সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১
একমুহূর্তে কীভাবে বিভক্ত হয়ে গেলো ইউরোপিয়ান ফুটবল? স্রেফ এক ঘোষণায়! ‘বিদ্রোহী লিগ’ হিসেবে ইউরোপিয়ান সুপার লিগের কথা অনেকদিন থেকেই শোনা যাচ্ছিল, তবে সেটা ছিল গুঞ্জন। তবে রবিবার রাতে আনুষ্ঠানিক ঘোষণায় জানিয়ে দেওয়া হলো ইউরোপের শীর্ষ ক্লাবগুলো নিয়ে হতে যাচ্ছে প্রতিযোগিতাটি। ফিফা ও উয়েফা আপত্তি সত্ত্বেও তাদের অধীনে থাকা ক্লাবগুলোর এই ‘বিদ্রোহ’ স্বাভাবিকভাবেই মেনে নিচ্ছে না ফুটবলের দুই সংস্থা। উয়েফা তো হুঁশিয়ারি দিয়েই রেখেছে, সুপার লিগে খেললেই সেইসব ক্লাব ও খেলোয়াড়কে নিষিদ্ধ করা হবে। শুধু ক্লাব ফুটবল থেকে নয়, জাতীয় দল থেকেও নিষিদ্ধ হবেন অংশ নেওয়া খেলোয়াড়েরা। নতুন ঘোষিত প্রতিযোগিতায় নাম লিখিয়েছে স্পেন, ইংল্যান্ড ও ইতালির ১২ ক্লাব। যার মধ্যে রয়েছে বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদ, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও জুভেন্টাসের মতো সর্বজয়ী ক্লাব এই ক্লাবগুলোর অংশ নেওয়ার ঘোষণা যেহেতু এসেছে, সেহেতু ফুটবল বিশ্বের নামি-দামি অনেক খেলোয়াড়ের ক্যারিয়ার হুমকির মুখে পড়ে যাওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। বিশেষ করে, উয়েফা যখন স্পষ্ট করে সুপার লিগে খেলার ‘শাস্তি’ জানিয়ে দিয়ে বিবৃতিতে। কী আছে বিবৃতিতে বিবৃতিতে উয়েফা জানিয়েছে, ‘(ইউরোপিয়ান সুপার লিগে) সম্পর্কিত ক্লাবগুলোকে ঘরোয়া, ইউরোপিয়ান কিংবা বিশ্ব পর্যায়ের যে কোনও প্রতিযোগিতায় নিষিদ্ধ করা হবে। এবং তাদের খেলোয়াড়দের জাতীয় দলের প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগও কেড়ে নেওয়া হতে পারে।’ ইউরোপিয়ান সুপার লিগকে মনে করা হচ্ছে চ্যাম্পিয়নস লিগের আদলে গড়া নতুন একটি প্রতিযোগিতা। অর্থাৎ, ইউরোপের বড় ক্লাবগুলো যদি নতুন এই প্রতিযোগিতায় খেলতে নামে, তাহলে উয়েফার সবচেয়ে বড় প্রতিযোগিতার সেই রূপ- সৌন্দর্য আর থাকবে না। তাই উয়েফা ও ফিফা অনেক আগে থেকেই সুপার লিগ থামানোর কাজ করে যাচ্ছে। এরপরও যখন বড় ক্লাবগুলো এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তখন উয়েফা কড়া হুঁশিয়ারি দেওয়া ছাড়ার বিকল্প আর কিছু দেখেনি। খেলোয়াড়দের কী হবে ইউরোপিয়য়ান ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা খেলোয়াড় ও ক্লাব নিষিদ্ধ করার যে কথা উল্লেখ করেছে, তাতে লিওনেল মেসি ও ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর মতো বিশ্বসেরা খেলোয়াড়ের ক্যারিয়ারের পেছনে লেগে যাচ্ছে প্রশ্নবোধক চিহ্ন। মেসির বর্তমান দল বার্সেলোনা, আর রোনালদো খেলছেন জুভেন্টাসে। দুটো ক্লাবই নাম লিখিয়েছে সুপার লিগে। উয়েফা যে হুঁশিয়াারি দিয়েছে, তাতে এই দুই ক্লাবের সঙ্গে মেসি-রোনালদোর সঙ্গে আরও অনেক বড় মাপের খেলোয়াড়ের নিষিদ্ধ হওয়ার শঙ্কার মেঘও জন্মেছে। আর সেটা শুধু ক্লাবে নয়, জাতীয় দলের ক্ষেত্রেও। ক্লাব নিষিদ্ধ হলে খেলোয়াড়রা এমনিতেই খেলতে পারবেন না, কিন্তু জাতীয় দলের বেলায় বিষয়টা জটিল হতে পারে। বিশেষ করে, সামনেই যখন ২০২২ বিশ্বকাপ।

