বেড়ায় পাম্প হাউজের সহকারি প্রকোশলীর বিরুদ্ধে শতাধিক গাছের আম বিক্রয়ের অর্থ আত্বসাতের অভিযোগ

পাবনার বেড়া উপজেলার পানি সেচের প্রবেশদার বেড়া পাম্প হাউজের প্রায় শতাধিক গাছের আম বিক্রির বিপুল পরিমাণ অর্থ সহকারি প্রকোশলী রমেশ মন্ডলের পকেটে যাচ্ছে একযুগ ধরে।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, বেড়া পানি উন্নয়নের আওতায় বেড়া পাম্প হাউজে দালালদের সহায়তায় একটি শক্তিশালী সিন্ডিকেট গড়ে উঠেছে। সহকারি প্রকোশলী রমেশ মন্ডল এই সিন্ডিকেট নিয়ন্ত্রণ করেন। এই সিন্ডকেট নিয়ন্ত্রনে তাকে সহযোগীতা করেন তার আরেক সহকর্মী স্থানীয় বৃশালিখা গ্রামের মো. সবিলের পুত্র কবির আহমেদ।

এই সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে বেড়া পাম্প হাউজের জলাশয় থেকে অবৈধ ভাবে মাছ শিকার, পাম্প হাউজের তৈল আত্বসাত, জলাশয়ে নিজেদেন লোকজন দিয়ে মাছ শিকার করিয়ে তাদের নিকট হতে উৎকোচ গ্রহণ, পাম্প হাউজের উত্তর দক্ষিণে নতুন-পুরাতন গাড়ির যন্ত্রাংশ, তামা, লোহাসহ অন্যান্য যন্ত্রাংশ আত্বসাতের অভিযোগ রয়েছে। প্রকোশলী রমেশ মন্ডলের অবহেলায় সরকারি ইন্জিল চালিত স্প্রীড বোর্ডটিও নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।

বেড়া বনগ্রামের এক আম ব্যবসায়ির কাছে প্রকোশলী রমেশ মন্ডল পাম্প হাউজ বাগানের আম, জাম, পেপে, লেবু, পেয়ারাসহ বিভিন্ন ফল বিক্রয় করে সে অর্থ রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা না দিয়ে নিজের পকেটে রাখেন।

এ বিষয়ে প্রকৌশলী রমেশ মন্ডলের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে সংবাদটি প্রকাশ না করে তার সাথে সাক্ষাৎ করতে বলেন। এই সিন্ডিকেটের বিভিন্ন অপকর্ম ও দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণে স্থানীয় গ্রামবাসী প্রতিষ্ঠানের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন।