বিনা বাধায় কালো টাকা সাদা করার সুযোগ

মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে ধাক্কা লেগেছে বিশ্ব অর্থনীতিতে। বাংলাদেশও তার বাইরে নয়। পূর্ববর্তী অর্থবছরের তুলনায় এবার রাজস্ব সংগ্রহ কম হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে যা বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর প্রথম। করোনাভাইরাসের কারণে অর্থনৈতিক কার্যক্রম কমে যাওয়ার রাজস্ব সংগ্রহ কমে গেছে। এ অবস্থায় রাজস্ব সংগ্রহের লক্ষমাত্রা ৩ লাখ ৩৩ হাজার কোটি থেকে কমিয়ে ৩ লাখ ১ হাজারে নামিয়ে আনা হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। অর্থনীতিকে পুনরুজ্জীবিত করতে বিনা বাধায় কালো টাকা সাদা করার সুযোগ দেওয়া হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

গত ৫ বছরে কালো টাকার মালিকরা তাদের অর্থ ১০ শতাংশ কর পরিশোধ করে বিনিয়োগ করতে পারতেন। নিয়মিত কর পরিশোধকারীদের ক্ষেত্রে এ হার ১০ থেকে ৩০ শতাংশ। তবে দুর্নীতি বিরোধী কমিশন কালো টাকার মালিকদের অর্থের উৎস নিয়ে প্রশ্ন তুলতে পারতো।

সরকার করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত তালিকা বহির্ভূত কোম্পানিগুলোর করপোরেট কর আড়াই শতাংশ কমিয়ে দিতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ব্যক্তিগতভাবে করমুক্ত আয়সীমা আড়াই লাখ থেকে ৩ লাখে উন্নীত হতে পারে। আগামী অর্থবছরে করের হার ৫ শতাংশ কমে ২৫ শতাংশ হতে পারে বর্তমানে যা ১০ থেকে ৩০ শতাংশ।

সূত্রঃ বিডি প্রতিদিন

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.