নবনির্বাচিত কাউন্সিলর হত্যা ঘটনায় গ্রেফতার ১

 

পৌরসভা নির্বাচনে সিরাজগঞ্জ পৌরসভার  ৬ নম্বর ওয়ার্ডের বিজয়ী কাউন্সিলর তরিকুল ইসলাম (৪৫) হত্যার ঘটনায় স্বপন ব্যাপারী (৪৫) নামে এক আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রোববার (১৭ জানুয়ারি) রাতে ব্যাপারীপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

এর আগে শনিবার নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পরপরই প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত হন তরিকুল ইসলাম। পরদিন রবিবার রাতে নিহতের ছেলে একরামুল হক হৃদয় বাদী হয়ে পরাজিত প্রার্থী ও ৬ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাদত হোসেন বুদ্দিনকে প্রধান আসামি করে ৩২ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত আরো ৪০/৫০ জনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেন। স্বপন ব্যাপারী এই মামলার এজাহারভুক্ত ২৭ নাম্বার আসামি।

নিহত তরিকুল ইসলাম শহরের নতুন ভাঙাবাড়ি মহল্লার আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে। তিনি পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৮৫ ভোটে জয়লাভ করেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ভোট গণনায় ৮৫ ভোটে বিজয়ী হন তরিকুল ইসলাম। ফলাফল ঘোষণা হওয়ার পরপরই পরাজিত প্রার্থী শাহাদত হোসেন বুদ্দিনের সমর্থকদের সঙ্গে বিজয়ী প্রার্থীদের সংঘর্ষ হয়। এ সময় পরাজিত প্রার্থীর সমর্থকদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে বিজয়ী কাউন্সিলর তরিকুল গুরুতর আহত হন। শনিবার রাত ৮টার দিকে শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও ২ নম্বর পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ তরিকুল ইসলাম জানান, শাহাদত হোসেন বুদ্দিনকে প্রধান আসামি করে ৩২ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৪০/৫০ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের হয়েছে। এ মামলায় একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।