অর্থাভাবে লেখাপড়া অনিশ্চিত শাহজাদপুরের কৃতী শিক্ষার্থী আলামিনের

নিজস্ব প্রতিবেদক : সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার জয়পুরা গ্রামের নির্মাণ শ্রমিক আলামিন হোসেন জিপিএ ৫ পেয়েছে। সে ওই গ্রামের হতদরিদ্র গার্মেন্টস শ্রমিক আইয়ুব আলীর ছেলে। স্থানীয় ঠুটিয়া স্কুল এন্ড কলেজের বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এবার এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়ে কৃতীত্বের সাথে উত্তীর্ণ হয়েছে। যমুনা নদীর ভাঙ্গণে বাড়িঘর-জমিজমা হারিয়ে তার পিতা আইয়ুব আলী স্ত্রী সন্তান নিয়ে আশ্রয় নেয় একই এলাকার জয়পুরা গ্রামে। এখানে আড়াই শতক জমির উপরে একটু ভাল ভাবে বসবাসের আশায় স্থানীয় সমিতি ও বিভিন্ন লোকজনের কাছ থেকে ধার দেনা ও উচ্চ সুদে ঋণ নিয়ে বাড়িতে একটি চৌচালা টিনের ঘর তোলে। এ দেনা পরিশোধে ব্যর্থ হয়ে অবশেষে বাড়িঘর ছেড়ে ও ছেলে মেয়ে ফেলে ঢাকার মিরপুরের একটি গার্মেন্টসে শ্রমিকের কাজ নেয়। এ থেকে তাদের যে আয় হয় তা দিয়ে সংসার চলে কোনরকম।পিতা মাতার এ কষ্ট থেকে কিছুটা মুক্তির জন্য লেখাপড়ার পাশাপাশি নির্মাণ শ্রমিকের কাজে যোগ দেয়। এ থেকে যে আয় হয় তা দিয়ে সে নিজের পড়ালেখার খরচ, চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী ছোট বোন জহুরা খাতুনের পড়ালেখার খরচ চালিয়েও কৃতী ফলাফল অর্জন করেছে। সে জেএসসিতেও জিপিএ-৫ পেয়েছে। সে ভাল কলেজ থেকে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করে ভবিষ্যতে একজন ইঞ্জিনিয়ার হতে চায়। অর্থাভাবে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি ও তার সে স্বপ্ন পূরণ করতে পারবে কি না তা নিয়ে তার মনে নানা সংশয় দেখা দিয়েছে।