জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন এলজিইডির ইঞ্জিনিয়ার রুবাইয়াত জামান টিটো

সরকারের দেয়া দায়িত্বের প্রতি সততা, একাগ্রতা, নিয়মানুবর্তিতা, শৃংখলা, কাজের গুনগত ও সংখ্যাগত মান এ রকম ১২ টি শুদ্ধাচার বিষয়ক মূল্যায়ন সুচকে যাচাই বাছাই করে ২০২০-২১ অর্থ বছরের পুরস্কার ঘোষণা করেছে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর।

গত ২৭ মে বুধবার অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মোঃ আব্দুর রশিদ খান স্বাক্ষরিত অফিস আদেশের মাধ্যমে সদর দপ্তর ও মাঠ পর্যায়ের মোট ১৪ জন বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তাদের এ পুরস্কারের জন্য চুড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়।

সরকারের উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নে প্রকৌশলীদের বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের খবরের মধ্যে এ খবরটি ইতিবাচক। তাই জানার জন্য ফোনে কথা হল মানিকগঞ্জ জেলার সিংগাইর উপজেলার প্রকৌশলী রুবাইয়াত জামানের সাথে। তিনি জানান- দেশের উন্নয়নে সরকার অনেক প্রকল্প গ্রহণ করছে, আমরা প্রকৌশলীরা সরকারের এসব প্রকল্প বাস্তবায়নে যারা সততা ও নিয়মানুবর্তিতার সাথে কাজ করেছি তারাই এ পুরস্কারের জন্য মনোনিত হয়েছি।

দূর্নীতি দূর করার জন্য বর্তমান সরকার সৎ কর্মকর্তাদের পুরস্কার দিচ্ছেন, যাতে অন্যরা উৎসাহিত হয়। এ পুরস্কার প্রাপ্তিতে নিজের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে তিনি সরকারকে ধন্যবাদ দেন এবং আনন্দ প্রকাশের পাশাপাশি দায়িত্ব বেড়ে গেল বলে তিনি মন্তব্য করেন।

জানা যায়, রুবাইয়াত জামানের জন্ম ও বেড়ে ওঠা ঢাকার মিরপুরে। তিনি এশিয়া প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয় হতে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং এ বিএসসি পাশ করেছেন। তার পিতা বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের যুগ্ম মহাসচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আসাদুজ্জামান আরজু আর মা কবি ও কথা সাহিত্যিক রোকেয়া ইসলাম। বাবা মায়ের তিন সন্তানের মধ্যে রুবাইয়াত জামান বড় সন্তান। তার ছোট দুই বোনের মধ্যে একজন ডাক্তার ও অন্যজন ব্যাংকার।

উল্লেখ্য, তার মা রোকেয়া ইসলাম বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা প্রশিকা মানবিক উন্নয়ন কেন্দ্রের চেয়ারম্যান ও নির্বাহী সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।