শাহজাদপুরে সাংবাদিক জাহানের ওপর হামলার প্রতিবাদে সাংবাদিকদের মানববন্ধন

শামছুর রহমান শিশির, শাহজাদপুর থেকে : দৈনিক যুগান্তর ও বিজয় টিভির শাহজাদপুর প্রতিনিধি মুমীদুজ্জামান জাহানকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা ও মারধরের প্রতিবাদে এবং দোষীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে আজ সোমবার শাহজাদপুরে কর্মরত সকল সাংবাদিক এক মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে। দুপুর ১ টা থেকে ২ টা পর্যন্ত পৌর এলাকার প্রাণকেন্দ্র মনিরামপুর বাজারের প্রধান সড়কে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। শাহজাদপুরে কর্মরত সকল সাংবাদিকের ব্যানারে আয়োজিত ঘন্টাব্যাপি এ মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, শাহজাদপুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি বিমল কুন্ডু, সাধারণ সম্পাদক শফিকুজ্জামান শফি, সাংবাদিক হাসানুজ্জামান তুহিন, সাংবাদিক ফোরামের সিনিয়র সহ-সভাপতি আল-আমিন হোসেন, সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক, সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি এম,এ জাফর লিটন প্রমুখ। বক্তারা বাঘাবাড়ি নৌ-বন্দরের বিপিসির তেল ডিপোর ফার্নিস ওয়েলের ঘাট থেকে প্রায় ৭ লাখ লিটার ডিজেল কালোবাজারে বিক্রির সাথে জড়িতদের সনাক্ত করে আইনের আওতায় আনা ও সাংবাদিক জাহানের উপর হামলাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। এ সময় বক্তারা প্রশাসনকে ৭২ ঘন্টার আল্টিমেটাম দেন। অন্যথায় আগামীতে বৃহত্তর আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলেও জানান।

গত ১৫ জুলাই শনিবার ‘বাঘাবাড়ি নৌবন্দর, ছয় লাখ লিটার অবৈধ ডিজেল কালোবাজারে বিক্রি’ শিরোনামে দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার শেষ পৃষ্ঠায় প্রকাশিত সংবাদের ফলোআপ করার জন্য গত রোববার দুপুর ১২ টার দিকে যুগান্তর ও বিজয় টিভির সাংবাদিক মোঃ মুমীদুজ্জামান জাহান সহ ৩ সাংবাদিক বিপিসির বাঘাবাড়ি ওয়েল ডিপোতে যায়। এ সময় সাংবাদিক জাহান ডিপোতে নতুন করে আরও কিছু তেল চুরি হচ্ছে সেই ছবি তার ক্যামেরায় ধারণ করলে তেল চুরির সাথে জড়িতরা ডিপোর নিরাপত্তা প্রহরীদের উপস্থিতিতেই তাকে বেধড়ক মারধর করে গুরুতর জখম করে। এক পর্যায়ে তেলচুরি সিন্ডিকেটের সদস্যরা সাংবাদিক জাহানকে হত্যার উদ্দেশ্যে বেধম মারপিট করতে থাকে। এক পর্যায়ে জাহান প্রাণ বাঁচাতে যমুনা ওয়েল ডিপোর অফিস সহকারীর কক্ষে আশ্রয় নেয়। এ সময় হামলাকারীরা অফিস কক্ষের ভিতরে ঢুকে সাংবাদিক জাহানের পড়নের প্যান্ট-শার্ট ছিঁড়ে তাকে অর্ধ বিবস্ত্র করে ফেলে এবং মোবাইল ফোন ও ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। ক্যামেরা মোবাইল ছিনতাই করতে না পারলেও তার প্যান্টের পকেটে থাকা কিছু টাকা আক্রমণকারীরা ছিনিয়ে নেয়। এক পর্যায়ে আশপাশের লোকজনসহ জাহানের সাথে থাকা অপর দুই সাংবাদিক তাকে উদ্ধার করে যমুনা ওয়েল ডিপোর ম্যানেজার আব্দুল মজিদের কক্ষে নিয়ে গিয়ে রক্ষা করে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সাংবাদিক জাহানকে উদ্ধার করে। উদ্ধারের পর প্রথমে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ ভর্তি করা হলে পরবর্তীতে তাকে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এ ব্যাপারে একটি মামলার দায়েরের প্রস্তুতি চলছে ।