এলাকাবাসীর দুর্ভোগ


শাহজাদপুর ১ যুগেও সংস্কার হয়নি মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সামনের সড়ক

প্রথম শ্রেণির শাহজাদপুর পৌরসভার প্রাণকেন্দ্র মণিরামপুর-দ্বারিয়াপুর বাজার সংলগ্ন স্বল্প দৈর্ঘের আঞ্চলিক সড়ক গত ১ যুগ ধরে সংস্কার না করায় হাজার হাজার এলাকাবাসীকে নিত্যদিন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। শাহজাদপুর পৌর মার্কেট ও মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স সংলগ্ন মণিরামপুর থেকে দ্বারিয়াপুর কিরণবালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত স্বল্প দৈর্ঘ্যরে এ সড়কটি সংস্কার না করায় এ সড়কে চলাচলকারী হাজার হাজার এলাকাবাসী প্রতিদিন চলাচলে করতে নানা বিড়ম্বনায় পড়ছেন। সংস্করের অভাবে সড়কে পঁচা কাঁদা-পানি জমে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে ও পরিবেশকে দূষিত করলেও দেখার কেউ নেই।
এলাকাবাসী জানায়, উত্তরাঞ্চলের অন্যতম ব্যবসা সফল উপজেলা শাহজাদপুরের দ্বারিয়াপুর বাজারে উত্তরাঞ্চলের সর্ববৃহৎ কাপড়ের হাটসহ বহুমূখী কারণে প্রতিদিন দ্বারিয়াপুর বাজার ও মণিরামপুর বাজার এলাকায় ব্যাপক লোকসমাগম ঘটে। প্রতিদিন লোকসমাগমের পাশাপাশি অসংখ্য রিক্সাভ্যান চলাচলের ফলে বাজার এলাকার প্রধান সড়ক দিয়ে এলাকাবাসীর হাটা চলাফের করাই অত্যন্ত কষ্টকর হয়ে পড়েছে। এ কষ্ট লাঘবে ও জনদুর্ভোগ এড়াতে অনেকেই পৌর মার্কেট ও মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের সামনের এ আঞ্চলিক সড়কটি ব্যবহার করে আসছেন। কিন্তু, গত প্রায় ১ যুগেও আঞ্চলিক এ সড়কটির সংস্কার না করায় সেই কষ্ট ও দুর্ভোগ কমেনি; বরং দিন দিন তা বেড়েই চলেছে। এছাড়া এ সড়ক দিয়ে চলাচলে শাহজাদপুর সরকারি বিশ^বিদ্যালয় কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রী ও আমজনতাকে নানা দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
এ বিষয়ে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ শাহজাদপুর উপজেলা কমান্ডের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার বিনয় কুমার পাল বলেন, গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সমনের জনগুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটি সংস্কার করা হলে পৌর এলাকায় যানজট কমবে এবং হাজার হাজার এলাকাবাসীর চলাচলে বিরাজিত দুর্ভোগ লাঘব হবে।’
অন্যদিকে, শাহজাদপুর পৌরসভার সাবেক দায়িত্বপ্রাপ্ত মেয়র ও সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলর নাছির উদ্দিন জানান, ‘ইউজিআইআইপি প্রকল্পের থ্রি ফেজে ইতিমধ্যেই আঞ্চলিক ওই সড়ক সংস্কার কাজের টেন্ডার হয়েছে। অচিরেই কাজ শুরু হবে।’