রান্নাঘরের যে ৭ জিনিস প্রতিদিন পরিষ্কার করা উচিত

রান্নাঘর পরিচালনা করা নিঃসন্দেহে বড় চ্যালেঞ্জ। অনেকরকম খাবার রান্না করা থেকে শুরু করে থালা বাসন পরিষ্কার, সবকিছু একটি কঠিন কাজ বলে মনে হতে পারে। সুতরাং, বেশিরভাগ মানুষ অনেক দিন পরপর রান্নাঘর পরিষ্কার করেন। কিন্তু আমাদের রান্নাঘরে এমন কিছু জিনিস আছে যা প্রতিদিন পরিষ্কার করা প্রয়োজন।

রান্নাঘরের কিছু জিনিস নিঃশব্দে আমাদের খাবারে ব্যাকটেরিয়া এবং অন্যান্য সংক্রামণের ঝুঁকি বাড়ায়। কারণ এই জায়গাগুলো জীবাণুর প্রজননক্ষেত্র হতে পারে। সালমোনেলা সংক্রমণ, টাইফয়েড, ডায়রিয়া ইত্যাদির মতো রোগের কারণ হতে পারে সেসব জীবাণু। তাই এটি নিয়মিত পরিষ্কার করা অপরিহার্য। জেনে নিন কোন জিনিসগুলো নিয়মিত পরিষ্কার করতে হবে-

সিংকের নিচের জায়গা
বেশ কয়েকটি পাইপ, ভেন্ট এবং ড্রেন রয়েছে বলে রান্নাঘরের সিঙ্কের নীচের জায়গাটি অন্যতম জীবাণু-প্রবণ অঞ্চল। বেশিরভাগ ক্রলিং পোকামাকড় এবং তেলাপোকা ড্রেনের উপরে উঠে যায় এবং খাবারের পাশাপাশি বাসনপত্র এবং রান্নাঘরের আনুষাঙ্গিকগুলোকে সংক্রামিত করতে পারে। সুতরাং এটি যাতে সংক্রামক এবং রোগজীবাণু প্রজনন স্থানে পরিণত না হয় তা নিশ্চিত করার জন্য সিংকের নিচের অঞ্চলটি পরিষ্কার করা জরুরি। সুতরাং জীবাণুনাশক দ্রবণ দিয়ে জায়গাটি পরিষ্কার করুন।

কিচেন স্ল্যাব
এটি রান্নাঘরের সর্বাধিক ব্যবহৃত অংশগুলোর একটি। পানি দিয়ে মুছলে স্ল্যাবটি পরিষ্কার মনে হতে পারে তবে এটি আপনার বেশিরভাগ অসুস্থতার কারণ হতে পারে। স্ল্যাবে থেকে যাওয়া খাদ্য কণার কারণে রোগজীবাণুর বিকাশ ঘটে, যা আপনার স্বাস্থ্যের উপর প্রভাব ফেলতে পারে। বেকিং সোডা এবং ভিনেগারের ঘরোয়া দ্রবণ দিয়ে আপনার স্ল্যাব পরিষ্কার করতে পারেন। এটি তেলাপোকা এবং অন্যান্য সংক্রামকদের দূরে রাখবে।

চুলা
রান্না করার সময় বেশিরভাগ খাবারের কণা চুলার চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে যা জীবাণু এবং সংক্রামকের বিকাশের কারণ হতে পারে। তাই জীবাণুনাশক দিয়ে চুলার চারপাশ সঠিকভাবে পরিষ্কার করা জরুরি। এ কাজে ভিনেগার বা বেকিং সোডা ব্যবহার করতে পারেন। তবে অবশ্যই চুলা বন্ধ করার পর পরিষ্কারের কাজ করবেন।

ওভেন
রান্নার কাজে দরকারি উদ্ভাবন এই ওভেন। আমরা অনেকেই খাবার রান্না বা গরম করার জন্য ওভেন এবং মাইক্রোওয়েভ ব্যবহার করি যা আমাদের জীবনকে সহজ করে তোলে। তবে আপনি কি জানেন যে, ওভেন নিঃশব্দে আপনাকে অস্বাস্থ্যকর করে তুলতে পারে। জীবাণু এবং সংক্রমণ প্রতিরোধের জন্য নিয়মিত এই সরঞ্জামগুলো পরিষ্কার করা জরুরি।

মিক্সার গ্রাইন্ডার
প্রতিদিনের রান্নার কাজে ব্যবহৃত এই মিক্সার গ্রাইন্ডারও হতে পারে জীবাণুদের প্রজনন ক্ষেত্র। এমনকি আমরা তা বুঝতেও পারি না। আমরা বেশিরভাগই ডিশ ওয়াশিং সাবান দিয়ে মিক্সারের জারটি ধুয়ে ফেলি, তবে আমরা খুব কমই ব্লেডের নিচের জায়গাটি খুলি এবং এটি পরিষ্কার করি। ব্লেডগুলোর নিচের জায়গাতে খাবারের কণা জমা থাকে, যা সঠিকভাবে পরিষ্কার না করা হলে ক্ষতিকারক হতে পারে। সুতরাং, মিক্সার গ্রাইন্ডার সঠিকভাবে পরিষ্কারের জন্য এর ব্লেডগুলো খুলে জীবাণুনাশক এবং হালকা গরম পানি দিয়ে পরিষ্কার করে নিতে হবে।

রান্নাঘরের তোয়ালে
রান্নাঘরের তোয়ালে রান্নাঘরের মধ্যে সর্বাধিক ব্যবহৃত জিনিস। তবে আপনি কি জানেন যে এই তোয়ালে নীরবে আপনার স্বাস্থ্যের উপর প্রভাব ফেলতে পারে? এগুলো ধোয়ার সবচেয়ে ভালো উপায় হলো জীবাণুনাশক ব্যবহার করে গরম পানিতে ধুয়ে ফেলা। সম্ভব হলে এগুলো সূর্যের আলোতে শুকিয়ে নেবেন।

কিচেন সিঙ্ক
সবজি থেকে মাংস, চাল-ডাল থেকে নোংরা পাত্র পর্যন্ত ধোয়া, সব কাজ চলে এই কিচেন সিঙ্কে। সবরকম জীবাণুর সংক্রমণ এড়াতে সিঙ্ক নিয়মিত ধুয়ে ফেলতে। সেজন্য কেবল পানি এবং সাবানই যথেষ্ট নয়। রান্নাঘরের কাজ শেষে গরম পানি এবং জীবাণুনাশক দিয়ে সিঙ্ক পরিষ্কার করে নিন।

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.