সাংবাদিক শিমুল হত্যার প্রতিবাদে দেশ-বিদেশে বিক্ষোভ : ১৭ দিনেও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার না হওয়ায় উদ্বেগ

বিশেষ প্রতিবেদক : সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার দৈনিক সমকালের উপজেলা প্রতিনিধি ও সাপ্তাহিক জনতার মশাল পত্রিকার বার্তা সম্পাদক আব্দুল হামিদ শিমুল হত্যার প্রতিবাদে সারাদেশে সাংবাদিকরা মানববন্ধন ও প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করে আসছেন। গত ২ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার বিকেলে পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে মেয়র মিরু, তার ভাইসহ সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের গুলিতে গুরুতর আহত হন ও পরদিন দুপুরে মারা যান। এ ঘটনায় দেশের সকল গণমাধ্যমকর্মীসহ আন্তর্জাতিক সংগঠন গুলোর পক্ষ থেকেও তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করে দোষিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো অব্যাহত রয়েছে। পাশাপাশি সাংবাদিক শিমুল হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত মেয়র ও তার সশস্ত্র সন্ত্রাসী বাহিনীর কাছে থাকা একাধিক অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র’র একটিও গত ১৭ দিনে উদ্ধার না হওয়ায় বর্হিবিশ্ব ও দেশের সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। কী কারণে সাংবাদিক শিমুল হত্যাকান্ডের ১৭ দিনের মধ্যেও অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার সম্ভব হয়নি ? – তা পরিষ্কার করার জন্য সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ সরকারের সু-দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। ইতিমধ্যেই পুলিশ ঘটনার মূলহোতা মেয়র মিরু, তার ভাই মিন্টু, ড্রাইভার শাহীনসহ ৮ জনকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। আজ ৬ জনকে রিমান্ড শেষে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া, মেয়র মিরুর ভাই মিন্টুর সহযোগী নিজাম বাহিনীর প্রধান নিজাম ওরফে নিস্তার বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। অপরদিকে, সাংবাদিক শিমুল হত্যাকান্ডের প্রায় ১৭ দিন অতিবাহিত হলেও অবশিষ্ট আসামীদের সনাক্তপূর্বক গ্রেফতার ও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারসহ দোষীদের ফাসির দাবিতে লন্ডন, নিউইয়র্ক, ব্রাসেল্সসহ বর্হি:বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে ও দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রতিবাদ ও নিন্দার ঝড় অব্যাহত রয়েছে।

আইএফজে ও সিপিজে : সাংবাদিকদের আন্তর্জাতিক সংগঠন ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অব জার্নালিষ্টস (আইএফজে) এবং কমিটি টু প্রোটেক্ট জার্নালিস্টস (সিপিজে) বাংলাদেশে সাম্প্রতিক সাংবাদিক হত্যার নিন্দা জানিয়েছে। নিজস্ব সাইটে প্রকাশিত বিবৃতিতে তারা ওই নিন্দা জানায়। পাশাপাশি এই হত্যাকাণ্ডের দ্রুত বিচার দাবি করেছে উভয় সংগঠন। আইএফজে জেনারেল সেক্রেটারি অ্যান্থনী বেলাঙ্গার বলেন, ‘আইএফজে তীব্রভাবে এই হিংস্রতার নিন্দা জানাচ্ছে। আমাদের এই সহকর্মী শুধু সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়েছিলেন, জীবন দিয়ে যার মূল্য দিতে হলো!’ তিনি আরও বলেন, ‘এটি তীব্র বেদনাদায়ক! এই হত্যার মাধ্যমে আবার আমাদেরকে মনে করিয়ে দেয়া হলো যে, বিশ্বব্যাপী মানুষকে সত্য জানাতে গিয়ে সংবাদিকদের নিজের জীবন উৎসর্গ করতে হচ্ছে।’ এদিকে সিপিজে তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে সাংবাদিক শিমুল হত্যার নিন্দা জানিয়ে দ্রুত এর বিচার দাবি করেছে। সিপিজে বলেছে, ‘বাংলাদেশ সরকারের উচিৎ দ্রুত তদন্তের মাধ্যমে সাংবাদিক শিমুল হত্যার বিচার করা।’ ১৯৯২ সাল থেকে সিপিজে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশে নিহত সাংবাদিকদের তথ্য সংরক্ষণ করে আসছে। তাদের হিসাব অনুযায়ী, এ পর্যন্ত ২০ জন বাংলাদেশি সাংবাদিক দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে নিহত হয়েছেন। সাংবাদিক আবদুল হাকিম শিমুলের হত্যাকাণ্ড ছাড়াও নয়টি হত্যাকাণ্ডের ঘটনা নিজেরা তদন্ত করার কথা জানিয়েছে সিপিজে।

লন্ডন ( যুক্তরাজ্য ) : সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের লন্ডনে প্রবাসী বাংলাদেশি সাংবাদিকরা ‘দৈনিক সমকাল’-এর সাংবাদিক আব্দুল হাকিম শিমুল হত্যাসহ সারাদেশে সাংবাদিকদের ওপর মিথ্যা মামলা, নির্যাতন ও হত্যার প্রতিবাদ জানিয়ে সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানবন্ধন করেছে। পূর্ব লন্ডনের আলতাব আলী পার্কে লন্ডনে কর্মরত প্রবাসী বাংলাদেশি সাংবাদিকদের সংগঠন ‘বৃটিশ-বাংলাদেশী সাংবাদিকবৃন্দ’ এ প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করে। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ‘লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাব’-এর সভাপতি সৈয়দ নাহাস পাশা এবং পরিচালনা করেন এসএ টিভির বিশেষ প্রতিনিধি হেফাজুল করিম রকিব। সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন ‘সাপ্তাহিক জনমত’-এর বিশেষ প্রতিনিধি আহাদ চৌধুরী বাবু। সভায় অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন ‘সাপ্তাহিক লন্ডন বাংলা’-এর সম্পাদক কে এম আবু তাহের চৌধুরী, ‘সুরমা’র সম্পাদক আহমদ ময়েজ, ‘বাংলানিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম’-এর বিশেষ প্রতিনিধি সৈয়দ আনাস পাশা, সাংবাদিক মতিয়ার চৌধুরী, ‘লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাব’-এর সহ সভাপতি মাহবুব রহমান, এটিএন বাংলা ইউকে’র সিনিয়র রিপোর্টার মোস্তাক বাবুল।এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন ‘ব্রিকলেইন’ সম্পাদক জুয়েল রাজ, ‘লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাব’-এর ট্রেনিং সেক্রেটারি ইব্রাহিম খলিল, ইনফরমেশন সেক্রেটারি সালেহ আহমদ, ইভেন্ট সেক্রেটারি (বিজয়ী) তওহীদ আহমদ,কার্যকরী পরিষদের সদস্য পলি সুলতান, ‘বাংলা টিভি’র বার্তা সম্পাদক সরোয়ার হোসন, ‘ডেইলি স্টার’-এর যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি আনসার আহমদ উল্লাহ, ‘লন্ডন বিডি নিউজ ২৪’- এর সম্পাদক জাকির হোসেন কয়েস। উপস্থিত ছিলেন ‘এনটিভি’ ইউরোপের চিফ রিপোর্টার আকরাম হোসেন, সাংবাদিক আবদুর কাদির মুরাদ, এনটিভি ইউরোপের উপস্থাপক আতাউল্যাহ ফারুক, সাংবাদিক মাহবুব কানছুর, ডিবিসি যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি তারেক চৌধুরী, চ্যানেল এস রিপোর্টার রেজাউল করিম মৃদা, মোহাম্মদ কাউসার, এনটিভি ইউরোপের রিপোটার আহসানুল আম্বিয়া শুভন, সাংবাদিক রফিকুর ইসলাম এমদাদ, লন্ডন বিডি নিউজ ২৪-এর চেয়ারম্যান আবদুল বাছিত বাদশাহ। আরও উপস্থিত ছিলেন কবি সিহাবুজ্জামান কামাল, ‘বিশ্ব বাংলা ২৪.কম’-এর সম্পাদক শাহ রহমান বেলাল, ‘এল বিটিভি ২৪’- এর রিপোর্টার জুবায়ের আহমদ, সাংবাদিক আলাউদ্দিন রাসেল, ‘আমাদের প্রতিদিন’ সম্পাদক আনোয়ার শাহজান, মানবাধিকার কর্মী কানিজ ফাতেমা, ফয়সাল জামিল, ডলার বিশ্বাস, লুৎফুর রহমান লিকন, লুৎফুর রহমান, আবদুল রহিম, সাংবাদিক আফসার উদ্দিন, বদরুজ্জামান বাবু, এহসানুল হক তানিম। তারা অবিলম্বে দোষীদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি ও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবি জানান।

মালয়েশিয়া : দৈনিক সমকাল পত্রিকার সাংবাদিক আব্দুল হাকিম শিমুল হত্যার বিচারের দাবিতে মালয়েশিয়ায় প্রতিবাদ সভা করেছে বাংলাদেশ কমিউনিটি প্রেসক্লাব। সম্প্রতি কুলালামপুরের বুকিত বিনতাংয়ের রসনা বিলাস রেস্টুরেন্টে এ প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ কমিউনিটি প্রেসক্লাবের সভাপতি এসএম রহমান পারভেজের সভাপতিত্বে ও মোস্তফা ইমরান রাজুর উপস্থাপনায় এ প্রতিবাদ সভা হয়। সভায় সাংবাদিক আব্দুল হাকিম শিমুলের হত্যাকারী গ্রেফতারকৃত মেয়র মিরুসহ এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে দ্রুত ফাঁসি কার্যকর ও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবি জানান বক্তারা। তারা বলেন, ‘সাংবাদিকরা সমাজের দর্পণ। সাংবাদিকদের লেখনির মাধ্যমে সমাজের মানুষ তাদের প্রাপ্য অধিকার ফিরে পায়। সমাজের অহিংস-অপরাধ উঠে আসার মাধ্যমে মানুষ সচেতন হয়।’ অতীতে আরও সাংবাদিক হত্যার বিচার না হওয়ায় এর তীব্র নিন্দা জানিয়ে বক্তারা আরও বলেন, যতদিন পর্যন্ত সাংবাদিকদের নির্যাতন, মিথ্যা মামলা ও হত্যার বিচার না হবে ততদিন আমাদের প্রতিবাদ চলবে। প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য দেন প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি আহামাদুল কবির, সহ-সভাপতি মো. আমিনুল ইসলাম রতন, মো. রফিকুল ইসলাম রফিক, সাধারণ সম্পাদক বশির আহমেদ ফারুক, যুগ্ন সম্পাদক কায়সার হামিদ হান্নান, কোষাধ্যক্ষ রফিক আহমেদ খান, শামছুজ্জামান নাঈম, মোস্তাক আহমেদ রয়েল, মোহাম্মদ আলাউদ্দিন সিদ্দিকী, মোহাম্মদ আবদুল কাদের, কাজী আশরাফুল ইসলাম, মো. আল আমীন ও শাহরিয়ার তারেক। সভা শেষে নিহত সাংবাদিক আব্দুল হাকিম শিমুলের আত্মার মাগফেরাত কামনা ও শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে মোনাজাত করা হয়।

দেশে সাংবাদিকদের বিভিন্ন সংগঠন বিবৃতি : সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে সরকারদলীয় পৌর মেয়রের গুলিতে দৈনিক সমকালের সাংবাদিক আব্দুল হাকিম শিমুল নিহত হওয়ার ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন সংগঠন বিবৃতি দিয়েছে। বিবৃতিতে তারা অবিলম্বে শিমুলসহ অন্যসব সাংবাদিক খুনিদের দ্রুত বিচারের আওতায় এনে শাস্তি বিধানের দাবি জানিয়েছেন। সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে শাসকদলীয় পৌর মেয়রের গুলিতে দৈনিক সমকালের সাংবাদিক আবদুল হাকিম নিহত হওয়ার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন-বিএফইউজের সভাপতি শওকত মাহমুদ ও মহাসচিব এম আবদুল্লাহ ।
সম্প্রতি এক বিবৃতিতে সাংবাদিক নেতৃদ্বয় ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে সাংবাদিক আবদুল হাকিমকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। হাকিমের মাথার খুলি থেকে চিকিৎসকেরা গুলি বের করেছেন। এতে প্রতীয়মাণ হয়, টার্গেট করে সাংবাদিক আবদুল হাকিমের মাথা লক্ষ্য করে গুলি করেছেন খুনি পৌর মেয়র হালিমুল হক। নিহত সাংবাদিকের স্ত্রী নূরুন নাহার ইতোমধ্যেই মেয়র হালিমুল হক ও তার ভাইসহ ১৮ জন নামীয় ও ২৫/৩০ জন অজ্ঞাত আসামি করে থানায় মামলা করেছেন। পুলিশ মেয়র মিরু, তার ভাইসহ ৮ জনকে রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ করলেও এখনও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার হয়নি-যা রীতিমতো উদ্বোগজনক। বিবৃতিতে সাংবাদিক নেতৃদ্বয় বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে সাগর-রুনিসহ এ পর্যন্ত ২৮ জন সাংবাদিক খুন হয়েছেন। একটি খুনেরও বিচার হয়নি। খুনিদের গ্রেফতার করা হয়নি। ফলে সাংবাদিক হত্যা-নির্যাতন বেড়েই চলেছে। অবিলম্বে সাংবাদিক আবদুল হাকিমের চিহ্নিত খুনি হালিমুল হকসহ তার সহযোগীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির মুখোমুখি করার দাবি জানিয়ে নেতৃদ্বয় বলেন, সব সাংবাদিক হত্যার বিচার করতে হবে। অন্যসব হত্যার তদন্ত ও বিচার হলেও সাংবাদিক হত্যার বিচার কেন হয় না তার জবাব সরকারকে দিতে হবে।

বিএফইউজে ও ইউজে : সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের সমকাল প্রতিনিধি আব্দুল হাকিম শিমুল নিহত হওয়ার ঘটনায় গভীর ক্ষোভ, উদ্বেগ ও নিন্দা প্রকাশ করেছে বিএফইউজে-বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে)। একই সাথে সাংবাদিকদের ওপর পুলিশের হামলা-মামলা ও নির্যাতনের নিন্দা জানানো হয়েছে।
সম্প্রতি এক বিবৃতিতে বিএফইউজে সভাপতির একাংশের মনজুরুল আহসান বুলবুল ও মহাসচিব ওমর ফারুক এবং ডিইউজে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আতিকুর রহমান চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী বলেন, পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে একজন সাংবাদিক এভাবে হত্যার শিকার হওয়া সভ্য সমাজে কাম্য হতে পারে না। স্থানীয় নেতৃত্বের গ্রুপিং কোন্দলের কারণে এ ধরনের জীবনহানি জনগণকে রাজনীতিবিমুখ করে তুলবে।
বিবৃতিতে নেতারা বলেন, বর্তমান গণতান্ত্রিক, জনবান্ধব ও সাংবাদিকবান্ধব সরকারের আমলে সাংবাদিকরা হত্যাকাণ্ডের শিকার হচ্ছেন। তুচ্ছাতিতুচ্ছ কারণে সাংবাদিকদের ওপর অমানবিক নির্যাতন চালাচ্ছে পুলিশ। পুলিশের নির্যাতনের শিকার হয়েছেন সাংবাদিক ঈশান-বিন-দিদার, ক্যামেরা পারসন আব্দুল আলীম, ফটোসাংবাদিক জীবন আহমেদ। সিদ্দিকুর রহমান ও মামুনুর রশীদের বিরুদ্ধে অনাকাক্সিক্ষত মামলা করা হয়েছে। ফলে সরকারের সাথে সাংবাদিকদের দূরত্ব সৃষ্টি হচ্ছে, যা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী সাংবাদিকসমাজকে বেদনাহত করছে। এ ধরনের পরিস্থিতি সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীদের উৎসাহিত করতে উদ্দেশ্যমূলকভাবে তৈরি করা হচ্ছে কি না তাও ভেবে দেখা দরকার।
বিবৃতিতে নেতারা অবিলম্বে আব্দুল হাকিম শিমুলের হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করে শিমুলের পরিবারকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দেয়ার জন্য দৈনিক সমকাল কর্তৃপক্ষের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে বলেন, পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে শিমুলের প্রাণহানি ঘটেছে বলে তার পরিবারের সামগ্রিক ভার বহনের দায়িত্ব সমকালের ওপর বর্তায়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি : গুলিবিদ্ধ সাংবাদিক আবদুল হাকিম শিমুলের মৃত্যুর ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি। পাশাপাশি এ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুততম সময়ের মধ্যে গ্রেফতার করে সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত ও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবি জানিয়েছে সাংবাদিক সমিতি। সম্প্রতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সভাপতি ফরহাদ উদ্দীন এবং সাধারণ সম্পাদক ফররুখ মাহমুদ এক বিবৃতিতে এ দাবি জানান। নেতৃবৃন্দ বলেন, সম্প্রতি সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনা বেড়েছে। কখনো আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর এক শ্রেণীর বিপথগামী সদস্যের মাধ্যমে, কখনো ক্ষমতাসীন সংগঠনের নেতাকর্মীদের দ্বারা একের পর এক সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে। অথচ এসব ঘটনায় জড়িতরা বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই পার পেয়ে যাচ্ছে। বিচারহীনতার এ সংস্কৃতি সাংবাদিক নির্যাতনকে উৎসাহিত করছে, যা কখনোই কাম্য নয়। গণতান্ত্রিক এ দেশে সুশাসন নিশ্চিত করতে সাংবাদিক নির্যাতন ও হত্যার ঘটনায় বিচারহীনতার সংস্কৃতি ভাঙতেই হবে। তা না হলে রাষ্ট্রব্যবস্থা মুখ থুবড়ে পড়বে।

বামসাএ’র প্রতিবাদ : বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক অ্যাসোসিয়েশন (বামসাএ) সাংবাদিক শিমুল হত্যার তীব্র নিন্দা ও অবিলম্বে হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবি জানিয়েছে। বামসাএর চেয়ারম্যান মুহাম্মদ সাখাওয়াৎ হোসেন ইবনে মঈন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আবু বক্কর ছিদ্দিক বাবুল খান, ভাইস চেয়ারম্যান মো: শহিদুল ইসলাম, খন্দকার মাসুদ-উজ-জামান, মহাসচিব ভিপি সরকার মিজানুর রহমান, যুগ্ম সচিব লুৎফর রহমান ও আবু বক্কর সিদ্দিক, দফতর সচিব এস এম বদরুল ইসলাম, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সচিব ইসমাইল হোসেন কনক, প্রশিক্ষণ সচিব মোহাম্মদ সৈকত ও মহিলাবিষয়ক সচিব সারাবান তহুরা যৌথ বিবৃতিতে প্রতিবাদ জানান।

শাহজাদপুর : গত ২ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার বিকেলে শাহজাদপুর পৌরমেয়র মিরু ও তার স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী বাহিনীর হাতে গুলিবিদ্ধ দৈনিক সমকালের শাহজাদপুর প্রতিনিধি আব্দুল হাকিম শিমুল (৪৭) কে উন্নত চিকিৎসার জন্য বগুড়া জিয়া মেডিকেল থেকে ঢাকায় নেয়ার পথে ৩ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার দুপুরে তার মৃত্যু হয় । এদিকে নিহতের নানী রোকেয়া (৯০) শোক সইতে না পেরে এদিন সন্ধ্যায় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। সাংবাদিক শিমুলের মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে তাৎক্ষণিক কালো ব্যাচ ধারণ করে স্থানীয় সাংবাদিকেরা বিক্ষোভে ফেঁটে পড়ে। প্রেসক্লাব চত্বর থেকে সাংবাদিকেরা একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে। খুনি পৌর মেয়র হালিমুল হক মিরু ও তার স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী বাহিনীকে গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে মুহুর্মুহু শ্লোগানে এলাকা প্রকম্পিত হয়ে ওঠে। বিক্ষোভ মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে থানা ফটকে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে এ ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে সংক্ষিপ্ত প্রতিবাদ সভায় সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে পৌর মেয়র হালিমুল হক মিরুসহ তার স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী বাহিনীর সদস্যদের গ্রেফতার, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। এ প্রতিবাদ সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শাহজাদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি বিমল কুন্ডু, সাধারণ সম্পাদক ও সাপ্তাহিক জনতার মশাল পত্রিকার সম্পাদক শফিকুজ্জামান শফি, নির্বাহী সম্পাদক কবীর আজমল বিপুল, ব্যবস্থাপনা সম্পাদক শামছুর রহমান শিশির, সহকারী সম্পাদক হাসানুজ্জামান তুহিন, চীফ রিপোর্টার ও নয়াদিগন্ত সংবাদদাতা আবুল কাশেম, সাংবাদিকতা ও সামাজিক উন্নয়ন ফোরামের সিনিয়র সহ সভাপতি আল আমিন হোসেন, সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফারুক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মামুন রানা, সাংবাদিক মামুন বিশ্বাস, সাংবাদিক , সাংবাদিক ফরিদ আহমেদ চঞ্চল, নিজাম উদ্দীন, সংগ্রাম প্রতিনিধি ও সাপ্তাহিক উত্তর দিগন্ত পত্রিকার সম্পাদক এমএ যাফর লিটন, সাংবাদিক আমিনুল ইসলামসহ শাহজাদপুরে কর্মরত বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকার ও টেলিভিশন চ্যানেলের প্রতিনিধিবৃন্দ। স্থানীয় সাংবাদিকবৃন্দের বিভিন্ন প্রতিবাদ কর্মসূচী অব্যাহত রয়েছে এবং তারা অবিলম্বে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবি জানিয়েছে।

