ক্রিকেটখেলাধুলা

হাথুরুসিংহের অধীনে আর কখনোই খেলতে চান না ইমরুল

বাংলাদেশে যতজন হেভিওয়েট কোচ কাজ করেছেন, তাদের মধ্যে চন্ডিকা হাথুরুসিংহের নাম উপরের দিকেই থাকবে। যতদিন বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ ছিলেন, সবসময়ই ছিলেন আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু হয়ে। তাকে নিয়ে চটকদার নানা গল্পও শোনা যায়। ক্রিকেটারদের একটি অংশ তাকে পছন্দ করতেন না- এটি তারই একটি।

সেই হাথুরুসিংহে শ্রীলঙ্কার দায়িত্ব নিয়ে বাংলাদেশকে বিদায় বলেন। যদিও শ্রীলঙ্কায় তার অভিজ্ঞতা সুখকর ছিল না। ব্যর্থতার কারণে দল তাকে রীতিমত হেলায় ফেলে রেখেছিল। শেষপর্যন্ত বেছে নিয়েছে তার বিকল্প। বিশ্বকাপের পর স্টিভ রোডসের সাথে চুক্তির ইতি ঘটালে সেই হাথুরুসিংহে বাংলাদেশের কোচ হওয়ার একটি গুঞ্জন ফের উঠেছিল।

তবে হাথুরুসিংহে নন, বাংলাদেশের দায়িত্ব পান রাসেল ডমিঙ্গো। বর্তমানে তার সাথে বাংলাদেশ দলের কোচিং স্টাফে রয়েছেন হাই প্রোফাইল কোচরা। তবে সেই হাথুরুসিংহেকে আর কখনোই নিজের কোচ হিসেবে দেখতে চান না জাতীয় দলের ওপেনার ইমরুল কায়েস।সম্প্রতি ক্রিকাড্ডার ফেসবুক লাইভে ইমরুলের কাছে জানতে চাওয়া হয়, জেমি সিডন্স, চন্ডিকা হাথুরুসিংহে ও স্টিভ রোডসের মধ্যে কোন কোচের অধীনে তিনি আর কখনো খেলতে চান না। এই প্রশ্নের জবাবে ইমরুল জানান হাথুরুসিংহের কথা।

ইমরুল আরও বলেন, ‘কোনো মানুষের সমালোচনা করা আসলে ঠিক না। এতটুকুই বলি- ও যদি চাইত তাহলে হয়ত আমার ক্যারিয়ার আরও ভালো হত। ওর সময় ভালো খেলেও আমি নিয়মিত হতে পারিনি। হয়ত আমার প্রতি আস্থা ছিল না। কোচ হিসেবে সে অন্যতম সেরা, কোনো সন্দেহ নেই। কিন্তু দল ব্যবস্থাপনা বা খেলোয়াড়দের সাথে সম্পর্ক রক্ষায় তার কমতি ছিল। যে ভালো খেলত তার পেছনেই সে পড়ে থাকতো। কেউ খারাপ খেললে তার পাশে থাকত না। সে ভাবত, একজন খেলোয়াড়কে সবসময়ই ভালো খেলতে হবে।

’ক্রিকাড্ডার ফেসবুক লাইভে অতিথি হিসেবে ইমরুল জানা-অজানা নানা বিষয়ে কথা বলেন। পরের এপিসোডে শনিবার (১৬ মে) রাত সাড়ে এগারোটায় অতিথি হিসেবে থাকবেন অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক আকবর আলী।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

ট্যাগস

একই বিভাগের সংবাদ

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button
x
Close
Close
%d bloggers like this: