বেলকুচি উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা

দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ, আওয়ামী লীগের সভাপতির সাথে বিরোধ ও সালিসী বৈঠকে পারিপার্শ্বিক মতানৈক্য এবং জেলা যুবলীগের নির্দেশ অমান্যের অভিযোগে সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগ।

শুক্রবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মো. মাঈনুল হোসেন খান নিখিল স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ একটি সুসংগঠিত ও সুশৃঙ্খল সংগঠন। এ সংগঠনে উশৃঙ্খলকারীর কোন ঠাঁই নেই। গত ১৮ জুন সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির সাথে বেলকুচি উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক একটি সালিসী বৈঠকে পারপার্শ্বিক মতানৈক্য কারণে বিবাধে জড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনাটি নিয়ে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় ও অনলাইন মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশিত হলে কেন্দ্রীয় যুবলীগের দৃষ্টিগোচর হয়। বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশের নির্দেশে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে সিরাজগঞ্জ জেলার বেলকুচি উপজেলর যুবলীগের আহবায়ক কমিটি ২৬ জুন ২০২০ থেকে বিলুপ্ত ঘোষণা দেওয়া হয়।

সিরাজগঞ্জ জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. একরামুল হক জানান, দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ, জেলা যুবলীগের নির্দেশ অমান্য, করোনা পরিস্থিতির মধ্যে যুবলীগের আয়োজন সমাবেশসহ নানা অভিযোগের কারণে বেলকুচি উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণার জন্য কেন্দ্রীয় কমিটিকে সুপারিশ করা হয়। এরই অংশ হিসেবে কেন্দ্রীয় যুবলীগের সিদ্ধান্ত মোতাবেক শুক্রবার সন্ধ্যায় আহবায়ক কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেন।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিতবার (২৫ জুন) দুপুরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের মধ্যেও সাবেক মন্ত্রী ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল লতিফ বিশ্বাসের বিরুদ্ধে হাজার হাজার নেতাকর্মীদের নিয়ে মানববন্ধন ও সমাবেশ করে বেলকুচি উপজেলা যুবলীগ। আর এ সমাবেশের কারণে সমালোচনার মুখে বেলকুচি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলামকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।