তথ্য-প্রযুক্তি

টাকা লাগতে পারে টুইটার ব্যবহারে

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতির মাঝে সাবসক্রিপশন মডেল চালুর কথা ভাবছে টুইটার। এতে ব্যবহারকারীকে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ খরচ করে সামাজিক যোগাযোগের এই প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করতে হবে। টুইটারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জ্যাক ডরসি সম্প্রতি বিনিয়োগকারীদের প্রতিষ্ঠানের প্রান্তিক আয় জানানোর সময় সাবসক্রিপশন মডেল চালুর ইঙ্গিত দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, অর্থের বিনিময়ে টুইটার ব্যবহার করার একটি মডেলের এখনো প্রাথমিক অবস্থায় আছেন তারা।

প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট দ্য ভার্জের এক প্রতিবেদনে এই তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। জ্যাক ডরসি বলেন, ‘টেকসই আয় বাড়ানোর লক্ষ্য স্থির করেছি। আমাদের বিভিন্ন দিক থেকে আয় বাড়াতে হবে। তবে বেশি গুরুত্ব পাবে আমাদের বিজ্ঞাপন ব্যবসার পরিপূরক কোনো আয়ের পথ পেলে। আমরা সাবসক্রিপশনকে পরিপূরক মডেল হিসেবে দেখছি।’ ডরসি আরও বলেন, মানুষকে অর্থ দিয়ে টুইটার ব্যবহার করতে বললে একে তেমনই একটা জায়গায় নিয়ে যেতে হবে।

তবে কবে নাগাদ এই সাবসক্রিপশন মডেল চালু হতে পারে, সে ব্যাপারে টুইটারের পক্ষ থেকে এখনো কিছু জানানো হয়নি। তবে ডরসি বলেছেন, এ বছরেই কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালাবেন তিনি। এই পরীক্ষা চালাতে ইতোমধ্যেই ছোট একটি দল তৈরি করা হয়েছে এবং এই দলের জন্য নতুন কর্মী নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

টুইটার সম্প্রতি চলতি বছরে তাদের দ্বিতীয় প্রান্তিক, অর্থাৎ, এপ্রিল থেকে জুন মাসের আয়ের হিসাব ঘোষণা দিয়েছে। এ সময় প্রতিষ্ঠানটি আয় করেছে ৬৮ কোটি ৩০ লাখ ডলার, যা গত বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের তুলনায় ১৯ শতাংশ কম। একই সময় টুইটারের বিজ্ঞাপন আয় কমেছে ২৩ শতাংশ।

এ ব্যাপারে টুইটার কর্তৃপক্ষ জানায়, তাদের ব্যবস্থাপনা প্রযুক্তি তৈরির কাজ শেষ করেছে। এতে আরও দ্রুত টুইটারের উন্নয়নের কাজ করা যাবে। এছাড়া অ্যাপ ডেভেলপারদের জন্য বেশ কিছু সুবিধা যুক্ত করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

বেশ কিছুদিন ধরে নানা কর্মকাণ্ডে আলোচিত টুইটার। গত সপ্তাহজুড়ে প্রযুক্তি জগতে আলোচিত ঘটনা ছিল যুক্তরাষ্ট্রের রথী-মহারথীদের টুইটটার অ্যাকাউন্ট হ্যাকিংয়ের ঘটনা। প্রায় ১ লাখ ১৬ হাজার মার্কিন ডলার হারিয়েছেন এসব ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের অনুসারীরা। হ্যাকড ব্যক্তির তালিকায় রয়েছেন ডেমোক্র্যাটদের প্রেসিডেন্ট মনোনয়নপ্রত্যাশী জো বাইডেন।

ধনকুবেরদের মধ্যে আরও রয়েছেন ইলেকট্রিক গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী ইলন মাস্ক, আমাজনের সহপ্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোস, বিশ্বের অন্যতম ধনকুবের ওয়ারেন বাফেট, নিউইয়র্কের সাবেক মেয়র ও ধনকুবের মাইক ব্লুমবার্গ। আরও রয়েছেন টিভি তারকা কিম কার্ডাশিয়ান, তার স্বামী ও র‍্যাপ সংগীতশিল্পী কেনি ওয়েস্ট। একযোগে এই অ্যাকাউন্টগুলো হ্যাক করা হয়েছে।

তবে বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অ্যাকাউন্টটি অক্ষত রয়েছে। আরও তালিকায় রয়েছে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অ্যাপল ও বিশ্বব্যাপী রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠান উবারের অফিশিয়াল অ্যাকাউন্ট। এই হ্যাকের ঘটনাটি তদন্ত করছে টুইটারের অভ্যন্তরীণ টিম।

সম্প্রতি বিশ্বব্যাপী সব ধরনের রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনও নিষিদ্ধ করেছে অন্যতম সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটার। এ ব্যাপারে জ্যাক ডরসি বলেন, ‘যদিও ইন্টারনেট বিজ্ঞাপন বাণিজ্যিক বিজ্ঞাপনদাতাদের জন্য অবিশ্বাস্যভাবে শক্তিশালী এবং কার্যকর ভূমিকা পালন করে, তবে এটি রাজনীতিতেও উল্লেখযোগ্য ঝুঁকি নিয়ে আসে। এই ধরনের বার্তা অর্জিত হবে।’

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মিনিয়োপোলিসে পুলিশের হেফাজতে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েড নিহত হওয়ার পর বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভকারীদের হুমকি দিয়ে ট্রাম্প বলেছিলেন, ‘লুটপাট চালালে গুলি শুরু হবে’। টুইটটি সহিংসতায় উসকানিমূলক উল্লেখ করে টুইটার কর্তৃপক্ষ সেটি সতর্কবার্তা দিয়ে ঢেকে দিয়েছিল।

একই বিভাগের সংবাদ

Back to top button
x
Close
Close
%d bloggers like this: