নিরবে দায়িত্ব ছাড়লেন এশিয়া কাপ জেতানো কোচ

নারী টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপে বাঘিনীদের ভরাডুবির পরে কোচের চেয়ারে রদবদল আসাটা প্রায় নিশ্চিত ছিল। ফলাফল হিসেবে ২ বছরের সম্পর্কের ইতি টেনে ভারতীয় কোচ আঞ্জু জৈন আর থাকছেন না বাংলাদেশ নারী দলের দায়িত্বে। কেননা তিনি এরই মধ্যে চুক্তি করে ফেলেছেন ভারতের ঘরোয়া দল বারোডা নারী ক্রিকেট দলের সঙ্গে। বারোডা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের (বিসিএ) যথাযথ নির্দেশনা পেলেই কাজে যোগ দেবেন আঞ্জু।

বৃহস্পতিবার (৪ জুন) বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট উইংয়ের চেয়ারম্যান শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল বলেন, ‘ওনার সঙ্গে আমাদের মার্চ পর্যন্ত চুক্তি ছিল। বিশ্বকাপের পারফরম্যান্সের বিষয়ে আমাদের চিন্তা ভাবনা ছিল। উনি হয়তো ভেবেছে তার চুক্তি বাড়ানোর সুযোগ নেই।

এ কারণে নিজে থেকেই চলে গেছে, আমাদের কিন্তু জানায়নি। যেহেতু তার চুক্তির মেয়াদ মার্চ পর্যন্ত ছিল এবং আমরা বাড়াইনি। তো তার রিজাইন দেওয়া কিংবা আমাদেরও তাকে টার্মিনেট করার প্রয়োজন পড়েনি। আমরা এখনও চিন্তা ভাবনা করছি। অবশ্যই বাইরের কাউকে নিব। আর কয়েকটা দিন পরে হয়তো বা বলতে পারব।’

বারোডায় যোগ দেয়ার খবর নিশ্চিত করে টাইমস অব ইন্ডিয়াকে আঞ্জু বলেছেন, ‘আমি দ্রুতই কাজে যোগ দিতে চাই। মেয়েদের মধ্যে আত্মবিশ্বাসের বীজ বপন করতে চাই আমার কাজের মাধ্যমে। দলের মধ্যে আস্থার সম্পর্ক গড়তে চাই।’

বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের হয়ে ২০১৮ থেকে চলতি বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেছেন আঞ্জু। তার অধীনে বিশ্বকাপে ভরাডুবি হলেও, ২০১৮ সালে ঠিকই এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলাদেশ। তবে শেষ কয়েকদিনে দলের ওপর অতিরিক্ত কর্তৃত্ব ফলানোয় তাঁর প্রতি অভিযোগ ছিল খেলোয়াড়-কর্মকর্তাদের।

খেলোয়াড়ি জীবনে ভারতের নারী ক্রিকেট দলের হয়ে ১২ বছর খেলেছেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান আঞ্জু। এমনকি ২০০০ সালের বিশ্বকাপে ছিলেন দলের অধিনায়ক। ক্রিকেটে অবদানের কারণে অর্জুনা পুরস্কারও জিতেছেন আঞ্জু জৈন।

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.