মাঠ থেকে অবসর নেওয়ার প্রয়োজনীয়তা দেখছি না : মাশরাফি

বিশ্বকাপে মাশরাফি বিন মুর্তজা অবসর না নেওয়ায় ২ কোটি টাকা খরচ করে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দেশের মাটিতে একটি ম্যাচ আয়োজন করে তাকে বিদায় দিতে চেয়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তবে এত বিপুল পরিমাণ অর্থ খরচ করে বিদায়ের মঞ্চ দেখতে রাজি ছিলেন না মাশরাফি।

সম্প্রতি ইউটিউবে নট আউট নোমান অনুষ্ঠানে মাশরাফি জানান, তিনি মাঠ থেকে অবসর নেওয়ার প্রয়োজনীয়তাও দেখছেন না। এতে আবারো জোরালো হয়েছে- অধিনায়ক হিসেবে খেলা শেষ ম্যাচটির মাধ্যমেই মাশরাফি তার শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচটি খেলে ফেললেন কি না।

বিশ্বকাপেই মাশরাফি অবসর নিতে চেয়েছিলেন। তবে বোর্ডের অনুরোধে পরবর্তীতে অবসরের সিদ্ধান্ত নেন। বিশ্বকাপের পর ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একটি ওয়ানডে আয়োজন করতে চেয়েছিল বিসিবি। ঐ ম্যাচটি আয়োজনের উপলক্ষই ছিলেন শুধু মাশরাফি, যা আয়োজনে খরচ হত ২ কোটি টাকা। মাশরাফির কাছে তা রীতিমত ‘বিলাসিতা’ মনে হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘দেশে আসার পর ২ কোটি টাকা খরচ করে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একটি ম্যাচ আয়োজনের প্রস্তাব দেওয়া হয়। তখন মনে হয়েছিল- মাঠ থেকে অবসরের জন্য এমন সুযোগ হয়ত মাশরাফির প্রাপ্য, কিন্তু তাই বলে একটি ম্যাচের জন্য ২ কোটি টাকা খরচ করার অধিকার তার নেই।’

বাংলাদেশের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটারদের মনে পারিশ্রমিক নিয়ে হতাশা আছে। এমন পরিস্থিতিতে নিজের জন্য ২ কোটি টাকা খরচ স্বভাবতই ভালো ঠেকেনি মাশরাফির কাছে। তিনি বলেন, ‘যেখানে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটের এই অবস্থা, সেখানে ২ কোটি টাকা খরচ করে অবসর নেওয়ার মানে নেই। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটারদের মনে কষ্ট আছে (পারিশ্রমিক নিয়ে)। সেখানে আমার জন্য ২ কোটি টাকা খরচ করে ম্যাচ আয়োজন করা বাড়াবাড়ি কিছু মনে হয়েছে।’

‘তখন মাথায় এসেছে- এতই কি ব্যস্ততা যে ২ কোটি টাকা খরচ করে আমাকে অবসর নিতে হবে? আমাকে মাঠ থেকে অবসর নিতেই হবে এমন প্রয়োজনীয়তা আমি দেখছি না।’– বলেন মাশরাফি।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

সূত্রঃ বিডি ক্রিকটাইম

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.