যেভাবে শুরু করবেন একটি সুন্দর সকাল

নাগরিক জীবনে প্রত্যেকেরই রয়েছে শত শত কাজ ও ব্যস্ততা। মানুষ প্রতিনিয়ন তার ভাগ্য পরিবর্তন থেকে শুরু করে দৈনন্দিন কাজকর্মে ছুটছে। সকালে ঘুম থেকে উঠেই চাকরিজীবীদের অফিস, কাজ আর ছোটাছুটি। আবার শিক্ষার্থীদের ক্লাস কিংবা পরীক্ষার ব্যস্ততা। তবে শত ব্যস্ততার মধ্যেও দিনের শুরুটা ইতিবাচকভাবে শুরু করা উচিত। এতে করে আপনার দিনের শুরুটা যেমন ভালো কাটবে। তেমনি সারাটা দিন মনের মধ্যে প্রশান্তি কাজ করবে। একটি সুন্দর সকাল শুরু করার জন্য বেশ কিছু কাজ করতে পারেন আপনি। আর তাই চলুন জেনে নেই, যেভাবে শুরু করতে পারেন আপনার সকাল।

ইতিবাচক চিন্তা
সকালে ঘুম থেকে উঠে ইতিবাচকভাবে দিনের শুরু করার চেষ্টা করুন। এই কাজটিকে অভ্যাসে পরিণত করুন। এতে করে এক সময় দীর্ঘ সময়ের জন্য আপনার মনে প্রশান্তি কাজ করবে। যদি হাতে পর্যাপ্ত সময় থাকে তাহলে আপনার পছন্দমতো জ্ঞান শুনতে পারেন। অনেকেই ঘুম থেকে উঠে রবীন্দ্র কিংবা নজরুল সঙ্গীত শুনেন। এতে করে মন প্রশান্ত হয় এবং চাপ কমে। তাই দিনের শুরুটা ইতিবাচকভাবে শুরু করুন। চিকিৎসক ও মনোবিজ্ঞানীরা বেশিরভাগ সময় এইরকম পরামর্শ দিয়ে থাকে।

ব্যায়াম করা
সকালে দিনের শুরুতে হালকা ব্যায়াম করা শরীরের জন্য খুবই ভালো। এতে করে শারীরিক স্বাস্থ্য যেমন ভালো থাকে তেমনি মানসিক স্বাস্থ্য ভালো থাকে। তাই প্রতিদিন নিয়ম করে সকালে হালকা দৌড়ানো কিংবা যোগ ব্যায়াম করা খুবই ভালো অভ্যাস। আজকাল অনেকে মেডিটেশনও করে থাকে। তাছাড়া, বাসা বাড়িতে ছোট পরিসরে বাগান তৈরি করতে পারেন। এতে করে শারীরিক পরিশ্রম যেমন কাজে লাগবে তেমনি বাড়ির পরিবেশও ভালো থাকবে। এসব করলে সারা রাতের ঘুমিয়ে থাকার কারণে ম্যাসলের যে জড়তা, তা কেটে যায়। ব্যায়ামের সুযোগ না থাকলে অন্তত কিছুক্ষণ বারান্দায় হাঁটাহাঁটিও করতে পারেন। আপনার মাংস পেশীর জড়তা কাটাতে সাহায্য করে থাকে।

পানি পান
সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে কয়েক গ্লাস পানি পান করুন। এটি আপনার এনার্জি বৃদ্ধি করবে। আপানার মেটাবলিজম বাড়িয়ে এবং ওজন কমাতে সাহায্য করে থাকে। আর যদি সম্ভব হয়, তবে কুসুম গরম পানির সাথে লেবুর রস ও মধু মিশিয়ে পান করতে পারেন। এটি হজমশক্তি বৃদ্ধি করে শরীরকে হাইড্রেটেড রাখবে। তবে গ্যাসের সমস্যা থাকলে লেবু পানি পান করা থেকে বিরত থাকুন। সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে পানি পান করা খুবই ভালো অভ্যাস। চিকিৎসকরা প্রায়ই এ ধরণের পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

সাস্থ্যসম্মত নাস্তা
উন্নত বিশ্বের বেশিরভাগ দেশেই মূল খাবার হল সকালের খাবার। তারা দুপুরে খুবই অল্প আহার করে থাকে। এই কারণে বাইরের হোটেল রেস্তোরাগুলোতে সকালের খাবারে একাধিক আইটেম রাখা হয়। কিন্তু আমাদের দেশের খাদ্য সংস্কৃতিতে সকালের খাবারের প্রতি তেমন একটা গুরুত্ব দেওয়া হয় না। সকালে অনেকে তেলে ভাজা পরোটা খেতে পছন্দ করে। যা স্বাস্থ্যের জন্য মোটেও উপকারি নয়। রুটি, ফল, ফলের জুস বা একটু ভারী খাবার দিয়ে শুরু হতে পারে সকালটা। বিশেষজ্ঞ ও চিকিৎসকরা এই রকমের পরামর্শই দিয়ে থাকেন।
এসবের বাইরেও আপনি আপনার নিজের মতো কিছু কাজ করে সকালটা শুরু করতে পারেন। যাতে করে আপনার সকালটা শুরু হয় প্রশান্তি ও ইতিবাচকতা দিয়ে। ভালো কাটুক আপনার প্রতিটি সকাল। শুভ হোক আপনার দিনের সূচনা।

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.