সাংবাদিক পরিবারকে গায়েব এর হুমকি, থানায় জিডি

শাহজাদপুরের জাতীয় দৈনিক আলোকিত সকাল পত্রিকার বিশেষ প্রতিনিধি ও শাহজাদপুর সাংবাদ ডটকম এর সংবাদদাতা মিঠুন বসাককে প্রাণনাশের হুমকি ও পরিবারকে গায়েব করে দেয়ার ঘটনা থানায় জিডি করা হয়েছে। শনিবার তিনি শাহজাদপুর থানায় এ জিডি করেন।

হুমকিদাতা শাহজাদপুরের পৌর এলাকার চালা-শাহজাদপুর মহল্লার মৃত সোমা বসাকের ছেলে তপন বসাক।

সাধারণ ডায়রীর সূত্রে জানা যায়, হুমকিদাতা তপন বসাক ক্রয়কৃত সম্পত্তিতে পুরানো ওয়াল ভেঙ্গে নতুন করে ওয়াল তৈরী করার সময় সাংবাদিক মিঠুন বসাক এর জায়গার ভিতরে ঠুকে নতুন ওয়াল নির্মান করতে নেয়। তখন সাংবাদিক এর বাবা তাকে বাধা দিলে সে উচ্চস্বরে সাংবাদিক এর বাবাকে গালিগালাজ করে। তখন সাংবাদিক মিঠুনের বাবা মিঠুনকে ফোন বাড়ী আসতে বলে। সাংবাদিক মিঠুন বাড়ী এসে দেখার পর তাপনকে বললে, সে সাংবাদিককে উচ্চস্বরে গালিগালাজসহ বেশ কয়েকবার তাকে মারার জন্য এগিয়ে আসে। তখন আশেপাশের মানুষ ঘটনা স্থলে আসলে সে স্থান ত্যাগ করে ও বলে যায় দেখে নেবো তোদের ও সাংবাদিক পরিবারকে বাড়ী ছেড়ে দেওয়ারও হুমকিপ্রদর্শন সহ গায়েব করে দিবে বলেও তপন হুমকি প্রর্দশন করে।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর থানার পরিদর্শক ( তদন্ত ) ফজলে আশিক জানান, সাংবাদিক পরিবারকে হুমকি প্রদানের ব্যাপারে সাংবাদিক মিঠুন বসাক বাদী হয়ে শাহজাদপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর প্রেস ক্লাবের সাধারন সম্পাদক মোঃ শফিকুজ্জামান শফি বলেন, একজন সাংবাদিক পরিবারকে বাড়ী ছাড়া ও প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার ঘটনায় শাহজাদপুর প্রেস ক্লাবের পক্ষ থেকে এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

শাহজাদপুর সাংবাদ ডটকম এর প্রকাশক শরীফ সরকার বলেন, আমরা সবাই সামজিক ভাবে মিলে মিশে বসবাস করি। আজ সাংবাদিক পরিবারকে গায়েব করার হুকমি দিয়েছে কাল অন্য কাওকে দিবে। এই তপন এর ক্ষমতার উৎস কোথায়, তার পিছনে কোন সন্ত্রাসী বাহীনি আছে যে একটা পরিবারকে গায়েব করার মত ক্ষমতা রাখে। আমি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে অনুরোধ করবো সুষ্ঠ তদন্ত করে এর ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য।

এ বিষয়ে জাতীয় দৈনিক আলোকিত সকাল পত্রিকার বার্তা সম্পাদক শরিফুল ইসলাম সুজন বলেন, সারাদেশ জুরে আজ সাংবাদিক হামলা, হুমকির ও নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। তপন আজ এক সাংবাদিক পরিবারকে গয়েব করার হুমকি দিয়েছে। একটা পরিবারকে গায়েব করে দেওয়ার ক্ষমতা কোথায় পায় বা এর পিছনের গডফাদার কে? তা ক্ষতিয়ে দেখার জন্য পুলিশ প্রশাসনকে অনুরোধ করছি।

হুমকি প্রদানের বিষয়ে জানতে চেয়ে মুঠোফোনে বারবার চেষ্টা করেও ফোন বন্ধ থাকায় অভিযুক্ত তপন বসাকের কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।