ভাড়া পুর্ননির্ধারণ করে ১ জুন থেকে সারাদেশে গণপরিবহন চালুর সিদ্ধান্ত

আগামী ১ জুন থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সারাদেশে গণপরিবহন চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার ও বাস মালিক-শ্রমিক নেতারা। বাসের চালক ও হেলপারদের মাস্ক ও গ্লাভস পরতে হবে। একই সাথে মাস্ক ছাড়া গণপরিবহনে চড়তে পারবেন না কোনো যাত্রী। পুনর্র্নিধারণ করা হবে ভাড়া।

শুক্রবার বিকেলে বনানীর সড়ক পরিবহন ভবনে এক বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। বৈঠকে মালিক শ্রমিক নেতাদের সাথে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যোগ দেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

বৈঠক শেষে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মোঃ নজরুল ইসলাম জানান, বাসের স্বাস্থ্যবিধি ও নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। এজন্য, বাস চলাচলের সময় অন্তত ৩০ ভাগ সিট খালি, বাস স্ট্যান্ডে হাত ধোওয়ার ব্যবস্থা, শ্রমিকদের টানা ডিউটি না করানোর বিষয়ে সিদ্ধান্ত প্রস্তাব দেয়া হয় বৈঠকে। এর ফলে, ভাড়া পুনর্র্নিধারণ করতে হবে। ভাড়া পুনর্র্নিধারণ কমিটি এ বিষয়ে বৈঠক করে ভাড়া ঠিক করবেন। ভাড়া নিয়ে কোনো ধরনের নৈরাজ্য করা যাবে না।

বৈঠকে, টার্মিনাল থেকে বাস ছাড়ার আগে সবাইকে স্যানিটাইজার ব্যবহার করে জীবাণুমুক্ত হয়ে নেয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে। টিকিট কাটার সময় বজায় রাখতে হবে নিরাপদ দূরত্ব। এসব মনিটরিংয়ে প্রশাসন ও মালিক সমিতি- উভয়ের টিম থাকবে।

পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব আরও বলেন, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের নির্দেশনায় এক জেলা থেকে আরেক জেলা যাত্রী পরিবহনে নিষেধাজ্ঞার কথা বলা হয়েছে। কিন্তু যে যাত্রী রাজশাহী থেকে ঢাকা আসবেন তার যদি বিভিন্ন জায়গায় পরিবহন বদলানো লাগে সেটা আরও বেশি ঝুঁকিপূর্ণ হবে। তাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও নির্ধারিত স্টপেজের বাইরে না থেমে এক জেলা থেকে আরেক জেলায় যাত্রী পরিবহনের প্রস্তাব মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে প্রেরণ করা হবে বলে।

এবিএন/মমিন/জসিম

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.