বিমানে ১২৯ জন ছিলেন, শুধু ডা. ফেরদৌস প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে

বিশেষ ফ্লাইটে গতকাল রবিবার (৭ জুন) যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে ফেরা ১২৮ জনের মধ্যে একজন ছাড়া সবাইকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।

যে একজনকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে তিনি হলেন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক প্রবাসী বাংলাদেশি চিকিৎসক ফেরদৌস খন্দকারও। ঢাকায় এসে আটকে গেলেন করোনা চিকিৎসা দিয়ে আলোচিত এই চিকিৎসক। বর্তমানে তিনি মহাখালীতে অবস্থিত ব্র্যাক ট্রেনিং সেন্টারে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে আছেন বলে জানা গেছে।

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দায়িত্বপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ডা. শাহরিয়ার সাজ্জাদ কালের কন্ঠকে বলেন, ‘ডা. ফেরদৌস খন্দকারের করোনার লক্ষণ থাকায় তাঁকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। তিনি বর্তমানে মহাখালীতে ব্র্যাক ট্রেনিং সেন্টারে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে আছেন।’

ডা. সাজ্জাদ বলেন, ডা. ফেরদৌস খন্দকারের করোনা নেগেটিভ সনদ থাকলেও অ্যান্টিবডি টেস্ট পজিটিভ থাকায় করোনা হয়েছিল এটি বোঝা যায়। এখন সেটি রিকভারি হয়ে গেছে না-কি এখনো অ্যাক্টিভ আছে সেটি আমরা নিশ্চিত হতে পারছি না। এজন্য তাঁকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে‌। সেখানে যদি দেখা যায় তাঁর মাধ্যমে সংক্রমণের ঝুঁকি নেই তাহলে তিনি চলে যেতে পারবেন।

গতকাল রবিবার বিকেল ৫টায় ফেরদৌস খন্দকারসহ ১২৯ জনকে নিয়ে কাতার এয়ারওয়েজের বিশেষ ফ্লাইটটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন উচ্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থী, উচ্চতর ডিগ্রি নিতে আসা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক, দর্শনার্থী, পেশাজীবী ও ব্যবসায়ী ছিলেন ফ্লাইটটির যাত্রীদের মধ্যে।

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.