রাজশাহী: শিমুল হত্যার প্রতিবাদে এবং দোষীদের বিচার ও সাংবাদিকদের নিরাপদ কর্মস্থলের দাবিতে রাজশাহীর বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন সংগঠনের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসব মানববন্ধনে সাংবাদিক ছাড়াও রাজনীতিবিদ, সুশীল সমাজ প্রতিনিধি, শিক্ষক, সমাজ উন্নয়নকর্মী, শিক্ষার্থী, ব্যবসায়ীসহ সব শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেন। রাজশাহী প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের মানববন্ধনএসব মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সারাদেশে সাংবাদিকদের জন্য কর্মস্থল অনিরাপদ হয়ে উঠেছে। এ অবস্থা অব্যাহত থাকলে তা দেশের জন্য ভালো কিছু হবে না। এসময় বক্তারা শিমুল হত্যায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবি জানান।

বরিশাল: সাংবাদিক শিমুল হত্যার প্রতিবাদে ও হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বরিশালেও মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। বরিশালে সমকাল সুহৃদ সমাবেশ ও সংবাদকর্মীদের বিভিন্ন সংগঠনের আয়োজনে সম্প্রতি নগরীর সদর রোডে এ কর্মসূচি পালিত হয়। বরিশালে সাংবাদিকদের মানববন্ধনমানববন্ধনে সংবাদকর্মীরা বলেন, সরকার সংবাদকর্মীদের নিরাপত্তা দিতে না পাড়লে দেশের সমাজব্যবস্থা ভেঙে পড়বে। এসময় শিমুলের হত্যাকারীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিসহ সংবাদকর্মীদের রাষ্ট্রীয়ভাবে নিরাপত্তা ও ঝুঁকিভাতা নিশ্চিত করার আহবান জানান এবং ঘটনার ১৬ দিন অতিবাহিত হলেও হত্যাকান্ডের সময় ব্যবহৃত একাধিক অবৈধ অস্ত্র কেনো উদ্ধার হয়নি তা খতিয়ে দেখার জন্যও সরকারের প্রতি আহবান জানানো হয়।

টাঙ্গাইল: সাংবাদিক আব্দুল হাকিম শিমুল হত্যার প্রতিবাদে ও দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে টাঙ্গাইলের সাংবাদিকরা। টাঙ্গাইল প্রেসক্লাব এ মানববন্ধনের আয়োজন করে। সম্প্রতি টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সামনে এই কর্মসূচি পালিত হয়। এর সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে কর্মসূচিতে অংশ নেয় মানবাধিকার সংগঠন ‘অধিকার’ টাঙ্গাইল ইউনিট। এ সময় সাংবাদিক নেতারা বলেন, দেশে প্রতিনিয়ত সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনা বেড়ে চলছে। এতে করে সাংবাদিকদের কর্মক্ষেত্র ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। আগেও অনেক সাংবাদিক হত্যা ও নির্যাতনের ঘটনার সুষ্ঠু বিচার না হওয়ায় এ ধরণের সহিংস ঘটনার পুনরাবৃত্তি হচ্ছে। তারা দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানান। অন্যথায় কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে বলেও ঘোষণা দেন তারা। সেইসাথে অবৈধ অস্ত্রগুলি কোথায় গেলো তার জবাব প্রশাসনের নিকট জানতে চান।

