮ নেতাকর্মী আটক

প্রতিকী ছবি

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলায় গোপন বৈঠক চলাকালে জামায়াত-শিবিরের ৮ নেতাকর্মী আটক করেছে পুলিশ।

গতকাল সোমবার (৩ মে) রাতে পৌর এলাকার ঝিকিড়া থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।

পুলিশ জানায়, নাশকতা সৃষ্টির জন্য জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা গোপন বৈঠক করছে এমন খবরের ভিত্তিতে ওই এলাকায় পুলিশ অভিযান চালায়। এ সময় উপজেলা জামায়াত ও শিবিরের বিভিন্ন পদে দায়িত্বরত একাধিক নেতাসহ বেশ কয়েকজন কর্মীকে আটক করা হয়।

এ বিষয়ে উল্লাপাড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দ্বিপক কুমার দাস বলেন, কয়েকটি হকিস্টিক, দেশীয় অস্ত্র ও জিহাদি বইসহ জামায়াত-শিবিরের ৮ নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে।

উল্লাপাড়ায় পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার সলঙ্গা থানাধীন হাটিকুমরুল ইউনিয়নে ডোবার পানিতে ডুবে তাসকিয়া খাতুন (১৪) নামে একটি শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

রোববার (২৫ এপ্রিল) দুপুরের দিকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

সকালে ইউনিয়নের রাধানগর গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তাসকিয়া ওই গ্রামের আলীর মেয়ে।

পরিবারের বরাত দিয়ে সলঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল কাদের জিলানী জানান, সকালে বাড়ির উঠানে খেলার সময় সবার অজান্তে পার্শ্ববর্তী ডোবার পানিতে পড়ে ডুবে যায় তাসকিয়া। পরে শিশুটিকে দীর্ঘক্ষণ না দেখে স্বজনরা খোঁজ শুরু করলে দুপুরের দিকে ডোবাটি থেকে ভাসমান মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

সিরাজগঞ্জের চড়িয়া গণহত্যা দিবস আজ

সিরাজগঞ্জের চড়িয়া গণহত্যা দিবস আজ

আজ ২৫ শে এপ্রিল, সিরাজগঞ্জের চড়িয়া গণহত্যা দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে জেলার উল্লাপড়া উপজেলার চড়িয়াশিকা গ্রামে পাকিস্থানি বাহিনী ২৫৪জন গ্রামবাসীকে নৃশংসভাবে হত্যা করে। স্বাধীনতার ৫০ বছর পরেও সেদিনের গণ হত্যায় নিহত কারোরই মেলেনি শহীদের স্বীকৃতি। সংরক্ষণ করা হয়নি গণকবরগুলোও।

সিরাজগঞ্জ জেলার চড়িয়াশিকা গ্রামের ৬৫ বছরের কাঙ্গাল মন্ডল। একাত্তরের ২৫শে এপ্রিল পাকিস্থানী বাহিনীর গণহত্যার শিকার হওয়ার হাত থেকে বেঁচে যাওয়া একজন। তবে সেদিনের কথা মনে হলে এখনো শিউরে উঠেন তিনি। পাকিস্থানী বাহিনীর নারকীয় হত্যাযজ্ঞের সময় শরীরে ৪টি গুলি খেলেও লাশের ভীড়ে পড়ে থেকে ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান।

চড়িয়াশিকা গ্রামের অধিকাংশ পরিবারের কেউ না কেউ সেদিন পাক হানাদার বাহিনীর হাতে নিহত হয়েছেন। কিন্তু স্বাধীনতার এতো বছর পরও তারা পাননি শহীদের মর্যাদা সংরক্ষণ করা হয়নি তাদের কবরগুলো। তবে প্রতি বছর এই দিনে শহীদদের শ্রদ্ধার সাথে স্মরন করেন স্বজন ও গ্রামবাসীরা ।

সেদিনের গণহত্যায় শহীদদের নাম লিখে গ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে একটি স্মৃতিস্তম্ভ তৈরি করেছে স্থানীয় একটি সংগঠন ।গণহত্যার স্থানগুলো চিহ্নিত করে স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণসহ সকল শহীদদের সরকারি স্বীকৃতি আদায়ে কাজ করছে স্থানীয় গণহত্যা অনুসন্ধান কমিটির সদস্যরা। গণহত্যার স্থানটি সরকারিভাবে সংরক্ষণের দাবি জানালেন শহীদ পরিবারের সদস্য ও স্থানয়ীরা।

