বাতিল হচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ!

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের বিষাক্ত ছোবলে একে একে বাতিল হচ্ছে ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। এরই ধারাবাহিকতায় আইসিসি গত মাসেই জানিয়েছিল জুলাইয়ে তারা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজনের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবে।জুলাইয়ের ৬ তারিখেও সেই সিদ্ধান্ত জানাতে পারেনি আইসিসি। তবে আয়োজক দেশ অস্ট্রেলিয়ার পত্রিকা দি ডেইলি টেলিগ্রাফ জানিয়েছে-‘ক্রিকেটের উন্মুক্ত রহস্যটা নিশ্চিত হবে এই সপ্তাহে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাতিল হচ্ছে। খুব সম্ভবত এটি সামনের কয়েক বছরের মধ্যে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে আয়োজনের সম্ভাবনা নেই। তবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার শুরুটা হলে দেশের বাইরে ওয়ানডে সিরিজ খেলতে যাবে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল।’

সেপ্টেম্বরে অস্ট্রেলিয়া ওয়ানডে সিরিজ খেলতে ইংল্যান্ডে যেতে পারে। করোনা মহামারির এই সময়টায় ইংল্যান্ডেই এখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচের আসর বসছে।

১৮ অক্টোবর থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ যে অস্ট্রেলিয়াই হচ্ছে না- সাম্প্রতিক বাস্তবতা সেই তথ্যই নিশ্চিত করছে। খোদ অস্ট্রেলিয়াই এই বিশ্বকাপের আয়োজন নিয়ে সন্দিহান। তবে যেহেতু টুর্নামেন্টটি আইসিসির। তাই চূড়ান্ত ঘোষণাটা তাদের কাছ থেকেই আসবে। এখন শুধু সেই আনুষ্ঠানিক ঘোষণার অপেক্ষা!

তবে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) এই সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় আর বসে নেই। অনেকদিন আগে থেকেই বিসিসিআই এই ব্যাপারে দ্রুততর সময়ের মধ্যে সিদ্ধান্ত জানানোর জন্য আইসিসির ওপর চাপ দিয়ে আসছে। দ্রুত সিদ্ধান্ত না আসায় তারা আইসিসির ওপর ক্ষুব্ধও। কারণ আর কিছু নয়। বিশ্বকাপ না হলে ক্রিকেটের সেই সময়টা আইপিএল দিয়ে ভরতে চায় ভারত। আর নিজেদের এই ইচ্ছের কথাটা ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড এক অর্থে জানিয়েও দিয়েছে।

তাই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাতিলের আনুষ্ঠানিক ঘোষণার জন্য আর অপেক্ষায় থাকতে রাজি নয় ভারত। তারা আইপিএলের প্রাক-প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে। আট দলের আইপিএলে এবার ম্যাচ সংখ্যা কমিয়ে আনা হতে পারে। ভেন্যুও কমতে পারে। বিকল্প ভেন্যু হিসেবে শ্রীলঙ্কা ও আরব আমিরাতের নামও আলোচনায় রয়েছে।

সবকিছু পুরোপুরি নিশ্চিত হওয়া যাবে চলতি সপ্তাহের মধ্যেই।

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.