হরভজনের অভিযোগ


নতুন মহামারি ছড়ানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে চীন

সময়ের সঙ্গে মহামারিতে রূপ নেওয়া প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের ধাক্কা সামলাতেই রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছে পুরো বিশ্ব। এই মরণব্যাধির তাণ্ডবে আধুনিক বিশ্বের বড় বড় দেশের চিকিৎসাব্যবস্থাও ভেঙে পড়েছে। কিছুতেই সামাল দেওয়া যাচ্ছে না প্রাণঘাতী এই ভাইরাসটি। এর মধ্যে আরেকটি মহামারি ভাইরাস ছাড়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে চীন- এমন অভিযোগ তুলেছেন ভারতের সাবেক স্পিনার হরভজন সিং।

লাদাখ নিয়ে ভারত-চীনের মধ্যে এখন যুদ্ধ যুদ্ধ ভাব বিরাজ করছে। চীনা পণ্য বয়কটসহ নানামুখী প্রতিবাদে ভারত ইতিমধ্যে বাণিজ্য যুদ্ধ শুরু করে দিয়েছে। ভারতীয় জনগণের মধ্যে এখন চীন-বিদ্বেষ মাত্রা ছাড়িয়েছে।

চীনের উহান শহর থেকেই উৎপত্তি হয় প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের। এতে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে চীনের প্রতিদ্বন্দ্বী যুক্তরাষ্ট্র। এখন পর্যন্ত সেদেশে ১ লাখ ২৮ হাজারের মতো মানুষ মারা গেছে।

ভারতের অবস্থাও ভালো নয়। বিশ্বের চতুর্থ করোনা আক্রান্ত দেশ এখন ভারত। ১৭ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন, আক্রান্ত সাড়ে পাঁচ লাখের মতো। এর মধ্যে সীমান্তে ভারতকে চেপে ধরেছে চীন।

এই চীনেই আরেকটি ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। শুকর থেকে যেটি মানুষের শরীরে আসতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বিজ্ঞানীরা। ‘সোয়াইন ফ্লু’র মতো সংক্রামক ভাইরাসটি মহামারি আকার ধারণ করতে পারে, সতর্ক করেছেন তারা।

ভাইরাসটির নাম ‘জি৪ ইএ এইচ১এন১’। ২০০৯ সালে ছড়িয়ে পড়া সোয়াইন ফ্লুর মতো বৈশিষ্ট্যের এই ভাইরাস। বিজ্ঞানীরা মনে করছেন, এটি মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়লে সাধারণ ভ্যাকসিনে কাজ হবে না।

এমন খবর শোনার পর চীনের ‍ওপর ক্ষোভ উগড়ে দিলেন হরভজন সিং। ভারতের সাবেক এই অফস্পিনার সন্দেহ প্রকাশ না করে সরাসরিই দুষলেন প্রতিদ্বন্দ্বী দেশটিকে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘যখন পুরো বিশ্ব কোভিড ১৯ সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে। তারা (চীন) আমাদের জন্য আরেকটি ভাইরাস প্রস্তুত করে ফেলেছে।’

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.