উল্লাপাড়ায় কোকেনসহ ৪ মাদক ব্যবসায়ী আটক

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ার ঘোষগাঁতী মহল্লায় অভিযান চালিয়ে কোকেনসহ চার মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তাদের আটক করা হয়।

আটকেরা হলেন-উল্লাপাড়া উপজেলার কৈবর্তগাঁতী গ্রামের মো. হাফিজুর রহমান (৩১), সুবোদ্য মরিচ গ্রামের মো. আব্দুল জুব্বার (২৪), শুকলহাট গ্রামের বাচ্চু কুমার হালদার আশীষ (৩৬) এবং পাবনা জেলার ভাঙ্গুড়া উপজেলার ময়দান দিঘী গ্রামের মো. জাহিদ হাসান (৪০)।

এ বিষয়ে র‌্যাব-১২ এর সহকারী পুলিশ সুপার মো. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উল্লাপাড়া পৌরসভার ঘোষগাঁতী পালপাড়া মহল্লায় অভিযান চালিয়ে ৫৮ লাখ টাকা মূল্যের ৫৮০ গ্রাম কোকেনসহ ৪ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে ২টি মোবাইল সেট জব্দ করা হয়।

তিনি আরও জানান, আটকেরা মাদক কারবারী। তারা দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় মাদক ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিলেন। এ ব্যাপারে উল্লাপাড়ায় মডেল থানায় মামলা হয়েছে। আটকদের বুধবার উল্লাপাড়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

উল্লাপাড়ায় ব্যবসায়ীর নিকট ২ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবিঃ গ্রেফতার ১

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া মডেল থানা পুলিশ চাদাবাজী মামলায় শরিফুল ইসলাম বাবুকে গ্রফতার করে শুক্রবার আদালতে প্রেরন করেছে।

উল্লাপাড়া মডেল থানা সূত্রে জানাযায়, উপজেলার বড়হর ইউনিয়নের পাগলা গ্রামের হাতেম আলীর ছেলে শরিফুল ইসলাম উপজেলার পাটধারির মেসার্স আনান ব্রিকসের মালিক আব্দুল আজিজের কাছে ২ লক্ষ টাকা চাদা দাবি করে। চাদার টাকা না দেওয়ায় আব্দুল আজিজকে মারধর করে ।

আব্দুল আজিজ এ বিষয়ে থানায় একটি মামলা করলে উল্লাপাড়া মডেল থানা পুলিশ বৃহস্পতিবার রাতে অভিযান চালিয়ে শরিফুল ইসলাম বাবুকে গ্রফতার করে। উল্লাপাড়া মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সিরাজুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, শুক্রবার দুপুরে শরিফুল ইসলাম বাবুকে আদালতে চালান দেওয়া হয়েছে ।

উল্লাপাড়ায় এইচ টি ইমামের প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত

এইচ টি ইমাম | ছবি: সংগৃহীত

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমামের প্রথম জানাজা সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সকালে হেলিকপ্টারে করে তাঁর মরদেহ উল্লাপাড়ার সোনাতলা গ্রামে নেওয়া হয়। সেখান থেকে প্রথম জানাজার জন্য তাঁর মরদেহ নেওয়া হয় উল্লাপাড়া সরকারি আকবর আলী কলেজ মাঠে। দুপুর পৌনে ১২টার দিকে তাঁর প্রথম জানাজা হয়।

আজ সকালে এইচ টি ইমামের ছেলে সাংসদ তানভীর ইমাম মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, সিরাজগঞ্জে তাঁর বাবার জানাজা শেষে মরদেহ ঢাকায় জাতীয় শহীদ মিনারে নেওয়া হবে। সেখানে বিকেল সাড়ে তিনটা পর্যন্ত সবার শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য রাখা হবে। বিকেলে বাদ আসর গুলশান আজাদ মসজিদে দ্বিতীয় জানাজা শেষে বনানী কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হবে।

গতকাল বুধবার দিবাগত রাত সোয়া একটার দিকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) এইচ টি ইমামের মৃত্যু হয় (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তিনি ফুসফুস, কিডনি, হৃদ্‌রোগসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন জটিলতা নিয়ে চিকিৎসাধীন ছিলেন। দেশের প্রথম মন্ত্রিপরিষদ সচিব এইচ টি ইমামের বয়স হয়েছিল ৮২ বছর। ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন তিনি। প্রথমে জনপ্রশাসনবিষয়ক উপদেষ্টার দায়িত্ব পালন করেন। পরে তিনি প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা নিযুক্ত হন।

এইচ টি ইমামের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সূত্রঃ প্রথমআলো