সম্পর্কিত সংবাদ

পাঁড়কোলা ইয়ুথ ক্লাব নামে একটি ক্রীড়া ও সামাজিক সংগঠন এর আত্মপ্রকাশ

খেলাধুলা

পাঁড়কোলা ইয়ুথ ক্লাব নামে একটি ক্রীড়া ও সামাজিক সংগঠন এর আত্মপ্রকাশ

খেলাধুলা ও সামাজিক কাজের মাধ্যমে সমাজের তথা পাঁড়কোলা গ্রামের ক্রীড়া ও সামাজিক উন্নয়নে নিবেদিত সংগঠন। 'পাঁড়কোলা ইয়ুথ...

শাহজাদপুরে রিভার ভিউ কফি হাউজকে ১ লাখ টাকা জরিমানা

শাহজাদপুর

শাহজাদপুরে রিভার ভিউ কফি হাউজকে ১ লাখ টাকা জরিমানা

ভ্রাম্যমান আদালতের টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছে এর সত্যতা পেয়ে ওই কফি হাউজের ৩ কর্মচারিকে আটক করে। এ সময় মালিক সেখানে উপস্থিত না...

এবার মাসুদকে ভালো হয়ে যাওয়ার জন্য সতর্ক হাইকোর্টের

আইন-আদালত

এবার মাসুদকে ভালো হয়ে যাওয়ার জন্য সতর্ক হাইকোর্টের

লকডাউনে কোর্ট বন্ধ থাকায় উপার্জন থমকে গেছে আইনজীবীদের। এমন পেশাশ্রেণির মানুষ হয়ে কারো কাছে হাতও পাততে পারছেন না তারা। তা...

মিম-ঐশী এন্টারপ্রাইজের মালিকের সংবাদ সম্মেলন

শাহজাদপুর

মিম-ঐশী এন্টারপ্রাইজের মালিকের সংবাদ সম্মেলন

শাহজাদপুর উপজেলার মিম-ঐশী এন্টারপ্রাইজের মালিক মোঃ শহিদুল ইসলাম মুক্তার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা, অপপ্রচার ও মালিক সমিতির স...

শাহজাদপুরে ১১ দিনেও গ্রেপ্তার হয়নি ৬ বছরের শিশু কন্যার ধর্ষক

শাহজাদপুর

শাহজাদপুরে ১১ দিনেও গ্রেপ্তার হয়নি ৬ বছরের শিশু কন্যার ধর্ষক

একই গ্রামের আব্দুস সালামের বখাটে ছেলে নিরব মানবমুক্তি অফিসের কেয়ারটেকার রজব আলীর আশ্রয় প্রশ্রয়ে দিনরাত নিয়মিত ভাবে মানবম...

শাহজাদপুরে কলেজ ছাত্রের আত্মহত্যা

শাহজাদপুর

শাহজাদপুরে কলেজ ছাত্রের আত্মহত্যা

গতকাল শনিবার (২৪ জুলাই) দুপুরে উপজেলার পোরজনা ইউনিয়নের হরিনাথপুর গ্রাম থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।