ট্রাম্প–মেলানিয়ার করোনা শনাক্ত

Image Source : Twitter

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ফার্স্টলেডি মেলানিয়া ট্রাম্প করোনাভাইরাসে সংক্রমিত বলে শনাক্ত হয়েছেন। তাঁরা দুজনেই কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। ট্রাম্প এক টুইটে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হওয়ার কথা জানিয়েছেন।

এএফপির খবরে জানা যায়, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের চিকিৎসক সিন কনলি এক বিবৃতিতে জানান, ট্রাম্প ও মেলানিয়া দুজনেই ভালো আছেন। তাঁরা হোয়াইট হাউসেই থাকবেন বলে ঠিক করেছেন। তিনি বলেন, আমি আশা করি সুস্থ হওয়া পর্যন্ত ট্রাম্প কোয়ারেন্টিনে থেকেই দায়িত্বপালন করবেন।

করোয়ানায় সংক্রমিত হওয়ায় নির্বাচনী প্রচারের জন্য ট্রাম্পের ফ্লোরিডা সফর বাতিল করা হয়েছে বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউস।

এর আগে ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠ কর্মকর্তা হোপ হিকস করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হন। নির্বাচনী প্রচারে তিনি ট্রাম্প ও মেলানিয়ার সঙ্গে ছিলেন। করোনার নমুনা পরীক্ষার ফলের অপেক্ষায় ছিলেন ট্রাম্প ও মেলানিয়া। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ট্রাম্প টুইটে জানান, তিনি ও ফার্স্টলেডি করোনা পরীক্ষার ফল আসার অপেক্ষায় আছেন। তাঁরা কোয়ারেন্টিনে থাকবেন।

এএফপির খবরে জানা যায়, ট্রাম্প টুইটে জানান, ‘হোপ হিকস কোনো বিরতি না নিয়ে কঠোর পরিশ্রম করছিলেন। তিনি মাত্রই করোনায় শনাক্ত হয়েছেন। এটা ভয়ংকর!’

স্থানীয় সময় গত মঙ্গলবার ওহাইয়োতে টিভি বিতর্কে অংশ নেন ট্রাম্প। ট্রাম্পের সঙ্গে মেরিন ওয়ান হেলিকপ্টারে ভ্রমন করেন তাঁর ঘনিষ্ঠ কর্মকর্তা হোপ হিকস। হোয়াইট হাউসের সাংবাদিকরা জানান, হিকস ট্রাম্পের সঙ্গে ছিলেন।

হিকসকে গত মঙ্গলবার ক্লিভল্যান্ডে কোনো মাস্ক না পরে বিমান থেকে নামতে দেখা গেছে। একদিন পরই মিনেসোটায় তিনি ট্রাম্পের সঙ্গে ভ্রমন করেন।

ব্লুমবার্গ নিউজের খবর বলছে, হিকসের মধ্যে করোনার নানা উপসর্গ দেখা গিয়েছিল। মিনেসোটা থেকে ফেরার পথে এয়ার ফোর্স ওয়ানে তাঁকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছিল।

হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জুড ডিরে হিকসের শারীরিক অবস্থার বিষয়ে কিছু জানাননি।

এএফপির হিসাব অনুসারে, যুক্তরাষ্ট্রে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে ৭২ লাখের বেশি সংক্রমিত হয়েছেন। মারা গেছে ২ লাখের বেশি।

বিভিন্ন সরকারি কর্মসূচিতে ট্রাম্পকে কর্মকর্তাদের সঙ্গে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে দেখা যায় না। তিনি মাস্কও পরতেন না।

গত মে মাসে ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সের প্রেস সচিব কেটি মিলারের করোনা শনাক্ত হয়। পরে তিনি সুস্থ হন। একই মাসে যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনীর এক সদস্যের করোনা শনাক্ত হয়।

হিকস হোয়াইট হাউসে যোগাযোগ বিষয়ক পরিচালক হিসেবে দায়িত্বপালন করেন। এর আগে তিনি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারের মুখপাত্র হিসেবে দায়িত্বপালন করছিলেন।