শাহজাদপুরে আলকোরআন প্রেমী হোসনেআরা ও সমাজসেবী আব্দুল্লাহ আল মামুনকে সংবর্ধনা

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া আল কোর আন প্রেমী মহিয়সী নারী মোছাঃ হোসনে আরা ও শাহজাদপুরের জনদুর্ভোগ নিয়ে কাজ করায় ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল্লাহ আল মাহমুদকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়।
গতকাল মঙ্গলবার রাতে শাহজাদপুর পৌরসদরের দ্বারিয়াপুর উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম- আহবায়ক ও সবুজ বিপ্লবের উদ্যোক্তা কামরুল হাসান হিরোকের কার্যালয়ে তাদেরকে এ গুনী সংবর্ধনা ক্রেষ্ট প্রদান করা হয় ।

শাহজাদপুর সবুজ বিপ্লবের উদ্দোক্তা ও উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক কামরুল হাসান হিরোক আয়োজিত এ গুনী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, শাহজাদপুর নবনির্বাচিত পৌর মেয়র মনির আক্তার খান তরুলোদী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ লিয়াকত, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাক আমিরুল ইসলাম শাহু, উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য কে এম নাছির উদ্দিন প্রমূখ।

উল্লেখ্য, মাটিতে পরে থাকা পোষ্টার, লিফলেট ও হ্যান্ডবিল থেকে বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম, আল্লাহ্ আকবর ও আল্লাহ সর্বশক্তিমান সহ পবিত্র ধর্মগ্রন্থ, আল কুরআনের বিভিন্ন আয়াত এবং আল্লাহ্ তাআলার বিভিন্ন নাম ছিড়ে দীর্ঘ প্রায় ২০ বছর যাবৎ সংরক্ষণ করে চলেছেন মোছাঃ হোসনে আরা (৪০) নামের এই মহীয়সী নারী। তার এই কোরআন প্রেম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করে ভাইরাল করেন ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ। তাদের এই দৃষ্টান্তের জন্য আজ তাদেরকে গুনী সংবর্ধনা ক্রেষ্ট প্রদান করা হয় । সেই সাথে এ উপজেলায় বিনা মুল্যে কোরআন শিক্ষা দেয়ায় ৩ জন নারী ও বিনামূল্যে ২০ বছর ধরে কবর খোড়ায় একজন পুরুষকেও পুরস্কৃত করা হয়।

প্রধানমন্ত্রীর উপহার ‘স্বপ্ন নীড়’ এর আশায় শাহজাদপুরে ১৫০ পরিবার

মোঃ আবুল কাশেম ও মোঃ শামছুর রহমান শিশির, শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) থেকে : মুজিববর্ষ উপলক্ষে দরিদ্র ভূমি ও গৃহহীনদের জন্য নির্মিত হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া উপহার ‘স্বপ্ন নীড়’। মুজিববর্ষ উপলক্ষে ১ শ’ ৫০টি পরিবারের জন্য ঘর তৈরির কাজ প্রায় ৮০ শতাংশ সম্পন্ন হয়েছে। তালিকাভুক্ত গৃহহীন পরিবারগুলোর মুখে এখন হাসি ফুটে উঠেছে মুজিববর্ষের এই উপহারে। দিনের পর দিন আনন্দ ভরা স্বপ্ন নিয়ে অপেক্ষার প্রহর গুনছে দেড় শতাধিক পরিবার। আগামী ২৩ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে তালিকাভুক্ত গৃহহীনদের মাঝে প্রদান করা হবে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া মুজিববর্ষের এই উপহার ‘স্বপ্ন নীড়’। নির্মাণাধীন ঘরগুলো সার্বিকভাবে তদারকি করছেন শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ মোঃ শামসুজ্জোহা, সহকারী কমিশনার (ভুমি) মোঃ মাসুদ হোসেন ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ।

শাহজাদপুর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানা গেছে, জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবর্ষ উপলক্ষে ভ‚মি ও গৃহহীন পরিবারের জন্য চলতি অর্থ বছরে শাহজাদপুর উপজেলার ৫টি ইউনিয়নে দেড় শতাধিক ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। রুপবাটি ইউনিয়নে ৪০টি, পোতাজিয়া ইউনিয়নে ৪০টি, গাঁড়াদহ ইউনিয়নে ৪০টি, হাবিল্লাহনগর ইউনিয়নে ২০টি, কৈজুরী ইউনিয়নে ১০টি ঘর বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। এই ঘরগুলো তৈরীর কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলেছে। ২০ ফুট প্রস্থ ও ২২ ফুট দৈর্ঘ্যরে দুই কক্ষ বিশিষ্ট এই বাড়ী গুলোর সাথে সংযোজিত থাকছে একটি রান্না ঘর, শৌচাগার ও সামনে খোলা বারান্দা। প্রতিটি ঘর নির্মাণে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা। এরই মধ্যে কাজের অগ্রগতি প্রায় শেষের দিকে। আগামী ২৩ জানুয়ারির মধ্যে ঘরগুলো গৃহহীনদের মাঝে বুঝিয়ে দেয়া হবে। সরজমিনে গিয়ে রূপবাটি ইউনিয়নের বাঘাবাড়ী ঘাটের পশ্চিমপাড়ে নির্মাণাধীন বাড়ী গুলোর বিষয়ে বাসিন্দা শ্রমিক আব্দুল মান্নান ও কলেজ পড়ুয়া ছাত্র আব্দুল্লাহ আল-মাহমুদ জানান, প্রথম অবস্থায় অত্যন্ত নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে বাড়ীগুলো নির্মাণ করা হয়েছে। এখন অনেকটা ভালো মানের সামগ্রী দিয়ে বাড়ীগুলো নির্মাণ করা হচ্ছে। উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ জানান, গরীবের সপ্নের ঘর তৈরিতে তারা ব্যস্ত। মানসম্মত ঘর দরিদ্র ও ভূমিহীনদের মাঝে তুলে দেওয়াই এখন তাদের মুল লক্ষ্য। সহকারী কমিশনার (ভুমি) মোঃ মাসুদ হোসেন জানান,সরকারী নির্দেশনা মোতাবেক নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সকল কাজ সম্পন্ন হবে এমন প্রত্যাশা আমাদের।

শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ মোঃ শামসুজ্জোহা জানান, মুজিব বর্ষ উপলক্ষে সরকার কর্তৃক প্রদেয় এই প্রকল্প অত্যন্ত সুন্দরভাবে সম্পন্ন হওয়ার পথে। কিছু অসম্পন্ন কাজ সমাপ্ত হওয়ার পর অল্প কয়েকদিনের মধ্যে এগুলো গৃহহীন অসহায় পরিবারগুলোর মধ্যে বরাদ্দ দেয়া হবে। এই ঘর বরাদ্দে কোনো প্রকার তদবির ও অনৈতিক সুযোগ-সুবিধা যেন কেউ নিতে না পারে সেজন্য সঠিক তদারকি করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

শাহজাদপুর সংবাদ ডটকম পরিবারের পক্ষ থেকে এমপি স্বপনের সুস্বাস্থ্য, দীর্যায়ু ও সমৃদ্ধি কামনা


‘জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত শাহজাদপুরবাসীর কল্যাণে কাজ করে যাবো’– এমপি স্বপন

‘কিডনি প্রতিস্থাপনের জন্য আমি তুরস্কের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলাম। মহান আল্লাহপাকের দয়ায় এবং আপনাদের দোয়ায় প্রায় ২ মাস তুরস্কে চিকিৎসাসেবা নেয়ার পর সুস্থ্য হয়ে আবার আপনাদের মাঝে ফিরে এসেছি। আমার সুস্থ্যতার জন্য আপনারা মসজিদ, মাদরাসা, মন্দিরসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে দোয়া মাহফিল করেছেন। মহান আল্লাহ তা’য়ালা আপনাদের দোয়া কবুল করে আমাকে নতুন জীবন দান করেছেন। আমি যতদিন বেঁচে থাকবো আপনাদের সাথেই থাকবো। জীবনের শেষ মুহুর্ত পর্যন্ত আপনাদের কল্যানেই কাজ করে যাব।’

মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) দুপুরে শাহজাদপুর সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তুরস্কে চিকিৎসা শেষে স্থানীয় এমপি আলহাজ্ব হাসিবুর রহমান স্বপনের আগমন উপলক্ষে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত শুভেচ্ছা বিনিময় ও দোয়া মাহফিলের মধ্যমণি’র বক্তব্যে জাতীয় সংসদ সদস্য, সাবেক শিল্প-উপমন্ত্রী ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব হাসিবুর রহমান স্বপন শাহজাদপুরবাসীর উদ্দেশ্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেছেন।

এদিকে, শাহজাদপুরের গণমানুষের নেতা হাসিবুর রহমান স্বপন এমপি’র আগমনের খবর পেয়ে তাকে এক নজর দেখার জন্য উপজেলার ১৩ টি ইউনিয়ন ও পৌরসভার বিভিন্ন পাড়া-মহল্লা-ওয়ার্ড থেকে সকাল থেকেই হাজার হাজার মানুষ ব্যানার-ফেসটুন-বাদ্যযন্ত্রসহ খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সমবেত হয়। দুপুরে হেলিকপ্টার যোগে এমপি হাসিবুর রহমান স্বপন ঢাকা থেকে শাহজাদপুরে এসে পৌঁছালে পুরো মাঠ জনসমুদ্রে পরিণত হয় এবয় শুভেচ্ছ বিনিময় ও দোয়া মাহফিলের এ অনুষ্ঠানটি বিশাল জনসভায় পরিণত হয়। দীর্ঘদিন পরে প্রিয় নেতার আগমনের সংবাদে প্রিয় নেতাকে একনজর দেখার জন্য এবং ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়ার জন্য হাইস্কুল মাঠ ছাড়াও পুরো পৌর এলাকায় দলীয় নেতা-কর্মী, সমর্থকসহ আমজনতার ঢল নামে।

শাহজাদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলাম বাবলা’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উক্ত শুভেচ্ছা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আলহাজ্ব কেএম হোসেন আলী হাসান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক আব্দুস সামাদ তালুকদার। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি শফিকুর রহমান শফি। এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক বীরমুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর আজাদ রহমান, পৌরসভার নব-নির্বাচিত মেয়র মনির আক্তার খান তরু লোদী, উপজেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ও মিল্কভিটা’র ভাইস চেয়ারম্যান এ্যাড. শেখ মোঃ আব্দুল হামিদ লাবলু, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ লিয়াকত আলী, উপজেলা আ.লীগের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক ও কৈজুরি ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম, শামসুল আলম, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আমিরুল ইসলাম শাহু, ইউনিয়ন আ.লীগ নেতা আবুল হোসেন, আওয়ামী যুবলীগ শাহজাদপুর উপজেলা শাখার আহবায়ক আশিকুল হক দিনার, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারন সম্পাদক আলামিন হোসেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক শেখ মোঃ রাসেল প্রমুখ।
শেষে শাহজাদপুরের মাটি ও মানুষের নেতা আলহাজ্ব হাসিবুর রহমান স্বপন এমপি’র সুস্বাস্থ্য, দীর্ঘায়ু ও সমৃদ্ধি কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
এদিকে, দীর্ঘদিন তুরস্কে চিকিৎসাসেবা নেয়ার পর আলহাজ্ব হাসিবুর রহমান স্বপন এমপি সুস্থ্য হয়ে শাহজাদপুরে ফিরে আসার এ আনন্দঘন মুহুর্তে শাহজাদপুরের প্রথম ও জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল শাহজাদপুর সংবাদ ডটকমের প্রধান সম্পাদক বীরমুক্তিযোদ্ধা আবুল বাশার, প্রকাশক ও ব্যবস্থাপনা সম্পাদক শরীফ সরকার, বার্তা সম্পাদক শামছুর রহমান শিশির, কোর্ট রিপোর্টার এমএ হান্নান শেখসহ শাহজাদপুর সংবাদ ডটকম পরিবারের সকল সদস্যের পক্ষ থেকে স্থানীয় এমপি আলহাজ্ব হাসিবুর রহমান স্বপনকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়ে তার সুস্বাস্থ্য, দীর্ঘায়ু ও উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করা হয়।

 

শাহজাদপুরে ৫’শতাধিক দুস্থকে শীতবস্ত্র দিলেন নবনির্বাচিত পৌর মেয়র তরু লোদী

শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) থেকে শামছুর রহমান শিশির ও ফারুক হাসান কাহার : সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের ৫’ শতাধিক শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করেছেন শাহজাদপুর পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা মনির আক্তার খান তরু লোদী।

শনিবার (২রা জানুয়ারি) সকালে উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে নবনির্বাচিত মেয়র মনির আক্তার খান তরু লোদীর নিজস্ব অর্থায়নে অসহায় শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র কম্বল বিতরণ করা হয়।

দুস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ কাজে অন্যান্যের মধ্যে অংশ নেন, শাহজাদপুর পৌর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আমিরুল ইসলাম শাহু, শাহজাদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আনু লোদী, নবনির্বাচিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুর রহমান এ্যাপোলো, হাবিবুল হক সাব্বির, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক ইসলাম শেখ, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক সীমান্ত লোদী, পৌর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক অনিক আকন্দসহ দলীয় নেতৃবৃন্দ।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র মনির আক্তার খান তরু লোদী বলেন,
‘তীব্র শীতে অনেক অসহায় মানুষের অবর্ণনীয় দুঃখ কষ্ট লাঘবে নিজ উদ্যোগে তাদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি। ভবিষ্যতেও পৌরবাসীসহ এলাকার অসহায় জনমানুষের বিপদে আপদে সাধ্যমতো তাদের পাশে থাকবো, ইনশাআল্লাহ।’

অন্যদিকে, অসহনীয় শীতে অর্থাভাবে শীতবস্ত্র ক্রয় করতে না পারা অসংখ্য অসহায় দুস্থ মানুষ পৌর মেয়র তরু লোদীর কাছ থেকে বিনামূল্যে শীতবস্ত্র পেয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং মেয়র তরু লোদীর উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করেন। সেইসাথে গরীর দুঃখীদের জন্য নিজস্ব অর্থ ব্যয়ের মাধ্যমে শীতবস্ত্র বিতরণের মহতী উদ্যোগ নেয়ায় মেয়র তরু লোদীর প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেন।

সুপ্ত প্রতিভা প্রস্ফুটিত হয়ে মানবিক গুণে ভরে উঠুক কচিকাঁচাদের জীবন'- শিক্ষক সুমাইয়া আক্তার


শাহজাদপুরে ‘মানবতার দেয়াল’র সাথে ছোট্ট সোনামণি সর্গও

শাহজাদপুর সরকারি মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের মহান শিক্ষিক সুমনা আক্তার শিমু আলোকবর্তিকা সংগঠনের ব্যনারে মানবতার দেওয়াল নামের ব্যতিক্রমী ও সেবামূলক একটি পট উন্মোচন করে জনকল্যাণ করে চলেছেন। তার এ মহত উদ্যোগ সর্বমহলে ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে।

জানা গেছে, গত বছরের আদলে এবারও নতুন উদ্যোমে শাহজাদপুর সরকারি মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের মেইন গেটের সামনে দেয়ালের সাথে হ্যাঙ্গারে বিভিন্ন ধরনের পোশাক ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। সেখান থেকে বিদ্যালয়ের কিছু দরিদ্র  শিক্ষার্থী তাদের প্রয়োজনীয় পোশাক নিয়ে ব্যবহার করতে পারছে। বিদ্যালয়ের কিছু অভিভাবক ও শিক্ষার্থী ওই দেয়ালে পোশাক রেখে যাচ্ছে। সুবিধাবঞ্চিত ও অভাবগ্রস্থ শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে স্কুল ড্রেস ও পরিধেয় কাপড় সরবরাহের জন্য এই বিদ্যালয়ের শিক্ষক সুমনা আক্তার শিমু মহৎ এ উদ্যোগ নিয়েছেন। মানবতার এই দেয়াল সবসময়ই চালু থাকবে বলে তিনি জানান।  এর মাধ্যমে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা ছোটবেলা থেকেই মানবিক আদর্শে উজ্জীবীত হতে পারবে। সেই সাথে কচিকাঁচাদের মধ্যে লুকায়িত সুপ্ত প্রতিভা প্রস্ফুটিত হয়ে মানবিক গুণাবলী অর্জনের মাধ্যমে পরিশুদ্ধ মানুষ হিসেবে গড়ে উঠতে পারে – এ লক্ষ্যেই সংগঠনটি সৃষ্টি করেছেন শিক্ষক সুমনা আক্তার শিমু। তার এ ব্যতিক্রমি ও মহতী উদ্যোগের প্রতি সমর্থন জানাতে অনেকেই সহযোগীতার হাত প্রসারিত করছেন।

এরই ধারাবাহিকতায় শিক্ষিক কৃষ্ণা পৈইত ও ছোট্টমণি সর্গও মানবতার দেদিপ্যমান শিক্ষক সুমনা আক্তার শিমুর হাতে অব্যবহৃত পোষাক তুলে দেন।

অপরদিকে, সংগঠনটির মহৎ উদ্দেশ্যগুলোকে স্বাগত জানিয়ে বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, অভিভাবকবৃন্দ এবং সচেতনমহলসহ এলাকাবাসী এ সংগঠনের উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করেছেন।

‘বঙ্গবন্ধু’কে অবমাননা করা বাংলাদেশকে অস্বীকার করার সামিল’ – প্রফেসর ড. বিশ্বজিৎ ঘোষ

সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ভাস্কর্য বিনষ্ট ও অবমাননার প্রতিবাদে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ এর উদ্যোগে মানববন্ধন কর্মসূচি পালনকালে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ’র উপাচার্য প্রফেসর ড. বিশ্বজিৎ ঘোষ বলেন, ‘অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে এক শ্রেণির ধর্মান্ধ মৌলবাদী সাম্প্রদায়িক চিন্তার মানুষেরা বঙ্গবন্ধু’র প্রতিকৃতি বিনষ্ট তথা অবমাননার যে প্রয়াস দেখিয়েছেন তা মেনে নেয়ার মত নয়। বঙ্গবন্ধু’কে অবমাননা করা বাংলাদেশকে অস্বীকার করার সামিল। এ ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ ও ঘৃণা প্রকাশ করছি এবং এ সকল সাম্প্রদায়িক শক্তির হাত থেকে দেশকে রক্ষার জন্য সকলকে সচেতন ও সোচ্চার থাকার আহ্বান জানাচ্ছি।

বৃহস্পতিবার (১৭ ডিসেম্বর) সকালে শাহজাদপুর পৌর এলাকার বিসিক বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ভাস্কর্যের পাশে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ’র উপাচার্য প্রফেসর ড. বিশ্বজিৎ ঘোষের নেতৃত্বে পালিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে অন্যান্যের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর মোঃ আব্দুল লতিফ, রেজিস্ট্রার মোঃ সোহরাব আলী, অর্থ ও হিসাব দপ্তরের পরিচালক মোঃ গোলাম সরোয়ার, রবীন্দ্র অধ্যয়ন বিভাগের চেয়ারম্যান লায়লা ফেরদৌস, সংগীত বিভাগের চেয়ারম্যান মোঃ রওশন আলম, সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ অধ্যায়ন বিভাগের চেয়ারম্যান ফারহানা ইয়াসমিন, অর্থনীতি বিভাগের চেয়ারম্যান বরুণ চন্দ্র রায়, ব্যবস্থাপনা বিভাগের চেয়ারম্যান শারমিন আক্তারসহ বিশ্বিবদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক ও বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ অংশ নেন ।
রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়,বাংলাদেশ’র জনসংযোগ কর্মকর্তা মোঃ শাহ্ আলী এসব তথ্য জানিয়েছেন।

দৈনিক আমার সংবাদ’র দেশসেরা প্রতিবেদক শাহজাদপুরের জহুরুল ইসলাম

ঢাক থেকে প্রকাশিত বহুল প্রচলিত জাতীয় দৈনিক পত্রিকা ‘আমার সংবাদ’ এর দেশসেরা প্রতিবেদক নির্বাচিত হয়েছেন সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক জহুরুল ইসলাম।

জমকালো আয়োজনে জাতীয় ‘দৈনিক আমার সংবাদ’ পত্রিকার প্রতিনিধি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। রাজধানীর মতিঝিলে ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থার কনফারেন্স হলে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
চলতি মাসের ০৮ডিসেম্বর জমকালো প্রতিনিধি সম্মেলনে জহুরুল ইসলামকে দেশ সেরা প্রতিবেদক ঘোষনা করে দৈনিক আমার সংবাদ কর্তৃপক্ষ।
এসময় জহুরুল ইসলামের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন পত্রিকাটির সম্পাদক হাশেম রেজা।
সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে অপরাধ বিষক প্রতিবেদনের ক্যাটাগরিতে দৈনিক আমার সংবাদ সেরা প্রতিবেদক ২০২০ নির্বাচিত হয়েছেন সময়ের সাহসী এই সাংবাদিক।সেরা প্রতিবেদক হওয়ায় প্রশংসায় ভাসছেন এই সাংবাদিক।

জহুরুল ইসলাম জানান সেরা প্রতিবেদক এর পুরস্কার পাওয়ার পরে নিজের দায়িত্ব আরো বেড়ে গেলো।দৈনিক আমার সংবাদ ও তার সহকর্মীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন এই সাহসী সাংবাদিক।

উল্লেখ্য জহুরুল ইসলামের ছাত্র জীবন থেকে লেখালেখির অভ্যাস ছিলো। ২০০৮ সালে পাবনা থেকে প্রকাশিত দৈনিক ‘জীবন কথা ‘ পত্রিকায় দিয়ে প্রাতিষ্ঠানিক ভাবে সাংবাদিকতা শুরু করেন।পরবর্তীতে ২০১৬ সালে দৈনিক আমার সংবাদ পত্রিকায় যোগদান করেন। এছারা শাহজাদপুরের ১ম ও শীর্ষ স্থানীয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল শাহজাদপুর সংবাদ ডটকম এর নিজস্ব প্রতিবেদক হিসেবে কর্মরত আছেন।ব্যাক্তিগত জীবনে বিবাহিত এক সন্তানের জনক তিনি।

সুকান্ত সেনের অকাল মৃত্যুতে


শাহজাদপুর প্রেস ক্লাবের তিনদিনের শোক ঘোষণা

আবুল কাশেম ও শামছুর রহমান শিশির : আর টিভি’র জেলা স্টাফ রিপোর্টার ও সিরাজগঞ্জ প্রেস ক্লাবের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক বিশিষ্ট সাংবাদিক সুকান্ত সেনের অকাল মৃতুতে আজ শনিবার সকাল ১১ টায় শাহজাদপুর প্রেস ক্লাবে এক শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রেস ক্লাবের সভাপতি বিমল কুন্ডু’র সভাপতিত্বে এবং প্রয়াতের বিদেহী আত্মার প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে এক মিনিট নীরবতা পালনের মধ্য দিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু হয়। শোকসভায় বক্তব্য রাখেন- ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শফিকুজ্জামান শফি, সিনিয়র সহ-সভাপতি আবুল কাশেম, সহ-সভাপতি আসলাম আলী, যুগ্ন সম্পাদক আলামিন হোসেন, অর্থ সম্পাদক সাগর বসাক, দপ্তর সম্পাদক হাসানুজ্জামান তুহিন, রাজিব রাসেল, রাসেল সরকার, মাসুদ মোশাররফ প্রমুখ। বক্তব্য শেষে প্রেস ক্লাবের সকল সদস্য কালো ব্যাচ ধারণ করেন এবং প্রেস ক্লাব ভবনে কালো পতাকা উত্তোলন সহ তিনদিনের শোক কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। শোকসভায় বক্তারা প্রয়াতের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনাসহ তার শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

শাহজাদপুরে বিবর্তন নাট্য গোষ্ঠীর ‘বাঁশদিঘির জলা’ নাটক মঞ্চস্থ

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে বিবর্তন নাট্য গোষ্ঠীর ৪৭ তম প্রযোজনা ‘বাঁশদিঘির জলা’ নাটক মঞ্চস্থ হয়েছে।  রোববার ও সোমবার সন্ধ্যায় শাহজাদপুর সরকারি কলেজ শহিদ মিনার প্রাঙ্গণে কাজী শওকতের রচনা ও নির্দেশনায় এ নাটক মঞ্চস্থ হয়। সমকালীন সময়ে অবহেলিত, শোষিত, বঞ্চিত জেলেদের করুণ কাহিনী নিয়ে রচিত এ নাটকে অভিনয় করেন, কাজী শওকত, রেজওয়ান মন্ডল, ইমন হাসান, মাহফুজ আহমেদ, সুরঞ্জন কুমার শুভ, বুদ্ধিস্বর সরকার, এমএম সুজন, মিরা চক্রবর্তী, পলি পারভীন, তাসরিফা ইসলাম প্রিয়ন্তি, রাজীব আহমেদসহ বিবর্তন নাট্য গোষ্ঠীর শিল্পীবৃন্দ। এ নাট্য অনুষ্ঠানের আগে ‘সুন্দর আমার বাংলা বই’ ও ‘দেবতার গ্রাস’ কবিতার ওপর বিন্দু আবৃত্তি করেন উচ্চারণ, বর্ণমালা, বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র, কৃষ্ণকলি ও অক্ষর আবৃত্তি শিক্ষা একাডেমির শিল্পীবৃন্দ।

রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ’র সিনেট সদস্য মনোনীত হলেন ৫ শিক্ষক

সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুরে স্থাপিত রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ’র সিনেট সদস্য মনোনীত হলেন ৫ শিক্ষক। এরা হলেন, রবীন্দ্র অধ্যায়ন বিভাগের চেয়ারম্যান লায়লা ফেরদৌস হিমেল, ম্যানেজমেন্ট অধ্যায়ন বিভাগের চেয়ারম্যান শারমিন আক্তার, সংগীত বিভাগের চেয়ারম্যান মো. রওশন আলম, অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষক মোঃ নজরুল ইসলাম এবং সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ অধ্যায়ন বিভাগের শিক্ষক জান্নাতুল মাওয়া মুন। মঙ্গলবার রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ এর রেজিস্টার মোঃ সোহরাব আলী স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত পত্র মনোনীত ওই ৫ শিক্ষক হাতে পেয়ে উপাচার্য ড. বিশ্বজিৎ ঘোষসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন মনোনীত শিক্ষকেরা। রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় আইন ১৮ (১) ঝ ধারা মোতাবেক এ ৫ শিক্ষককে বিশ্ববিদ্যালয়ের নীতিমালা প্রণয়ন ও সিদ্ধান্ত গ্রহণে সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী সিনেট সদস্য হিসেবে মনোনীত করা হয়েছে বলে জনসংযোগ কর্মকর্তা শাহ আলী জানিয়েছেন।