উত্তর কোরিয়ায় সর্দি-কাশি দেখলেই ধরে কোয়ারেন্টিনে

দেশে একজনও করোনা রোগী নেই বলে এতদিন জোর গলায় দাবি করে আসছিল উত্তর কোরিয়া।

তবে বিশেষজ্ঞদের ধারণা দারিদ্র্যপীড়িত দেশটি সম্ভবত সংক্রমণ শনাক্ত করতে পারছে না; সেখানে প্রাদুর্ভাব শুরু হলে তা ভয়াবহ প্রাণঘাতী হতে পারে।

অবশেষে করোনা মোকাবেলায় উদ্যোগ নিয়েছে কিম জং উনের দেশ। হাঁপানি ও সাধারণ সর্দি-কাশির লক্ষণযুক্ত ব্যক্তিদের ধরে ধরে কোয়ারেন্টিন করার আদেশ দিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ।

মঙ্গলবার জাপানি গণমাধ্যম সানকেই শিম্বুনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনা মোকাবেলায় উত্তর কোরিয়া হাঁপানি ও সাধারণ সর্দি-কাশির লক্ষণযুক্ত ব্যক্তিদের কোয়ারেন্টিন করার সিদ্ধান্ত এপ্রিলের শুরুতেই নিয়েছিল।

১১ এপ্রিল পলিটব্যুরোর এক বৈঠকের পর কিম জং উনের আকস্মিকভাবে নিখোঁজ হওয়ার সময়ের সঙ্গে এ সিদ্ধান্তের সময়কালের মোটামুটি মিল রয়েছে। দক্ষিণ কোরিয়ায় নির্বাসিত একজন পুরুষ উত্তর কোরিয়ার খেলোয়াড় সানকেই শিম্বুনকে বলেছে, তিনি উত্তর হামজিয়ং প্রদেশসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বসবাসরতদের সূত্রের সঙ্গে কথা বলে কোয়ারেন্টিনের বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছেন।

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.