লকডাউনের সময় সৌদি আরবে বেড়েছে বিবাহবিচ্ছেদ

চীনের সীমানা পেরিয়ে বিশ্বজুড়ে তাণ্ডব চালাচ্ছে করোনাভাইরাস। স্থবির হয়ে পড়েছে পুরো পৃথিবী, চলছে লকডাউন। এমন পরিস্থিতিতে সারাবিশ্বেই জমা হচ্ছে হাজারো বিয়ের আবেদন। তবে মধ্যপ্রাচ্যের বেশ কয়েকটি গণমাধ্যম জানাচ্ছে, আগের যে কোন সময়ের তুলনায় সৌদি আরবে তালাকের সংখ্যা বেড়েছে ৩০ শতাংশ।সৌদি আরবে একাধিক স্ত্রী রাখার প্রথা বহুকালের পুরনো। একবিংশ শিতাব্দীতেও বহুবিবাহের প্রথা ধরে রেখেছে সৌদির সামর্থবান পুরুষরা।

মধ্যপ্রাচ্যের বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যমের খবর, করোনাভাইরাস মহামারিতে সৌদি আরবে প্রায় এক-তৃতীয়াংশ বেড়েছে তালাকের সংখ্যা। লকডাউনের সময় স্বামীর গোপন বিয়ের কথা ফাঁস হয়ে যাওয়ার কারণে তালাকের পথে হাঁটছেন নারীরা।

জানা গেছে, প্রথম কারফিউ ও ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হওয়ার পর শুধু ফেব্রুয়ারিতে সৌদি আরবে ৭ হাজার ৪৮২টি তালাক হয়েছে। মক্কা ও রিয়াদে তালিকাভুক্ত হয়েছে বেশিরভাগ তালাকের ঘটনা। তবে মাসে পরবর্তী বিজ্ঞপ্তি না দেওয়া পর্যন্ত বিবাহ বিচ্ছেদের কার্যক্রম স্থগিত করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। আর অনলাইনে বিবাহের অনুমতি দিয়েছে দুবাই প্রশাসন।

উল্লেখ্য, সৌদি আরবের মতো লকডাউন খুলে দিতে শুরু করেছে উপসাগরীয় অন্য দেশগুলো। লকডাউন নিষেধাজ্ঞাগুলো তুলে দেয়ার পরও সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ওমানে তালাকের সংখ্যা কমছে না।

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.