অসুস্থ বাবাকে নিয়ে রাস্তায়-রাস্তায় ঘুরেছেন বিপ্লব

গত মার্চে জাতীয় দলের যে ২৭ ক্রিকেটার এক মাসের বেতনের অর্ধেক দিয়ে ২৭ লাখ টাকার তহবিল গঠন করেছিলেন, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব তাঁদের একজন। করোনার সময় অন্য মানুষের পাশে দাঁড়ানো ২০ বছর বয়সী এই লেগ স্পিনার নিজে বিপদে পড়ে বুঝলেন বাস্তবতা কতটা কঠিন। আর্থিক সাহায্য দিয়ে অন্যদের পাশে দাঁড়ালেও নিজের অসুস্থ বাবাকে নিয়ে একের পর এক হাসপাতালে ঘুরেও চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে পারেননি।

আমিনুল ইসলামের বাবা আবদুল কুদ্দুস ক’দিন ধরেই ভুগছিলেন শ্বাসকষ্টে। অসুস্থ বাবাকে নিয়ে আমিনুল দুই দিন ধরে অন্তত পাঁচটি হাসপাতালে ঘুরেছেন। কোথাও তাঁর বাবাকে ভর্তি করাতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত গতকাল সন্ধ্যায় বাংলাদেশ ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবালের সহায়তায় আমিনুল তাঁর বাবাকে ভর্তি করিয়েছেন মিরপুর হার্ট ফাউন্ডেশনে।

বাবাকে হাসপাতালে ভর্তি করালেও চিন্তামুক্ত হতে পারেননি আমিনুল, ‘হার্টের সমস্যার কারণে বাবার শ্বাসকষ্ট। গতকাল (পরশু) থেকে অনেক চেষ্টা করছিলাম হাসপাতালে ভর্তি করতে। কিছুতেই পারছিলাম না। কোথাও নিতে চায় না। পরে তামিম ভাইয়ের সহযোগিতায় হার্ট ফাউন্ডেশনে ভর্তি করিয়েছি। মাত্রই ভর্তি করিয়েছি, বুঝতে পারছি না বাবার শারীরিক অবস্থা এখন কেমন।’

আজ সকালে আমিনুল জানিয়েছেন, তাঁর বাবার শারীরিক অবস্থা আগের মতোই আছে। সকালে বাবার করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। পরীক্ষার ফল জানার পর পরবর্তী চিকিৎসা শুরু করবেন চিকিৎসকেরা।

এখানে মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.