গাজীপুরে আরো ১১ পোশাক শ্রমিক করোনায় আক্রান্ত

গাজীপুরে এক দম্পতিসহ আরো ১১ পোশাককর্মীর দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে ছয়জন একই পোশাক কারখানার কর্মী। এ নিয়ে জেলায় বিভিন্ন পোশাক কারখানার ২৭ জন শ্রমিক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেন। তারা সবাই হাসপাতাল ও বাড়িতে আইসোলেশনে রয়েছেন।আজ শনিবার গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এস এম তরিকুল ইসলাম এ তথ্য জানিয়েছেন।

গাজীপুর শিল্প পুলিশের ইনস্পেক্টর ইসলাম হোসেন জানান, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের কাশিমপুর থানার নয়াপাড়া এলাকাস্থিত ‘আলীম নিট ওয়্যার লিমিটেড’ কারখানার দুজন নারীসহ ছয়জন কর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবারের নমুনা পরীক্ষার প্রাপ্ত ফলাফলে তাদের দেহে কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়। করোনা সংক্রমণের লক্ষণ দেখা দেওয়ায় পরীক্ষার জন্য গত ১১ মে তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। তারা নিজেদের ভাড়া বাসায় হোম আইসোলেশনে রয়েছেন। আক্রান্ত এ ছয়জনের মধ্যে দুজনের বাড়ি বগুড়া জেলায়। অন্যদের বাড়ি নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ, সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া, শেরপুরের নালিতাবাড়ি ও টাঙ্গইলের গোপালপুর থানায়। তিনি আরো জানান, মহানগরের টঙ্গী পশ্চিম থানাধীন সাতাইশ রোড এলাকার এল উসান ফ্যাশন পোশাক কারখানার এক কর্মী তাঁর স্বামীকে নিয়ে স্থানীয় বাচ্চু মিয়ার বাড়িতে ভাড়া থাকেন। তাঁর স্বামী স্থানীয় ‘এশিউর নীটওয়্যার’ কারখানায় চাকরি করেন। তাদের বাড়ি ঠাকুরগাঁও জেলায়। করোনার লক্ষণ দেখা দেওয়ায় গতকাল শুক্রবার টঙ্গীর গণস্বাস্থ্য হাসপাতালে তাদের দেহের নমুনা পরীক্ষা করা হলে পজেটিভ আসে। তাদের ওই হাসপাতালে আসোলেশনে রাখা হয়েছে।

এ ছাড়া করোনার লক্ষণ দেখা দেওয়ায় গাজীপুর গত ১১ মে কোনাবাড়ির আমবাগ এলাকার ‘এমএম নিটওয়্যার লিমিটেড’ কারখানার একজন (কালার ম্যান) এবং ১০ মে কালিয়াকৈর উপজেলার পূর্ব মৌচাক এলাকার লিরিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের এক কর্মী এবং স্থানীয় সফিপুর এলাকার পান্ডা ফুটওয়্যার লিমিটেড কারখানার এক কর্মীর দেহের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা শেষে গত বৃহস্পতিবারের প্রাপ্ত ফলাফলে তাদের দেহে করোনা পজেটিভ এসেছে। আক্রান্ত ওই চার শ্রমিক গাজীপুরে তাদের ভাড়া বাসায় হোম আইসোলেশনে রয়েছেন।

গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এস এম তরিকুল ইসলাম বলেন, ‘গাজীপুরের বিভিন্ন পোশাক কারখানার নারীসহ মোট ২৭ শ্রমিকের দেহে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। নমুনা পরীক্ষার সর্বশেষ ১৪ মে পাওয়া ফলাফলে গাজীপুরের পাঁচটি কারখানার ১১ পোশাকশ্রমিকের দেহে করোনাভাইরাস পজেটিভ এসেছে। তাদের মধ্যে গাজীপুর মহানগরে নয়জন এবং কালিয়াকৈর উপজেলায় দুজন পোশাকশ্রমিকের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে তিনজন শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কোভিড-১৯ ডেডিকেটেড হাসপাতালে, একজন কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে এবং তিনজন টঙ্গীর গণস্বাস্থ্য হাসপাতালে আইসোলেশনে এবং অন্যরা তাদের বাড়িতে হোম আইসোলেশনে রয়েছেন।

গাজীপুরে কারখানাগুলোর মধ্যে গত ২৬ এপ্রিল প্রথম এক পোশাক শ্রমিকের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। তাঁর বাড়ি জয়পুরহাট জেলায়।

সূত্রঃ এবিএন/

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.