নেপালের ৩৩ হেক্টর জমি দখল করেছে চীন

নেপালের প্রায় ১০ টি জায়গায় মোট ৩৩ হেক্টর জমি দখল করেছে চীন। এমনকি অদূর ভবিষ্যতে সেখানে আউটপোস্টও বানাতে পারে চীন সৈন্য। এমনই চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট মিলেছে নেপালের কৃষি মন্ত্রণালয়ের তরফে।গত ১৫ জুন লাদাখের গলওয়ান উপত্যকায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়িয়েছিল ভারত ও চীন। সে নিয়ে বিবাদের রেশ এখনও কাটেনি। তার মধ্যেই এই রিপোর্ট যথেষ্ট অর্থবহ।

নেপালের কৃষি মন্ত্রণালয়ের তরফে বলা হয়েছে নদীর গতিপথ ঘুরিয়ে দিয়েও নাকি সীমান্তে নেপালের জায়গা দখল করার চেষ্টা করছে চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি।

বাগডারে খোলা ও কর্নালি নদীর গতিপথ পরিবর্তন করে শুধুমাত্র হুমলা জেলাতেই ১০ হেক্টর জমি দখল করে নিয়েছে চীন। রাসুয়া জেলায়ও ৬ হেক্টর চলে গিয়েছে চীনা আগ্রাসনের অধীনে।

তিব্বতের স্বশাসিত অঞ্চলে নদীর গতিপথ পরিবর্তন করে রাস্তা তৈরির কাজ করছে চীন। যার ফলে নদীগুলি নেপালের দিকে প্রবাহিত হচ্ছে। তার দরুন প্রাকৃতিক ভাবেই প্রায় ১০০ হেক্টর জমি চলে যেতে পারে তিব্বতের অংশে। আর সেখানেই আউটপোস্ট তৈরি করে ফেলতে পারে চীন।

চীনই একমাত্র দেশ যারা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর নিজের সীমানা বাড়িয়ে গিয়েছে। চীনা আগ্রাসনের জন্যই এরূপ করতে পারে দেশটির সেনা। ভারত ও নেপাল ছাড়াও এর আগে ভিয়েতনাম, তাইওয়ান, মালয়েশিয়ার সঙ্গে সংঘাতে জড়িয়েছে বেইজিং।

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.