যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে নির্যাতন


সলঙ্গায় ৯৯৯ নম্বরে কল করায় রক্ষা পেলেন স্ত্রী

সিরাজগঞ্জের সলঙ্গা থানার এরান্দহ গ্রামে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে নির্যাতনের সময় ৯৯৯-এ কল করায় গৃহবধূকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। সে ওই গ্রামের স্কুল শিক্ষক ইমরান আল কায়েসের স্ত্রী। এ ঘটনায় স্বামীসহ জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

এ বিষয়ে সলংগা থানার ওসি আব্দুল কাদের জিলানী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি আলোকিত বাংলাদেশকে জানান, প্রায় ১৫ বছর আগে ওই স্কুল শিক্ষক পার্শ্ববর্তী গ্রামপাঙ্গাসী গ্রামের মৃত হায়দার আলীর মেয়ে শাপলা খাতুনকে (৩১) বিয়ে হয়। বর্তমানে তাদের ঘরে দুইকন্যা সন্তানও রয়েছে। স্থানীয় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চাকরি করে এবং অন্য এক স্কুল শিক্ষিকার সাথে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ে। আর এ পরকীয়া প্রেমে বাধা দিলে স্ত্রীকে বিভিন্ন অজুহাতে নির্যাতনসহ যৌতুকের ৫ লাখ টাকা দাবি করে। দাবিকৃত এ যৌতুকের না দিলে তাকে তালাক দেয়ার হুমকি দেয়া হয়। এরই জের ধরে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে স্বামীসহ পরিবারের লোকজন তাকে মারপিট করে হত্যার চেষ্টা করে।

এ সময় ৯৯৯ এ কল করায় পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসা ব্যবস্থা করা হয়। এ ব্যাপারে গতকাল শুক্রবার রাতে ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে স্বামীসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দায়ের করেন।