আসন্ন শাহজাদপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থী


শাহজাদপুরকে আধুনিক শহর গড়তে চান নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন প্রত্যাশী শেখ কাজল

গতকাল সোমবার রাতে শাহজাদপুর পৌর এলাকার নিরালা ডায়াগনস্টিক সেন্টারের তৃতীয় তলায় ব্যক্তিগত কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে আসন্ন শাহজাদপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন নিয়ে নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করতে আগ্রহী শাহজাদপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি তরুণ প্রজন্মের নেতা মাহবুবে ওয়াহিদ শেখ কাজল বলেন, ‘নৌকা প্রতীকে দলীয় মনোনয়ন পেলে বিজয় সুনিশ্চিত করে পৌরবাসীরর নাগরিক সুবিধা নিশ্চিতসহ পরিকল্পিতভাবে আধুনিক শহর গড়ে তুলবেন ও পৌরবাসীর আধুনিক পৌরসেবা নিশ্চিত করবেন। সেইসাথে উত্তরাঞ্চলের সর্ববৃহৎ শাহজাদপুর কাপড়ের হাটকে আধুনিকায়ন, অধিক কর্মসংস্থান সৃষ্টি, সন্ত্রাস, মাদক, বাল্যবিয়েসহ সমাজে বিরাজিত ভয়াবহ নানা সমস্যা দূরীকরণে যথাযথ পদক্ষেপ নেবেন। পাশাপাশি পৌরবাসীর কল্যাণে নানা জনসচেতনতামূলক কার্যক্রমও তিনি চালিয়ে যাবার আশা প্রকাশ করেন। পারিবারিক ও রাজনৈতিকভাবে তিনি যোগ্য প্রার্থী দাবী করে অন্যান্য প্রার্থীদের মতো প্রতিশ্রুতি নয়, বাস্তবে তিনি কাজ করে যাবারও আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এজন্য তিনি সকলের দোয়া ভালোবাসা ও সহযোগীতা কামনা করেন।
মাহবুবে ওয়াহিদ শেখ কাজলের সমর্থকেরা জানান, আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে প্রার্থীতা নির্বাচনের ক্ষেত্রে আওয়ামী পরিবারকে মূল্যায়ন করা হোক। নৌকা প্রতীকে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী মাহবুবে ওয়াহিদ শেখ কাজলের পিতা এ্যাডঃ আব্দুর রহমান (এমসিএ) ছিলেন মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, শাহজাদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, রাকসু’র সাবেক ভিপি এবং জিএস । আজীবন বঙ্গবন্ধুর আদর্শ প্রতিষ্ঠার জন্য লড়াই করেছেন শেখ কাজলের পিতা। সেই সূত্রে পিতার নীতি আদর্শকে ধারণ করেই প্রকৃত মুজিব সৈনিক হিসেবে ২০০৩ সালে শাহজাদপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সদস্য হয়ে রাজনীতি শুরু করেন শেখ কাজল। ২০০৪ সালে শাহজাদপুর সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের আহ্বায়ক নির্বাচিত হন তিনি। ২০১২ সালে তিনি শাহজাদপুর উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক এবং ২০১৩ সালে সভাপতি নির্বাচিত হন। সফলতার সাথে ছাত্রলীগের নেতৃত্ব দেওয়ার পর বর্তমানে তিনি শাহজাদপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। সে হিসেবে তার সমর্থকেরা আদর্শিক নেতা, তরুণ প্রজন্মের সম্ভবনাময়ী নেতা ও আওয়ামী পরিবারের সন্তান শেখ কাজলকেই এগিয়ে রাখছেন।