বিলিভ ইউ অর নট ; এলাকায় চাঞ্চল্য


শাহজাদপুরে সম্পত্তির লোভে একই স্বামীকে ৩ বার বিয়ে!

অবিশ্বাস্য হলেও এটাই সত্য যে শাহজাদপুরে অর্থ ও সম্পত্তি আত্মসাতের লক্ষ্যে এক নারী কর্তৃক একই স্বামীকে ৩ বার বিয়ে ও ৩ বার বিচ্ছেদের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। এক্ষেত্রে প্রতি বারই বিয়ে ও বিচ্ছেদের সময় প্রচলিত আইন ও ইসলামী শরিয়াহ’কে লঙ্ঘন করার ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।
জানা গেছে, শাহজাদপুর পৌর এলাকার রূপপুর নতুনপাড়া মহল্লার মৃত শাহজাহান শেখের মেয়ে সোনা খাতুন তার ১ম স্বামী হারিয়ে বাবার বাড়ি রূপপুরে সন্তানাদী নিয়ে কষ্টে দিনাতিপাত করছিলো। এ কষ্ট লাঘবে কয়েক বছর আগে সোনা খাতুন হাবিবুল্লাহনগর ইউনিয়নের রতনকান্দি গ্রামের আলিমুদ্দিন মোল্লার ছেলে বিবাহিত যুবক আব্দুর রহমানের ১ম স্ত্রীর অনুমতি ছাড়াই ৫০ হাজার টাকা দেনমোহরে বিয়ে করেন। এর কিছুদিন পরই সোনা কর্তৃক দেনমোহরের টাকা নিয়ে তালাকনামা প্রদানের মাধ্যমে তাদের বিচ্ছেদ ঘটে। আরও পরে সোনা তার সাবেক স্বামী আব্দুর রহমানের সম্পত্তি আত্মসাতের উদ্দেশ্যে মোবাইল ফোনে ফুসলিয়ে গত ২০১৭ সালের ৪ ফেব্রæয়ারি ২ লাখ টাকা দেনমোহর ধার্য করে ২য় বার বিয়ে করে। এ বিয়ের পর আব্দুর রহমানের কাছ থেকে ৩ শতক জমি নিজ নামে লিখে নেয় সোনা। উদ্দেশ্যে হাসিলের হওয়ায় গত ২০১৭ সালের ১৬ এপ্রিল ফের তালাকনামা প্রদানের মাধ্যমে তাদের ২য় বিয়ের বিচ্ছেদ ঘটে। পরে চতুর সোনা জানতে পারে তার সাবেক স্বামী আব্দুর রহমানের আরও সম্পত্তি রয়েছে। সে সম্পত্তিও আত্মসাতের উদ্দেশ্যে নানা ফাঁদ পাততে শুরু করে। যথারীতি আব্দুর রহমান ৩বারের মতো সেই ফাঁদে ফের পা দেয়। এবার রূপপুর নতুন পাড়া মহল্লার আনিছ হুজুর তাদের তওবা পড়িয়ে ফের ৩য় বারের মতো তাদের বিয়ে দেন। চলতি বছরের ২৮ জানুয়ারি তালাকনামা প্রদানের মাধ্যমে তাদের ৩য় বিয়েরও বিচ্ছেদ ঘটে।
দেশে প্রচলিত আইনে তালাকপ্রাপ্ত একই স্বামী স্ত্রীর ২য় বিয়ে করতে চাইলে আদালতের মাধ্যমে তালাকনামা প্রত্যাহার বা ইসলামী শরিয়াহ মোতাবেক হিল্লা বিয়ের পর কিছু নিয়ম কানুন মেনে বিয়ের বিধান থাকলেও আব্দুর রহমান ও সোনার পরপর ৩ বার বিয়ে ও বিচ্ছেদে তার কোনটাই মানা হয়নি। কেবলমাত্র স্বামী আব্দুর রহমানের সম্পত্তি আত্মসাতের লক্ষ্যেই সোনা অনৈতিকভাবে ৩ বার বিয়ের পিড়িতে বসেছেন। এলাকাবাসী চতুর সোনার দৃষ্টাস্তমুলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে। এছাড়া, চতুর সোনার বিরুদ্ধে আব্দুর রহমানের ১ম স্ত্রী ও সন্তানদের হুমকি প্রদানেরও অভিযোগ উঠেছে।