কলাপাড়ায় দালালের খপ্পরে মালয়েশিয়া প্রবাসী ছেলের নিখোঁজ সংবাদে পাগলপ্রায় ‘মা’ ॥

রাসেল কবির মুরাদ , কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি: কলাপাড়ার চাকামইয়া ইউনিয়নের পূর্ব চাকামইয়া গ্রামের জাহাঙ্গীর হাওলাদারের পুত্র শামীম হাওলাদার (২২) মালয়েশিয়া গিয়ে নিখোঁজ হলে একমাত্র বুকের ধনকে হারিয়ে মা এখন পাগলপ্রায় । দালালের খপ্পরে পরে ছেলেকে মালয়েশিয়া পাঠিয়ে তার কোন খোঁজ পাচ্ছেনা মা সামসুন্নাহার বেগম। ছেলেকে ফিরে পাবার জন্য বিভিন্ন মহলে তদ্বির, ছুটোছুটি এবং কলাপাড়া থানায় একটি সাধারন ডায়রী করছেন ।

স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মা সামসুন্নাহারের পুত্র শামীম হাওলাদার গত দেড় বছর পূর্বে একটি কোম্পানীর মাধ্যমে কাজ করার জন্য মালয়েশিয়া যায়। ওই কোম্পানীতে কিছুদিন কাজ করার পর নতুন ভিসা করানোর জন্য বাংলাদেশী এক দালাল নরসিংদী জেলার রায়পুর থানার নীলিক্ষা গ্রামের শাহআলম ও তার স্ত্রী বৃষ্টি বেগমের সাথে ৫ লক্ষ টাকার চুক্তি করেন শামীম। চুক্তিমত ৪ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা শামীম মালয়েশিয়া বসে নগদ প্রদান করেন। বাকী ৬০ হাজার টাকা মা সামসুন্নাহার দালালের স্ত্রী বৃষ্টি বেগমের ডাচবাংলা ব্যাংকের ১৪১১৪১০৬২ হিসাব নম্বরে আমতলী শাখার মাধ্যমে প্রদান করেন। এরপর গত ১৫ দিন ধরে ছেলে শামীমের কোন খোঁজ পাচ্ছে না মা সামসুন্নাহার বেগম। ছেলের ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বারটি সেই থেকে বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। দালালের স্ত্রী বৃষ্টি বেগমের কাছে ছেলের সংবাদ জানতে চাইলে উল্টাপাল্টা কথা বলেন। সর্বশেষ দালালের স্ত্রী বৃষ্টির ব্যবহৃত ০১৭৯৪-৬৭৩৪১৬ মোবাইল নাম্বারটিও বন্ধ পাওয়া যায়। দিশেহারা হয়ে মা সামসুন্নাহার কলাপাড়া থানায় জিডি (সাধারন ডায়েরী) করেন, যার নাম্বার ৭৯৯, ২২,০৬,২০২০।

মা সামসুন্নাহার বলেন, আমার বাবারে আমার বুকে ফেরত দেয়ার জন্য প্রশাসনের কাছে জোড় অনুরোধ জানাচ্ছি এবং দালাল চক্রকে ধরে আইনানুগ ব্যাবস্থা নেয়ার দাবী জানান তিনি।

কলাপাড়া ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খন্দকার মো: মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, এবিষয়ে থানায় একটি সাধারন ডায়রী করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে ।

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.