শাহজাদপুরে দুপক্ষের দফায় দফায় সংঘর্ষ শতাধিক আহতঃ মহিলাসহ ১৪ জন গ্রেপ্তার

শাহজাদপুরে দুপক্ষের দফায় দফায় সংঘর্ষ শতাধিক আহতঃ মহিলাসহ ১৪ জন গ্রেপ্তার

গতকাল মঙ্গলবার (১৮মে) দুপুর থেকে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার কৈজুরী ইউনিয়নে গোপালপুর ও চরকৈজুরী দুই গ্রামের চুনু মেম্বর ও গফুর মেম্বর দুই গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ বাধে। উভয় পক্ষ দেশীয় অস্ত্র সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সংঘর্ষে ঝাপিয়ে পরে। খবর পেয়ে শাহজাদপুর থানাপুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতী নিয়ন্ত্রনে আনে। এতে প্রথম দিনে উভয় পক্ষের শতাধিক জন আহত হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে সেখানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশকে উপেক্ষা করে আজ বুধবার(১৯মে) দুপুরে পুনরায় উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জরিয়ে পরলে থানা পুলিশ লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এতে এদিন আরো ৫৫জন আহত হয়েছে। এসময় চুনু মেম্বর গ্রুপের ৪ জন মহিলাসহ ১৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ।

আহতদেরকে শাহজাদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে চুনু মেম্বর গ্রুপের মোঃ আব্দুল্লাহ(৩০)কে গুরুতর অবস্থায় খাজা ইউনুস আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা যায়, গত শনিবার চুনু মেম্বরের ভাতিজা মোঃ সুজন(১৮) এর সাথে গফুর মেম্বার গ্রুপের কাদের সেখের পুত্র মোঃ আসাদুল(১৫) এর সাথে মোবাইল ফোনে ফ্রী-ফায়ার গেইম খেলা নিয়ে দস্তা-দস্তী হয়। তারই জের ধরে গত মঙ্গলবার থেকে দফায় দফায় এ সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। এ ঘটনায় ঐ এলাকায় উভয় গ্রুপের মধ্যে উত্তজনা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে শাহজাদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহিদ মাহমুদ খান শাহজাদপুর সংবাদ ডটকমকে বলেন, গেম খেলাকে কেন্দ্র করে চুনু মেম্বার ও গফুর মেম্বারএ দুপক্ষের মধ্যে এ সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়েছে। উভয় পক্ষকে বার বার বারন করার সত্বেও তারা আমাদের কথার কর্নপাত করেনি। তারা উল্টো পুলিশের উপর হামলা করেছে। সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। আমরা এখন প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করছি।