জেগে উঠুন মোহাম্মদ নাসিম

শুক্রবার ভোররাতে মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণের পর অসুস্থ হয়ে পড়েন মোহাম্মদ নাসিম। এরপর অপারেশন টেবিলে এবং সেখান থেকে কোমায়। ৪৮ ঘণ্টা গত হয়ে গেছে। এখন পর্যন্ত ঘুমিয়ে আছেন মোহাম্মদ নাসিম। চিকিৎসকরা আগামীকাল পর্যন্ত তাঁকে পর্যবেক্ষণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তাঁর জন্য গঠিত হয়েছে মেডিকেল বোর্ড।

মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা বলেছেন যে, তিনি ডিপ কোমায় রয়েছেন। লাইফ সাপোর্ট দিয়ে তাঁকে বাঁচিয়ে রাখা হয়েছে এবং চিকিৎসকরা তাঁকে নিয়ে খুব একটা আশাবাদী নন, তাঁরা বলেছেন যে তাঁর জন্য অলৌকিক কিছুর প্রত্যাশা করছেন।

কিন্তু সাধারণ মানুষ, যারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাস করে, আওয়ামী লীগের অসংখ্য নেতাকর্মী, গুণগ্রাহী- তাঁরা মনে করছেন যে, অলৌকিক কিছু ঘটবে মোহাম্মদ নাসিমের জন্য এবং মোহাম্মদ নাসিম জেগে উঠবেন। পরম করুণাময়ের কাছে সকলের প্রার্থনা, জেগে উঠুন মোহাম্মদ নাসিম, তিনি যেন আবার ফিরে আসেন আগের রূপে। সেই ভরাট গলায় তিনি যেন আবার মঞ্চ আলোকিত করেন। আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিমের জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে থাকার ঘটনা এটাই প্রথম নয়। ১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্টের পর যখন দেশে খুনীদের রাজত্ব কায়েম হয়েছিল তখনো তিনি মারা যেতে পারতেন এবং তখন তিনি গ্রেপ্তার হয়ে জেলের প্রকোষ্ঠে ছিলেন। সেসময় তাঁর জীবন প্রদীপ নিভে যেতে পারতো।

ওয়ান ইলেভেনের সময় যখন তিনি কারান্তরীণ হয়েছিলেন এবং তখন তাঁর স্ট্রোক হয়েছিল, তখনো তিনি মারা যেতে পারতেন। সেসময় তিনি জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে ছিলেন এবং অলৌকিকভাবে বেঁচে ওঠেন। সকলে মনে করছেন এবারো মিরাকেল ঘটবে, মোহাম্মদ নাসিম সুস্থ হয়ে উঠবেন। কারণ মোহাম্মদ নাসিমকে বাংলাদেশের রাজনীতিতে এখনো অনেক বেশি দরকার। অনেক বেশি দরকার এই কারণে যে, বাংলাদেশে এখনো মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে প্রতিষ্ঠিত করার সংগ্রাম শেষ হয়নি। মোহাম্মদ নাসিম মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে প্রতিষ্ঠা করার যুদ্ধে আপোসহীন যোদ্ধা ছিলেন। মোহাম্মদ নাসিমকে এখন দরকার এই কারণে যে, বাংলাদেশে অসাম্প্রদায়িক রাজনীতির জন্য যে যুদ্ধ সেই যুদ্ধটা এখনো শেষ হয়নি। মোহাম্মদ নাসিম এই আপোসহীন অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের জন্য যে সংগ্রাম, সেই সংগ্রামের একজন নেতা ছিলেন।

মোহাম্মদ নাসিমকে রাজনীতিতে এখনো দরকার এই কারণে যে এখন দেশের সকল নেতাকর্মীর সঙ্গে দরজা অবারিত করে দেওয়া নেতার সংখ্যা কম। তৃণমূলের কর্মীদের জন্য এখনো নেতাদের দরজা উন্মুক্ত নয়। এজন্য মোহাম্মদ নাসিমকে আরো বেশি দরকার। মোহাম্মদ নাসিমের সুস্থ হয়ে ওঠা দরকার এই কারণে যে, বাংলাদেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যে সংগ্রাম, সেই সংগ্রাম এখনো শেষ হয়নি।

মোহাম্মদ নাসিম শেখ হাসিনার একজন বিশ্বস্ত যোদ্ধা। মোহাম্মদ নাসিমকে এইজন্য দরকার যে, জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমান যে সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলেন, সেই সোনার বাংলার স্বপ্ন এখনো সম্পূর্ণভাবে বাস্তবায়িত হয়নি। আর সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে মোহাম্মদ নাসিমের মতো নেতা দরকার।

মোহাম্মদ নাসিমকে রাজনীতিতে এখনো দরকার এই কারণে যে, ৭৫ এর ১৫ই আগস্টে যারা ষড়যন্ত্র করেছিল, ২০০৪ এর একুশে আগস্ট যারা গ্রেনেড হামলার ষড়যন্ত্র করেছিল, তাঁরা এখনো ষড়যন্ত্র করছে। আর এই ষড়যন্ত্র রুখতে যে বিশ্বস্ত লোকের দরকার সেই বিশ্বস্তদের প্রথম কাতারে রয়েছেন মোহাম্মদ নাসিম। সেইজন্যেই মোহাম্মদ নাসিমকে রাজনীতিতে এখনো দরকার।

দোষত্রুটি নিয়েই মানুষ, মোহাম্মদ নাসিমেরও অনেক সীমাবদ্ধতা ছিল এবং মন্ত্রী থাকা অবস্থায় হয়তো তাঁর অনেক অপূর্ণতাও ছিল। কিন্তু শেষ বিচারে মোহাম্মদ নাসিম একজন জনগনের রাজনৈতিক নেতা। যিনি জনগনের সঙ্গে মেশেন, জনগনের কথা শোনেন, জনগণের হৃদস্পন্দন অনুভব করেন।

জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের মৃত্যুর পর বাংলাদেশে যে অসাম্প্রদায়িক আর মুক্তিযুদ্ধের চেতনার রাজনীতি শেখ হাসিনা শুরু করেছিলেন। সেই রাজনীতিতে মোহাম্মদ নাসিমের অবদান কম নয় এবং সেই রাজনীতির ধারাকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য মোহাম্মদ নাসিমকে বাঁচিয়ে রাখা দরকার। এজন্য আমরা সকলে প্রার্থনা করি যে, মোহাম্মদ নাসিম যেন জেগে ওঠেন, সৃষ্টিকর্তা যেন তাঁকে সুস্থ করে তোলেন।

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.