সিরাজগঞ্জের চড়িয়া গণহত্যা দিবস আজ

সিরাজগঞ্জের চড়িয়া গণহত্যা দিবস আজ

আজ ২৫ শে এপ্রিল, সিরাজগঞ্জের চড়িয়া গণহত্যা দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে জেলার উল্লাপড়া উপজেলার চড়িয়াশিকা গ্রামে পাকিস্থানি বাহিনী ২৫৪জন গ্রামবাসীকে নৃশংসভাবে হত্যা করে। স্বাধীনতার ৫০ বছর পরেও সেদিনের গণ হত্যায় নিহত কারোরই মেলেনি শহীদের স্বীকৃতি। সংরক্ষণ করা হয়নি গণকবরগুলোও।

সিরাজগঞ্জ জেলার চড়িয়াশিকা গ্রামের ৬৫ বছরের কাঙ্গাল মন্ডল। একাত্তরের ২৫শে এপ্রিল পাকিস্থানী বাহিনীর গণহত্যার শিকার হওয়ার হাত থেকে বেঁচে যাওয়া একজন। তবে সেদিনের কথা মনে হলে এখনো শিউরে উঠেন তিনি। পাকিস্থানী বাহিনীর নারকীয় হত্যাযজ্ঞের সময় শরীরে ৪টি গুলি খেলেও লাশের ভীড়ে পড়ে থেকে ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান।

চড়িয়াশিকা গ্রামের অধিকাংশ পরিবারের কেউ না কেউ সেদিন পাক হানাদার বাহিনীর হাতে নিহত হয়েছেন। কিন্তু স্বাধীনতার এতো বছর পরও তারা পাননি শহীদের মর্যাদা সংরক্ষণ করা হয়নি তাদের কবরগুলো। তবে প্রতি বছর এই দিনে শহীদদের শ্রদ্ধার সাথে স্মরন করেন স্বজন ও গ্রামবাসীরা ।

সেদিনের গণহত্যায় শহীদদের নাম লিখে গ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে একটি স্মৃতিস্তম্ভ তৈরি করেছে স্থানীয় একটি সংগঠন ।গণহত্যার স্থানগুলো চিহ্নিত করে স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণসহ সকল শহীদদের সরকারি স্বীকৃতি আদায়ে কাজ করছে স্থানীয় গণহত্যা অনুসন্ধান কমিটির সদস্যরা। গণহত্যার স্থানটি সরকারিভাবে সংরক্ষণের দাবি জানালেন শহীদ পরিবারের সদস্য ও স্থানয়ীরা।