নরপিশাচদের বিরুদ্ধে দ্রুত দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি


শাহজাদপুরে গণধর্ষণের পর ১ কিশোরিকে হত্যার অভিযোগ

বিশেষ প্রতিবেদক : গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর উপজেলার নরিনা ইউনিয়নের যুগনীদহ মধ্যপাড়া মহল্লায় পাষন্ড, লম্পট তিন নরপশু কর্তৃক ১৪ বছর বয়সী এক কিশোরি গণধর্ষণের শিকার এবং ধর্ষণের পর কিশোরিকে শ্বাসরোধ করে ও মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করার গুরুতর অভিযোগ উঠেছে! নিহত কিশোরির নাম পলি খাতুন। সে যুগনীদহ মহল্লার সাইফুল ইসলাম ওরফে সাধুর মেয়ে বলে জানা গেছে। এদিকে, মধ্যযুগীয় বর্বরতাকেও হার মানানো চরম অমানবিক ওই ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহের উদ্দেশ্যে ও পরিকল্পিতভাবে পাশবিক এ ঘটনা ধামাচাপা দিতে একটি স্বার্থান্বেষী মহলের অপচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে । খবর পেয়ে শাহজাদপুর থানা পুলিশ নিহত কিশোরির লাশ উদ্ধার করেছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
নিহতের আত্মীয়-স্বজন ও এলাকাবাসির অভিযোগ, মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার যুগনীদহ মহল্লার নির্জন একটি ফসলের ক্ষেতে একই মহল্লার সাইফুল ইসলাম ওরফে সাধুর কিশোরি মেয়ে পলি একাকী শাক তুলছিলো। এ সময় তার একাকীত্বের সুযোগে একই মহল্লার আব্দুর রাজ্জাকের লম্পট ছেলে আতিক (১৬), আকতার হোসেনের লম্পট ছেলে আক্কাছ (১৭) ও শহিদ অালীর লম্পট ছেলে মণিরুল (১৪) নামের এ তিন নরপিশাচ ওই কিশোরির মুখ চেপে ধরে পার্শ্ববর্তী ঘাসের জমিতে নিয়ে জোরপূর্বক পালাক্রমে গণধর্ষণ ও পরিস্থিতি বেগতিক দেখে কিশোরিকে শ্বাসরোধ এবং জোরপূর্বক মুখে বিষ ঢেলে ফেলে রেখে যায়। অনেক খোঁজাখুঁজির পর ঘটনাস্থলে মুমূর্ষু অবস্থায় কিশোরিকে পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসি তাকে উদ্ধার করে প্রথমে পোতাজিয়াস্থ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে কিশোরির শারীরীক অবস্থার চরমাবনতি ঘটলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য জরুরী ভিত্তিতে তাকে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দিলে সিরাজগঞ্জ নেয়ার পথে কিশোরি পলির করুণ মৃত্যু ঘটে। মঙ্গলবার রাতভর ও বুধবার ভোররাতে শাহজাদপুর উপজেলার নরিনা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড মেম্বর আব্দুল জলিল (৫০), ফিরোজুল ইসলাম ফিরোজ (৪৮) ও নূর মোহাম্মদ মুন্সি (৪৬)সহ গ্রাম্য মাতবরদের সমন্বয়ে গঠিত শালিষ বৈঠকে গৃহিত সিদ্ধান্ত মোতাবেক ঘটনাটি ধামাচাপা ও আপোষ রফার শর্তে তিন লম্পটের অভিভাবককে ৭ লাখ টাকা জরিমানা করা হয় ।
এদিন বুধবার সকালে খবর পেয়ে শাহজাদপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহত কিশোরির লাশ উদ্ধার করে।
এ বিষয়ে শাহজাদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ খাজা গোলাম কিবরিয়া বলেন, ‘পোস্ট মর্টেমের জন্য নিহতের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। পোস্ট মর্টেমের রিপোর্ট পেলে নিহতের মৃত্যুর কারণ ও নিহতের সাথে ঠিক কি ঘটেছিলো? তা সঠিকভাবে জানা যাবে।’
এদিকে, তিন নরপিশাচ কর্তৃক ১৪ বছর বয়সী এক কিশোরিকে গণধর্ষণ ও পরিকল্পিতভাবে হত্যা করার এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে এবং ওই তিন নরপিশাচ লম্পটের বিরুদ্ধে আশু দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি গ্রহণের জোরালো দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসি।