বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০২৩

sujon photo  03.06শাহজাদপুর প্রতিনিধি :সিরাজগঞ্জ শহর যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক সেলিম রেজা সুজন হত্যার সাথে জড়িত থাকার দায় শাহজাদপুর পৌর মেয়র নজরুল ইসলামের পুত্র ও যুবদল নেতা রাশেদ (২৪) এবং যুবদল নেতা মনিরুল ইসলাম (২২) কে গতকাল শনিবার রাতে সদর থানা পুলিশ গ্রেফতার করেছে। এ ঘটনায় শাহজাদপুরে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। চাঞ্চল্যকর এ হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই গোলাম মোস্তফা জানান, প্রাথমিক বিজ্ঞাসাবাদে মেয়র পত্র রাশেদ ও মনিরুল সিরাজগঞ্জ শহর যুবদল নেতা সুজন হত্যার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। এদুজনকেই আজ রোববার আদালতে হাজির করা হয়। এদের মধ্যে মনিরুল বিকেল ৫টায় সিরাজগঞ্জ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক জুলফিকার আলীর আদালতে হাজির হয়ে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। এসময় আসামী মনিরুল ইসলাম সপ্রনদিত হয়ে এই হত্যার দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তমূলক এ জবানবন্দি দেয়। জবানবন্দিতে তিনি বলেন, তিনি নিজ হাতে চাপাতি দিয়ে সুজনকে জবাই করে হত্যা করে। তার এই স্বীকারোক্তিতে ম্যাজিস্ট্রেট জুলফিকার আলী সন্তোষ প্রকাশ করেন। ফলে তিনি আর রাশেদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি নেন নি। এ জবানবন্দি রেকর্ড শেষে বিজ্ঞ আদালত এ দু’জনকেই জেল হাজতে প্রেরণ করবেন। বিকেল ৪টা থেকে সোয়া ৭ টা পর্যন্ত ৪ পৃষ্ঠার এ জবানবন্দিতে সুজন হত্যার পুরো ঘটনা মনিরুল উল্লেখ করেছে বলে জানা গেছে। উল্লেখ্য, যুবদল নেতা সুজন হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে দেওয়া তার স্ত্রী তিথি খাতুনের স্বীকারোক্তিতে শাহজাদপুরের যুবদল নেতা ও মেয়র পুত্র রাশেদ ও মনিরুলের নাম উল্লেখ থাকায় পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এ হত্যার সাথে জড়িত থাকার কথা তারা স্বীকার করে। এরপর পুলিশ দুপুর ১টার দিকে তাদের আদালতে হাজির করে। আদালতের বিচারক জুলফিকার আলী, তাদের আরও চিন্তা ভাবনা করে জবানবন্দি দেয়ার জন্য বিকেল ৫টা পর্যন্ত সময় দেন। এরপর মনিরুল ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেওয়া শুরু করে। গত বুধবার স্বামী হত্যার দায় স্বীকার করে তিথি আদালতে জবানবন্দি দেয়। পুলিশ গ্রেফতারকৃত তিথি ও তার ভাই পিয়াসকে সিরাজগঞ্জ সিনিয়ন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুপ্রিয়া রহমানের আদালতে হাজির করেন। এসময় তিথি স্বামী হত্যার সাথে নিজে জড়িত ছিলেন বলে আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দেন। পরে তাদের কারাগারে পাঠানো নির্দেশ দেন আদালত। গত সোমবার রাতে সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার মালশাপাড়া মহল্লায় নিজ বাড়িতে সিরাজগঞ্জ পৌর যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক সেলিম রেজা সুজনকে চাপাতি দিয়ে জবাই করে হত্যা করা হয়। এঘটনায় নিহতের স্ত্রী তিথি খাতুনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে পুলিশ। রাতে নিহত যুবদল নেতার মা মাজেদা সামাদ নিহতের স্ত্রী তিথি খাতুন, ভাই পিয়াস, শ্বাশুড়ি রাবেয়া বেগম ও শ্বশুর গোলাম রহমানের নাম উল্লেখ করে সিরাজগঞ্জ সদর থানায় মামলা দায়েরের জন্য আবেদন করেন। মামলা দায়েরের পর শ্যালক পিয়াসকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পুলিশ গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বুধবার বিকেলে আদালতে হাজির করলে স্বাীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দেয় তার স্ত্রী। পুলিশ, নিহতের পরিবার ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, নিহত যুবদল নেতা সুজন । স্ত্রী কন্যা নিয়ে সে শহরের মিরপুর মহল্লার বিরালা কুঠি এলাকায় ভাড়া বাড়িতে বসবাস করতেন। তিনি ডিস এ্যন্টিনা (ক্যাবল অপারেটর) ব্যবসা করতেন। এই ব্যবসা তার স্ত্রীর নামে মালিকানা লিখে দিতে তাদের মধ্যে প্রায়ই পারিবারিক কলোহ লেগেই থাকতো। একপর্যায়ে নিহত যুবদল নেতা তার স্ত্রী তিথি খাতুনের নামে তার ক্যাবল ব্যবসার অর্ধেক মালিকানা লিখে দেয়। কিছুদিন পর বাকি অংশ লিখে দেয়ার জন্য তাকে প্রায়াই চাপ সৃষ্টি করে। এনিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া বিবাদ লেগেই থাকতো। নিহত সুজনের বিরুদ্ধে ট্রেন পোড়ানো মামলাসহ একাধিক রাজনৈতিক মামলা থাকায় পুলিশি গ্রেফতার এড়াতে সে অধিকাংশ সময় বাড়ি ছেড়ে পলাতক থাকতো। এ সুযোগে ননদ জামাই রাশেদ সহ একাধিক পুরুষের সাথে স্ত্রী তিথির পরকিয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিষয়টি সুজন টের পেয়ে তাকা শাসন করলে সে আরও ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। পরে পরকিয়া প্রেমিকদের সাথে পরিকল্পনা করে এ হত্যার পথ বেছে নেয়। গত বুধবার সন্ধ্যায় সুজন বাড়িতে স্ত্রী তিথির সাথে দেখা করতে আসলে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে তাকে জুস বা সরবতের সাথে চেতনা নাশক দ্রব্য খাইয়ে দেয়। এসময় সুজন ঘুমে অচেতন হয়ে পড়লে তাকে চাপাতি দিয়ে নৃশংসভাবে জবাই করে হত্যা করে স্ত্রী তিথির পরকিয়া প্রেমিকদল। এর পর তার তিথির সহযোগিতায় নির্বিঘেœ হত্যাকান্ড পরিচালনা করে বাড়ির পেছন দরজা দিয়ে পালিয়ে যায়। সন্ধ্যার পর নিহত যুবদল নেতার শিশু কন্যা সুতি খাতুন প্রাইভেট শেষে বাড়ি ফিরে ঘরের দরজা ধাক্কা দিয়ে খুলে ফেললে তার পিতার জবাই করা লাশ দেখতে পায়। এসময় তার আত্ম চিৎকারে আত্মীয়-স্বজনরা ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। নিহত যুবদল নেতার ছোট ভাই আরিফ হোসেন জানান পরিকল্পিতভাবে আমার ভাই সুজনকে হত্যা করা হয়েছে। অবিলম্বে এ হত্যার সাথে জড়িতদের গ্রফতার করে দৃষ্টন্তমূলক শাস্তির জোর দাবি করছি। পুলিশ ঘাতক তিথির দেওয়া তথ্যানুযায়ী রাশেদ ও মনিরুলকে গ্রেফতার করেছে। আরও কয়েকজনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। গ্রেফতার ও দতন্তের স্বার্থে পুলিশ তাদের নাম উল্লেখ করেনি। এদিকে শনিবার বিকেলে শাহজাদপুর পৌর মেয়র নজরুল ইসলামের পুত্র রাশেদ তিথির সাথে জেল হাজতে দেখা করে ফেরার সময় সদর থানা পুলিশ উল্লাপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে। এ গ্রেফতার হওয়ার পর রাশেদ ষড়যন্ত্রমূলকভাবে শাহজাদপুর উপজেলা যুবলীগের প্রচার সম্পাদক রাজিব শেখ সুজন হত্যার সাথে জড়িত বলে পুলিশকে মিথ্যা তথ্য দেয়। পুলিশ ওই রাতেই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রাজিবকে শাহজাদপুর থেকে গ্রেফতার করে। এরপর প্রাথমিক জিজ্ঞাসা বাদে এ হত্যার সাথে রাজিব জড়িত থাকার প্রমাণ না পাওয়ায় তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। রাজিবকে গ্রেফতারের ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে গতকাল রোববার দুপুরে শাহজাদপুর উপজেলা যুবলীগের নেতা-কর্মীরা মেয়র নজরুলকে ট্রেন পোড়ানো মামলয় অবিলম্বে গ্রেফতার ও তার পুত্র রাশেদের দৃষ্টমূলক শাস্তির দাবিতে শহরে বিক্ষোভ মিছিল, সমাবেশ ও থানা ঘেড়াও কর্মসূচি পালন করে। এক সমাবেশে বিক্ষোভকারীরা আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে মেয়র নজরুলকে গ্রেফতার না করা হলে হরতালসহ কঠোর কর্মসূচির দেয়ার ঘোষণা করেন। এদিকে শাহজাদপুরের বিভিন্ন এলাকার লোকজন বলছে মেয়র পুত্র রাশেদ ও তিথিকে রক্ষার্থে মনিরুল সমস্ত দায় নিজ কাধে তুলে নিয়েছে এই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। দরগাপাড়া গ্রামের চা বিক্রেতা বেলাল হোসেনের ছেলে মনিরুল অভাব অনটনের কারণে সার্বক্ষণিক রাশেদের সহকারী হিসেবে সকল কাজে সহযোগিতা করতো। সে হিসেবে মনিবকে রক্ষায় এ হত্যার দায় স্বীকার করেছে বলে এলাকাবাসী ধারণা করছে।

সম্পর্কিত সংবাদ

শাহজাদপুরে প্রতারণা মামলায় আপন ভাই ও বোনের কারাদন্ড

শাহজাদপুর

শাহজাদপুরে প্রতারণা মামলায় আপন ভাই ও বোনের কারাদন্ড

সিরাজগঞ্জ শাহজাদপুরে চাচাতো বোনের দায়ের করা প্রতারণার মামলায় আপন ভাই বোনকে এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। গতসোমবার দুপ...

৪ কিলোমিটার ‘মুজিব বাঁধ’ ঝুকিপূর্ণ; জনদুর্ভোগ চরমে

দিনের বিশেষ নিউজ

৪ কিলোমিটার ‘মুজিব বাঁধ’ ঝুকিপূর্ণ; জনদুর্ভোগ চরমে

শামছুর রহমান শিশির : সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর উপজেলার রূপবাটি ইউনিয়নের বাঘাবাড়ী দক্ষিণ পাড় থেকে শুরু করে বেড়া পাম্প হাউ...

নতুন সম্পর্কে জড়ানোর আগে...

জীবনজাপন

নতুন সম্পর্কে জড়ানোর আগে...

শাহজাদপুরে কালবৈশাখী ঝড়ে ব্যাপক ক্ষতি

শাহজাদপুরে কালবৈশাখী ঝড়ে ব্যাপক ক্ষতি

সাগর বসাক, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট :আজ বুধবার বিকেলে শাহজাদপুর পৌরসদরসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের ওপর দিয়ে কালবৈশাখী ঝড় বয়ে গেছে। এ ঝড়...

শাহজাদপুর কায়েমপুরে কায়েমপুর ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান রানাসহ ৩ জনের জাসদে যোগদান

রাজনীতি

শাহজাদপুর কায়েমপুরে কায়েমপুর ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান রানাসহ ৩ জনের জাসদে যোগদান

নিজস্ব প্রতিবেদক, শাহজাদপুর : ২৫ মার্চ রোববার বিকেলে স্থানীয় জাসদ কার্যালয়ে উপজেলা জাসদ সভাপতি শফিকুজ্জামান শফির সভাপতিত...