শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ভুয়া জনমত জরিপের কথা বলে তারা বিভিন্ন আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করে কল দিত এবং অর্থনৈতিক সুবিধা চাইত। তারা নিজেদেরকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রতিনিধি এবং মানবাধিকার সংস্থার কর্মকর্তা বলে পরিচয় দিয়ে আগামী সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট জরিপ ও সেখানে সম্ভাব্য প্রার্থীদের এগিয়ে রাখার নাম করে এমপি মনোনয়ন প্রত্যাশীদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিলেন তারা। এমনই প্রতারণা চক্রের মূলহোতাসহ তিন জনকে গ্রেপ্তার করেছে শাহজাদপুর থানা পুলিশ। 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(শাহজাদপুর সার্কেল) মোঃ কামরুজ্জামান।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- নোয়াখালী জেলার সুধারাম থানার বিনোদপুর গ্রামের মো. দুলাল হোসেনের ছেলে ও প্রতারক চক্রের মুল হোতা মোঃ জাহাংগীর হোসেন (৩৬), একই থানার নুয়ারনই গ্রামের বাহার মিয়ার মেয়ে তাছলিমা খাতুন (৩২) ও একই জেলার বেগমগঞ্জ থানার মনপুরা গ্রামের আছান উল্লাহ'র ছেলে মোঃ ফয়জুল্লাহ (৩০)। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে দুজনকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। অন্যজনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। 

শাহজাদপুর থানা সূত্রে জানা যায়, গ্রেফতারকৃতরা নিজেদের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রতিনিধি এবং মানবাধিকার সংস্থার কর্মকর্তা বলে পরিচয় দিয়ে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাথে যোগাযোগ করে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নিতেন। অভিযুক্তরা উপজেলার গাড়াদহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. সাইফুল ইসলামের সাথে একজন বিশেষ ব্যক্তিকে মনোনয়নের জন্য সুপারিশ ও জনমত জরিপে এগিয়ে রাখার আশ্বাস দিলে তিনি তাদের চাহিদা অনুযায়ী অর্থ প্রদান করেন। পরবর্তীতে প্রতারণার বিষয়টি বুঝতে পেরে উক্ত ব্যক্তিদের নামে ইউপি চেয়ারম্যান মো. সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে শাহজাদপুর থানায় মামলা দায়ের করেন।

এরপর সোমবার (২রা অক্টোবর) বিকালে শাহজাদপুর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে পৌর শহরের গ্রান্ড চাইনিজ রেস্টুরেন্ট থেকে প্রতারক চক্রের মূল পরিকল্পনাকারী জাহাঙ্গীর হোসেনকে গ্রেফতার করে। এসময় চক্রের বাকী দুই সদস্য কৌশলে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় তাছলিমা খাতুন ও ফয়জুল্লাহ কে পাবনা জেলার ইশ্বরদী থানা পুলিশের সহযোগিতায় রূপপুর পুলিশ ফাড়ির সামনে থেকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তাদের কাছে থাকা নগদ ৬৩ হাজার টাকা, একটি মোবাইল ফোন, একটি প্রিমিও প্রাইভেট কার ও মানবাধিকার কমিশনের আরও একটি পরিচয়পত্র জব্দ করা হয়।

এবিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (শাহজাদপুর সার্কেল) মোঃ কামরুজ্জামান বলেন, গ্রেপ্তারকৃত আসামীরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে যে, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ভুয়া জনমত জরিপের কথা বলে তারা বিভিন্ন আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করে কল দিত এবং অর্থনৈতিক সুবিধা চাইত। তারা নিজেদের কে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রতিনিধি এবং মানবাধিকার সংস্থার কর্মকর্তা বলে পরিচয় দিত। এছাড়াও জিজ্ঞাসাবাদে তারা ১০/১২ জন ব্যক্তির নিকট হতে প্রতারণামুলক অর্থনৈতিক সুবিধা নেয়ার কথা স্বীকার করেছে।

তিনি আরও জানান, গত মঙ্গলবার গ্রেপ্তার তিনজনের মধ্যে জাহাঙ্গীর ও তাসলিমাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৩ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। বাকিজনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। 

সম্পর্কিত সংবাদ

আবার জোড়া গোল মেসির, মায়ামির পর এবার শীর্ষে তুললেন নিজেকে

খেলাধুলা

আবার জোড়া গোল মেসির, মায়ামির পর এবার শীর্ষে তুললেন নিজেকে

জিলেট স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরুটা অবশ্য ইন্টার মায়ামির পক্ষে ছিল না। প্রায় ৬৬ হাজার দর্শকের সামনে স্বাগতিক নিউ ইংল্যান্ড ম...

বিগ ডাটা কি এবং কেন! ( What is Big Data and Why? )

ফটোগ্যালারী

বিগ ডাটা কি এবং কেন! ( What is Big Data and Why? )

একটা সময় ছিলো যখন আমরা আমাদের সবকিছুই কাগজে লিখে রাখতাম। কখন খেতে যাবো, কবে মিটিং, কখন শপিং এ যাবো এসব টু ডু লিস্টগ...

৫ বছরেও চেয়ারম্যানের পা পড়েনি গালা ইউনিয়ন পরিষদেঃ ভোগান্তিতে ইউনিয়নবাসী

শাহজাদপুর

৫ বছরেও চেয়ারম্যানের পা পড়েনি গালা ইউনিয়ন পরিষদেঃ ভোগান্তিতে ইউনিয়নবাসী

নাগরিক পরিচয়পত্র, জন্ম-মৃত্যু সনদ, ত্রাণ পেতে পোহাতে হচ্ছে চরম ভোগান্তি। আসতে হয় পৌর সদরে এতে করে আর্থিক ক্ষতিগ্রস্থ হচ্...

সাংবাদিক শিমুল হত্যায় মিরুর জামিন মেলেনি

আইন-আদালত

সাংবাদিক শিমুল হত্যায় মিরুর জামিন মেলেনি

সমকালের শাহজাদপুর প্রতিনিধি আবদুল হাকিম শিমুল হত্যা মামলার অভিযোগপত্রভুক্ত প্রধান আসামি বরখাস্তকৃত পৌর মেয়র হালিমুল হক ম...

চৌহালীতে পুকুরে ডুবে স্কুল শিক্ষিকার মৃত্যু

চৌহালী

চৌহালীতে পুকুরে ডুবে স্কুল শিক্ষিকার মৃত্যু

চৌহালী প্রতিনিধি: চৌহালীতে সেলিনা বেগম (৪১) নামের এক স্কুল শিক্ষিকার পুকুরে ডুবে মুত্যু হয়েছে। আজ বুধবার ভোরে বাড়ির প...

শাহজাদপুরে পানির চেয়ে দুধের দাম কমঃ কৃষক দিশেহারা