শাহজাদপুরে ভ্রাম্যমান আদালতে ১ বছরে ৬শ’ আসামীর কারাদন্ড

শামছুর রহমান শিশিরঃ অবিশ্বাস্য মনে হলেও এটাই সত্য যে শাহজাদপুরে অপরাধ দমনে ভ্রাম্যমান আদালত কর্তৃক গত ১ বছরে প্রায় ৬শ’ আসামীর বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদান করা হয়েছে। দন্ডপ্রাপ্ত এসব আসামীর মধ্যে বড় বড় রাঘব বোয়াল,গডফাদার,মাদক সম্রাটসহ বিভিন্ন ধরনের অপরাধীরা রয়েছেন। শাহজাদপুরে সর্বপ্রকার অপরাধ দমনে শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীম আহমেদে সর্বাত্বক প্রয়াসে মাত্র ১ বছরে অসংখ্য নামী,দাগী আসামীকে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে বিভিন্ন মেয়াদে সশ্রম,বিনাশ্রম কারাদন্ড,অর্থদন্ড ও উভয়দন্ডে দন্ডিত করা হয়েছে। ফলে প্রায় সারা দেশেই রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার সুযোগে বিভিন্ন প্রকার অপরাধীরা একের পর এক নানা ধরনের অপরাধ কর্মকান্ড পরিচালনা করলেও শাহজাদপুরের সিংহভাগ ধুর্ধষ,দাগী আসামী,মাদক সম্রাট,মাদক সম্রাজ্ঞীসহ বড় বড় বহু অপরাধীরা জেলে থাকায় শাহজাদপুরের সার্বিক আইন শৃংখ্যলা পরিস্থিতি দেশের অন্যান্য স্থানের তুলনায় নিঃসন্দেহে অনেক ভালো রয়েছে। পাশাপাশি মানবতার কল্যাণে ইউএনও শামীম আহমেদের কর্মকান্ড ভূয়সী প্রসংশা কুড়িয়েছে। পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের স্থানীয় সর্ববৃহৎ গ্রুপ ‘সার্কেল শাহজাদপুর’-এর পক্ষ থেকে ইউএনও শামীম আহমেদকে বদলী করা হলে তা প্রত্যাহারে কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারী দেয়া হয়েছে।
তথ্যানুসন্ধানে জানা গেছে, শাহজাদপুরে শামীম আহমেদ উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসাবে যোগদানের পর থেকেই শাহজাদপুরে আইনশৃংখ্যলা পরিস্থিতি সন্তোষজনক পর্যায়ে রাখতে নিরলসভাবে কাজ করেছেন। তার ওই সুদীর্ঘ কর্মপ্রয়াসের ফলেই মাত্র ১ বছরে আন্ডারগ্রাউন্ডের গডফাদারসহ ধরা ছোয়ার বাইরে থাকা অসংখ্য প্রতাপ,প্রভাবশালী অপরাধীদের ভ্রাম্যমান আদালতের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। শাহজাদপুরে গাঁজার বাগান, জুয়ার আসর, যাত্রার প্যান্ডেল পুরিয়ে দেওয়া,বিপুল পরিমান মাদকদ্রব্য হেফাজতে থাকা আসামীদের গ্রেফতার ও মাত্র ১ বছরে বিপুল পরিমান অপরাধীদের ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে সাজা প্রদান করায় শাহজাদপুর উপজেলায় মাদকের ব্যবহার প্রায় শূন্যের কোঠায় নেমে এসেছে। অতীতে শাহজাদপুরের অলিগলিতে ইয়াবা,মদ,গাঁজা,ফেনসিডিলসহ বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য প্রকাশ্যে বিক্রি হতে দেখা গেলেও ভ্রাম্যমান আদালতের বিজ্ঞ ম্যাজিষ্ট্রেট শামীম আহমেদের সর্বাত্বক কর্মদক্ষতায় বর্তমানে মাদক বিক্রেতা ও মাদক সেবীদের কাছে তিনি এখন রীতিমতো এক মূর্তমান আতংক ! বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, শাহজাদপুরের অপরাধ জগতের গডফাদারদের চক্ষুশূলে পরিণত হয়েছেন ইউএনও শামীম আহমেদ। বড় বড় মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে অসংখ্য অভিযান পরিচালনা করায় শাহজাদপুরের আন্ডারগ্রাউন্ডের প্রতাপশালী অপরাধীরা ইউএন শামীম আহমেদের বদলি করাতে উঠেপড়ে লেগেছে। এ ব্যাপারে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ প্রফেসর নাছিম উদ্দিন মালিথা,নূরুল ইসলাম,আব্দুল আজিজসহ শাহজাদপুরের সুধী মহলের মতে,‘১ বছরে প্রায় ৬শ’ জন অপরাধীকে আইনের আওতায় নিয়ে এসে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ইউএনও ও ম্যাজিষ্ট্রেট শামীম আহমেদ কর্তৃক সাজা প্রদান করা নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবীদার। ভালো কাজ করতে গেলে বাধা আসবেই। তার এই ধরনের সাহসী কর্মকান্ডে স্বার্থান্বেষী মহলে আঘাত হানবে এটাই স্বাভাবিক। তবে একজন ভালো অফিসার হিসাবে ভালো কাজ করে তার পুরষ্কার হিসাবে যদি তাকে বদলী করা হয় তাহলে নিঃসন্দেহে তার প্রতি অবিচার করা হবে এবং সরকারী দক্ষ অফিসারগণ ভালো কাজে আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে। বিষয়টি প্রশাসনের উচ্চ পর্যায়ের খতিয়ে দেখা প্রয়োজন বলে তারা অভিমত ব্যাক্ত করেন।’

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.