ভারতের ক্রিকেটের প্রবীণতম নক্ষত্রের মৃত্যু

ভারতের ক্রিকেটের প্রবীণ খেলোয়াড় বসন্ত রাইজি আর নেই। ১০০ বছর বয়সে তিনি পাড়ি জমিয়েছেন পরকালে। গত জানুয়ারিতে ১০০ বছর পূর্ণ করা বসন্ত নানাবিধ রোগে ভুগছিলেন।

বসন্তের শততম জন্মদিনে ‘১০০’ লেখা কেক নিয়ে তার বাড়িতে হাজির হয়েছিলেন শচীন ও ওয়াহ। ফাইল ছবি

ভারতের ক্রিকেটের শুরুর সাক্ষী হিসেবে একমাত্র তিনিই বেঁচে ছিলেন। ভারতের প্রথম টেস্টের সময় বসন্তের বয়স ছিল ১৩ বছর। প্রবীণ এই ক্রিকেট ব্যক্তিত্বের বিদায়ে শোকে মুহ্যমান হয়ে পড়েছে গোটা ভারতের ক্রিকেট অঙ্গন।

মুম্বাইয়ের ওয়াকেশ্বরে নিজ বাসভবনে জীবনের শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন বসন্ত। চন্দনওয়ারি শ্মশানে শনিবার (১৩ জুন) তার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হবে।

১৯৪০ সালে ভারতবর্ষ ভাগ হওয়ার আগেই প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক হয় তার। তারও আগে খেলেছেন রঞ্জি ট্রফিতে। ক্রিকেটের কঠিন সেই সময়ে খেলেছেন ৯টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ, সংগ্রহে আছে ২৭৭ রান। ৬৮ রানের এক ইনিংস খেলেছিলেন, যা তার সর্বোচ্চ স্কোর।

ক্রিকেট ময়দানে তাকে বিশেষ মর্যাদা দেওয়ার আরেকটি কারণ- বসন্ত একাধারে ক্রিকেট ইতিহাসবিদ ছিলেন। ক্রিকেটের জানা-অজানা নানা তথ্য-উপাত্ত সংরক্ষণ করেছিলেন তিনি। ক্রিকেট নিয়ে মোট ৮টি বইও লিখেছেন। গত জানুয়ারিতে শততম জন্মবার্ষিকীতে তার বাড়িতে হাজির হয়ে জন্মদিন পালন করেছিলেন শচীন টেন্ডুলকার ও স্টিভ ওয়াহ।

১৯২০ সালের ২৬ জানুয়ারি গুজরাটের বরদায় জন্মগ্রহণ করেন বসন্ত রাইজি। ভারতের জীবিত ক্রিকেটারদের মধ্যে এতদিন তিনিই ছিলেন সবচেয়ে প্রবীণ। ভারত তো বটেই, তার বিদায়ে শোকে কাতর হয়েছে পড়েছে বিশ্ব ক্রিকেটও।

 

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.