বাগেরহাট: সংবাদিক আব্দুল হামিদ শিমুল হত্যার প্রতিবাদে সাংবাদিকেরা মানবন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন। সম্প্রতি ওই মানববন্ধনে বাগেরহাট প্রেসক্লাবে কর্মরত সাংবাদিকরাসহ স্থানীয় সুশীল সমাজের নেতারাও অংশ নেন। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সাংবাদিক শিমুল হত্যার ঘটনায় জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। সাংবাদিকদের নিরাপত্তার বিষয়টি সরকারকে গুরুত্ব দিতে হবে। যেন আর কোনও সাংবাদিক দায়িত্ব পালনকালে নির্যাতনের শিকার না হন। সেইসাথে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারেও তৎপর হতে হবে।

দিনাজপুর: সাংবাদিক আব্দুল হাকিম শিমুল হত্যার প্রতিবাদে দিনাজপুরে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। সম্প্রতি দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সামনে দৈনিক সমকাল সুহৃদ সমাবেশ ও দিনাজপুর প্রেসক্লাবের আয়োজনে এই মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে বলা হয়, সাংবাদিকরা তাদের পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে প্রতিনিয়ত হামলা ও খুনের শিকার হচ্ছেন। অবিলম্বে এসব হত্যা ও নির্যাতনের ঘটনায় জড়িতদের বিচারের আওতায় নিয়ে আসতে হবে ও অবৈধ অস্ত্রের ঝনঝনানি ঠেকাতে তা উদ্ধার করতে হবে।

ফেনী: ফেনীর সাংবাদিকরা দৈনিক সমকালের উপজেলা প্রতিনিধি আব্দুল হামিদ শিমুল হত্যার প্রতিবাদে মানবন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন। সম্প্রতি ফেনীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন ও সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন সমকালের স্টাফ রিপোর্টার শাহ জালাল রতন। প্রতিবাদ সমাবেশে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে হত্যাকারীকে গ্রেফতারসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান বক্তারা।

গাইবান্ধা: সম্প্রতি সমকাল সুহৃদ সমাবেশের আয়োজনে গাইবান্ধা প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সাংবাদিক ও রাজনৈতিক নেতারাসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেন। সাংবাদিক শিমুল হত্যার বিচারের দাবিতে গাইবান্ধায় সাংবাদিকদের মানববন্ধনবক্তারা এসময় সারাদেশে সাংবাদিক নির্যাতন ও হত্যার তীব্র নিন্দা জানান। একইসঙ্গে সাংবাদিক শিমুল হত্যার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

মাগুরা: সাংবাদিক শিমুল হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মাগুরায় মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শহরের চৌরঙ্গী মোড় এলাকায় মাগুরা প্রেসক্লাবের সামনে সম্প্রতি সমকাল সুহৃদ সমাবেশ এ কর্মসূচির আয়োজন করে। মাগুরায় সাংবাদিক শিমুল হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধনএসময় বক্তরা অবিলম্বে সাংবাদিক শিমুলের হত্যাকারীদের গ্রেফতার, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। মানববন্ধন ও সমাবেশে জেলায় কর্মরত সাংবাদিকদের পাশাপাশি বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেন।

নাটোর: নাটোরের সাংবাদিকরা সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে দৈনিক সমকালের প্রতিনিধি শিমুল হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছেন। সম্প্রতি নাটোর প্রেসক্লাবের সামনে সমকাল সুহৃদ সমাবেশ এ মানববন্ধন আয়োজন করে। সাংবাদিক শিমুল হত্যার দাবিতে নাটোরে মানববন্ধনমানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সংবাদ সংগ্রহের সময় শিমুলের মৃত্যু হয়েছে- এ তথ্য কেউ অস্বীকার করতে পারবেন না। বক্তারা শিমুলের হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার করে বিচারের দাবি জানান।