ঢাকায় বাতাসের দূষণ কমেছে ৩০ শতাংশ

মাত্র দুই মাসের লকডাউনে বদলে গেছে ঢাকার বাতাস। দূষণের মহানগরে এখন সবুজ আর সতেজ হাওয়া। প্রাণভরে শ্বাস নেয়ার বড় সুযোগ করে দিয়েছে প্রাণঘাতী করোনা। এরই মধ্যে বাতাসের ৩০ শতাংশ দূষণ কমেছে, যা বিশ্বের দূষিত বায়ুর শহরের তালিকায় ৩০-৪০ ধাপ নিচে নামিয়ে এনেছে ঢাকাকে। পরিবেশবিদরা বলছেন, চাইলেই যে দূষণ রোধের ব্যবস্থা করা যায় এটি তারই প্রমাণ।এমন নীল আকাশ ঠিক কতদিন আগে দেখেছে ঢাকাবাসী? এর সঠিক জবাব হয়তো কারো কাছে নেই। মাত্র দুই মাসের লকডাউনে বদলে গেছে অনেক কিছুই। নাভিশ্বাস তোলা গাড়ির কালো ধোয়ার জায়গা করে নিয়েছে মৃদু বাতাস আর নির্মল প্রকৃতি।

২০১৯ সালে বিশ্বের দূষিত শহরের শীর্ষে থাকা ঢাকায় এখন সবুজ সতেজ প্রকৃতি। ফুলে ফুলে ছেয়ে আছে চারপাশ। এ এক অন্যরকম স্নিগ্ধতা। যেখানে নীল আকাশের নিচে দাঁড়িয়ে প্রাণ ভরে নিঃশ্বাস নিচ্ছে নগরবাসী।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক বায়ুমান পর্যবেক্ষণ সংস্থা এয়ার ভিজ্যুয়ালের দূষিত বায়ুর শহরের তালিকায় গত মার্চ ও এপ্রিলে ঢাকার অবস্থান ছিল ৩০ থেকে ৪০ নম্বরে।

করোনা লকডাউনের জেরে দূষণের মাত্রা চোখে পড়ার মতো কমেছে। পরিবেশবিদরা বলছেন, এটি প্রকৃতির বিদ্রোহ। এর থেকে পাঠ নিয়ে দূষণ নিয়ন্ত্রণে এখনই কড়া পদক্ষেপ নিতে না পারলে, মানব সভ্যতা আরও দুর্গতিতে পড়বে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এমন মুগ্ধতা ধরে রাখতে মেয়াদহীন যানবাহন বন্ধের পাশাপাশি কলকারখানার দূষণ বন্ধেও শক্ত পদক্ষেপ নিতে হবে সরকারকে।

সূত্রঃ এবিএন

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.