তাড়াশে পরিকল্পিত ভাবে ফাসানো হয়েছে সাংবাদিককে- সংবাদ সম্মেলনে নির্যাতিত সাংবাদিক

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে পরিকল্পিত ভাবে সাংবাদিককে নারী কেলেংকারির অভিযোগে ফাঁসানো হয়েছে। সোমবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলনে এ সকল তথ্য তুলে ধরেন তাড়াশ টিএনটি মোড়ে বসবাসকারী, উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি, দৈনিক নবচেতনা পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধি আলহাজ্ব গোলাম রাব্বানী সুর্য।

তিনি তার ছোট ভাই লিটন খন্দকারের বাসায় সংবাদ সম্মেলন বলেন, আমি আমার মেয়ে ও ছেলেকে লেখাপড়া করার জন্য বগুড়া জেলার শেরপুর উপজেলার সদরে ভাড়া বাসায় ৩ বছর যাবত আমার স্ত্রী সহ থাকে। সেখানে আমিও মাঝে মাঝে গিয়ে থাকতাম। কিন্তু দেশের এই মহামারি করোনা ভাইরাস বিদ্যম্যান থাকায় ৩মাস হলে আমার স্ত্রী ও আমার ছেলে মেয়ে তাড়াশ বাসায় অবস্থান করছে। শেরপুরের বাসা ভাড়া দেওয়ার জন্য আমি ৪ জুলাই শনিবার সকালে বাসা থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে শেরপুর যাই।

বাসার মালিককে ভাড়া দিয়ে মোটরসাইকেল নিয়ে বের হয়ে আসতেই কোয়াটার কিলোমিটার দুরে কিছু যুবক ছেলে আমার মোটর সাইকেল রোধ করে এবং আমাকে একটা ফার্নিচারের দোকান ঘরে নিয়ে যায়। সেখানে একটা মেয়ে বসিয়ে রেখে ৭ থেকে ৮ যুবক আমাকে বিভিন্ন বিব্রত প্রশ্ন করতে থাকে। আমি প্রশ্ন গুলো করা দেখে এক পর্যায়ে বুঝতে পারি আমি কোন চক্রান্তের মধ্যে পরেছি। এর মধ্যেই তারা বিভিন্ন ফোন রিসিভ করে কথা বলতে থাকে। কথা বলার মধ্যে বুঝতে পারলাম আমার স্ত্রী ও স্ত্রীর বাবা ভাই বোন কথা বলছে।

এভাবে প্রায় ২ ঘন্টা জেরা করে আমাকে তারা বলল আপনি আপনার স্ত্রীর অথবা আপনার শ্বশুরের সাথে কথা বলেন তাহলে আমরা আপনাকে ছেড়ে দিবো। আমি তাদের কথায় রাজি হলাম না। তখন এই ছেলে গুলো অবাক হয়ে বললো ভাই আপনি একজন সম্মানী মানুষ। আমরা বুঝতে পারলাম আপনাদের এটা পারিবারিক কলহ। ছেলে গুলো আমাকে যেতে বলাতে আমি রওয়ানা দিবো এমন সময় থানা থেকে সিভিল পোষাকে এক এসআই ও মহিলা এক পুলিশ এসে আমাকে বললো আপনাকে থানায় যেতে হবে ওসি স্যার ডাকছে। আমি থানায় গিয়ে ওসি সাহেবের সাথে দেখা করলাম আমাকে বললো আপনার নামে অভিযোগ করেছে আপনার স্ত্রী আপনাকে ছাড়া যাবে না।

আবারো চক্রান্তের জালে আবদ্ধ হয়ে থানায় থেকে গেলাম। চলতে থাকে বহু নাটকীয় ঘটনা। যাক আমি আমার লোক দ্বারা বের হওয়ার চেষ্টা করলেও আমার শ্বশুর বিভিন্ন মহলকে ফোন দিয়ে আমাকে কাষ্টরিতে রাখে। ৫ জুলাই রবিবার আমাকে চালান দিলে কোর্টে যাওয়ার ৩০ মিনিটের খালাস পাই।

ইতো মধ্যেই আমার নামে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে ২/৪টি পত্রিকায় নিউজ করানো হয়েছে। যা আমার কর্ম জীবনের,সামনের রাজনৈতিক জীবনের,আমার সংসার জীবনের মান সম্মান হেয় প্রতিপন্য করার জন্য আমাকে সমাজে ছোট করার জন্য কারা জড়িত তা খতিয়ে দেখে তাদের বিরুদ্ধে আইনুনাযায়ী ব্যবস্থা গ্রহনের নিমিত্তে আমি আজকের এই সংবাদ সম্মেলন করছি।