বিচার কাজ দ্রুত সম্পন্ন করে খুনিদের ফাঁসির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন


শাহজাদপুরে কলেজ ছাত্র সাব্বির হত্যা মামলার বিচার কাজ ৬ বছরেও শেষ হয়নি

শাহজাদপুর সংবাদ ডটকম, শামছুর রহমান শিশির, বুধবার, ২২ আগস্ট ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দ : শাহজাদপুর সরকারি কলেজের মেধাবী ছাত্র সাব্বির হোসেন হত্যা মামলার বিচার কাজ ৬ বছরেও শেষ হয়নি। ২০১৪ সনের ২০ এপ্রিল আসামীদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করা হলেও গত ৪ বছরে আসামী পক্ষের নানা অজুহাতে কালক্ষেপনের কারণে ২৯ জন স্বাক্ষীর মধ্যে মাত্র ৬ জনের স্বাক্ষী নেয়া হয়েছে। এদিকে বিচার কাজ দ্রুত সম্পন্œ করে খুনিদের ফাঁসির দাবি জানিয়ে গত রোববার শাহজাদপুর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছে নিহতের বাবা-মা। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে নিহতের পিতা ওসমান গনি জানান, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ২০১২ সনের ২৩ আগষ্ট পোতাজিয়া গ্রামে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সংলগ্ন বাজারে একই গ্রামের ওয়াজ আলী ও তার স্বশস্ত্র বাহিনী দিনেদুপুরে তার ছেলে কলেজ ছাত্র সাব্বিরকে পিটিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে ওয়াজ আলীকে প্রধান আসামী করে ৩৩ জনের নামে থানায় হত্যা মামলা করেন। ২০১৩ সালের ২৩ জানুয়ারি মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা থানার পুুলিশ পরির্দশক (তদন্ত) আব্দুল জলিল দীর্ঘ তদন্ত শেষে প্রধান আসামী ওয়াজ আলীকে অভিযুক্ত করে ৩৪ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন। ২০১৪ সনের ২০ এপ্রিল আসামীদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠনের মাধ্যমে বিচারকার্য শুরু হয়। কিন্তু আসামীপক্ষ ষড়যন্ত্রমূলকভাবে বিচার কাজ বিলম্বিত করার হীন উদ্দেশ্যে চার্জ গঠনের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করলে হাইকোর্ট মামলার সকল কার্যক্রমের উপর ৬ মাসের স্থগিতাদেশ দেন। এমতাবস্থায় দীর্ঘ আইনী লড়াই শেষে ২০১৬ সালের ২৪ এপ্রিল হাইকোর্টের দেয়া স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার হওয়ায় পুনরায় মামলার বিচার কাজ শুরু হয়। সংবাদ সম্মেলনে নিহতের পিতা ওসমান গনি ও মাতা সালমা খাতুন কান্নাজড়িত কণ্ঠে অভিযোগে আরও জানান, এ পর্যন্ত মামলার ২৯ জন স্বাক্ষীর মধ্যে মাত্র ৬ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহন করা হয়েছে। বিচার কাজ বিলম্বিত করার জন্য আসামীপক্ষ বর্তমানেও নানা অজুহাতে আদালতের কাছে বারবার সময়ের প্রার্থনা করে স্বাক্ষ্য গ্রহণে বাধা সৃষ্টি করছে। মামলার প্রধান আসামী ওয়াজ আলীসহ ৩৪ জন আসামী বর্তমানে উচ্চ আদালত থেকে জামিনে মুক্ত রয়েছেন। আসামীরা মামলা তুলে নেওয়ার জন্য প্রতিনিয়ত বাদীপক্ষ ও মামলার স্বাক্ষীদের নানা ভয়ভীতি ও হুমকি দিয়ে আসছে। এ ব্যাপারে বাদীপক্ষ বিভিন্ন সময়ে তাদের জীবনের নিরাপত্ত্বা চেয়ে থানায় ৬টি জিডি করেছে। দীর্ঘ ৬ বছরেও তাদের একমাত্র ছেলে সাব্বির হত্যা মামলার বিচার কার্জ শেষ না হওয়ায় সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে নিহত সাব্বিরের বাবা-মা এ হত্যা মামলার বিচার কাজ দ্রুত সম্পন্ন করে খুনিদের ফাঁসির দাবি জানান। এ সময় নিহতের চাচা সাবেক ইউপি সদস্য আব্বাস আলী, মামা আব্দুল্লাহসহ স্বজনরা উপস্থিত ছিলেন।