শাহজাদপুরে প্রধান শিক্ষকের ওপর হামলার প্রতিবাদে মৌন মিছিল ও মানববন্ধন

শাহজাদপুর প্রতিনিধি : শাহজাদপুরে ডায়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রশিদুর হাসানকে ঘুষের টাকা না পেয়ে মারপিটের ঘটনায় শাহজাদপুরের শিক্ষক সমাজের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ ঘটনায় শিক্ষকরা মৌন মিছিল ও মানববন্ধন করেছে।
জানা গেছে গত বুধবার শাহজাদপুর উপজেলার ডায়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রশিদুল হাসান প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে কাজের জন্য গেলে এ সময় শিক্ষা অফিসের অফিস সহকারী আব্দুর রশিদ তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। এ ঘটনার প্রতিবাদে গতকাল বৃহস্পতিবার শাহজাদপুর উপজেলার সরকারি প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে দুপুরে স্থানীয় প্রেসক্লাব চত্বর থেকে আব্দুর রশিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে এক বিশাল মৌন মিছিল শহর প্রদক্ষিণ করে। পরে উপজেলা চত্বরে এক মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। ইব্রাহীম মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মঈনুল ইসলামের সভাপতিত্বে মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান হেনা, প্রধান শিক্ষক আয়শা খন্দকার স্নীগ্ধা, কামরুন্নাহার, কোরবান আলী, আব্দুস সালাম, উজ্জ্বল হোসেন, মমতাজ শিরিন, ফিরোজা বেগম, আহসান হাবীব প্রমূখ। প্রায় ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন চলাকালে বক্তারা বলেন, দূর্নীতিবাজ ঘুষখোর উপজেলা শিক্ষা অফিসের অফিস সহকারী আব্দুর রশিদ তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং ন্যায্য বিচার না পেলে শিক্ষকেরা কঠোর আন্দোলনে যাবার হুমকি দেন। তারা বলেন, আমরা জাতির বিবেক কিন্তু আমাদের যে মর্যাদাহানি করেছে তার সুবিচার চাই। ঐ ঘুষখোর কর্মকর্তা কোন ফাইল টাকা ছাড়া সই করেন না। এছাড়া ওই অফিসের কর্মকর্তারা এতই দূর্নীতি পরায়ন হয়েছে যা কল্পনা করা যায় না। অফিসটাকে ঘুষের স্বর্গরাজ্য বানিয়েছে। মানববন্ধন শেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি স্মারকলিপি পেশ করেন। এ দিকে এ ঘটনায় ওই প্রধান শিক্ষক বাদী হয়ে শাহজাদপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। একই দিন বিকেলে পুলিশ অফিস সহকারী আব্দুর রশিদকে গ্রেপ্তার করে সিরাজগঞ্জ জেল হাজতে পাঠিয়েছে।